ব্রেকিং নিউজ
বাংলা

আপডেট ১১ মিনিট ৫৩ সেকেন্ড

ঢাকা সোমবার, ২৪ অগ্রহায়ণ, ১৪২৬ , হেমন্তকাল, ১১ রবিউস-সানি, ১৪৪১

শিল্প-সংস্কৃতি আবারও মঞ্চে ‘দামাল ছেলে নজরুল’

আবারও মঞ্চে ‘দামাল ছেলে নজরুল’

নিরাপদ নিউজ: বিদ্রোহী কবি কাজী নজরুল ইসলামের ৪৩তম প্রয়াণ দিবসকে কেন্দ্র করে, তাঁর আত্মজীবনী মূলক নাটক ‘দামাল ছেলে নজরুল’ আবারও মঞ্চায়ন করতে যাচ্ছে শিশু-কিশোরদের নাট্য সংগঠন জেনেসিস থিয়েটার। আগামী ২১ আগস্ট সন্ধ্যা ৭টায় বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমীর এক্সপেরিমেন্টাল থিয়েটার হলে নাটকটির প্রদর্শনী হবে। মাহমুদ উল্লাহ রচিত নাটকটির নির্দেশনা দিয়েছেন নূর হোসেন রানা। ‘দামাল ছেলে নজরুল’ নাটকের কেন্দ্রীয় চরিত্রে নজরুলের ভুমিকায় ইমন খান ও কমরেড মোজাফফর চরিত্রে নিথর মাহবুব ছাড়াও অভিনয় করেছেন, নূর হোসেন রানা, নুসরাত লিয়া, ফারজানা রনি, ইকবাল, আফরোজা, সাকিব, মোক্তার, সালমা, মিলন, সমুদ্র, অহনা, আলী, পান্না, স্বপন, সোনিয়া, আ:রাজ্জাক, মহিদুল ও শিশুশিল্পী সারজানা, ইয়াশফা প্রমুখ ।
নাটকটিতে দেখা যাবে নজরুল ছেলে বেলায় বাবাকে হারিয়ে নিদারুণ কষ্টের মাঝে ছোটবোন কুলসুম আর মাকে নিয়ে ক্ষুধা, তৃষ্ণা সহ্য করে বড় হয়। মসজিদের ইমামতি করে সংসার চালাতে কস্ট হয় বলে, লেটোদলে কাজ নেয় নজরুল। সেখানেও ঠিকমতো পয়সা না পেয়ে রুটির দোকানে কাজ শুরু করেন। এভাবেই বাউন্ডলের মত জীবন চালনার জন্য মায়ের বকুনি আর বিবেকের তাড়নায় ইন্সপেক্টর কাজী রফিজুল্লাহ সাহেবের বাড়ি ময়মনসিংহে লজিং থেকে আবারো পড়াশুনা শুরু করেন নজরুল। সেখানে তিনি লজিং বাড়ির মেয়ে সিতারার সাথে পরিচিত হন। একসময় সেখান থেকে আবার চলে আসে চুরুলিয়ায় মায়ের কাছে। ভর্তি হন রাণীগঞ্জে ‘শিয়রশোল’ স্কুলে। এই স্কুলে থাকা অবস্থায় ইংরেজ তাড়ানোর কাজ শুরু করে নজরুল। চলে যায় যুদ্ধে, যুদ্ধের পাশাপাশি তাঁবুতে রাতের আঁধারে মাওলানা হাফিজের কাছে সাহিত্য চর্চা অব্যাহত রাখেন, অতঃপর সেখানে হাবিলদার নজরুল বাঙালি পল্টন ভেঙে দেওয়ার পর আবার কলকাতা এসে অন্যায়ের বিরুদ্ধে ‘কলম’ নামক ‘অস্ত্র’ হাতে নেন নজরুল। সাপ্তাহিক ‘বিজলী’ পত্রিকায় ইংরেজদের বিরুদ্ধে ‘বিদ্রোহী’ কবিতা প্রকাশ পেলে নতুন করে সারাদেশে ঝড় তোলে। সে সময় নজরুল ইচ্ছা পোষণ করেন বিশ্ব কবি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের সাথে দেখা করার। এসব নিয়ে নাটকটির কাহিনী রচনা হলেও, এর মাঝেই রয়েছে- লেটোদলের গান, নাচ, আবৃত্তি, পালা, হাফিজের দিওয়ানসহ নজরুলের প্রতি সিতারা, রমাবৌদি, ঠাকুমা, অরুনাদি ও পিনাকিদের ভালবাসার গল্প।

পাঠকের মন্তব্য: (পাঠকের কোন মন্তব্যের জন্য কর্তৃপক্ষ কোন ক্রমে দায়ী নয়)