ব্রেকিং নিউজ
বাংলা

আপডেট ৩৮ মিনিট ৬ সেকেন্ড

ঢাকা বুধবার, ২৬ অগ্রহায়ণ, ১৪২৬ , হেমন্তকাল, ১৩ রবিউস-সানি, ১৪৪১

বিনোদন, সাক্ষাৎকার আমি বাঘ কিংবা সিংহ নই-ফারুক

আমি বাঘ কিংবা সিংহ নই-ফারুক

একদার সুপারষ্টার ও মুক্তিযোদ্ধা ফারুক

একদার সুপারষ্টার ও মুক্তিযোদ্ধা ফারুক

নাসিম রুমি, ০৫ জুন ২০১৭, নিরাপদ নিউজ : দেশীয় চলচ্চিত্রে ফারুক একজন গুনী শিল্পী। ভাল আভিনয়ের জন্য তিনি একাধিকবার জাতীয় পুরষ্কার পেয়েছেন। ১৯৭০ সালে প্রয়াত পরিচালক এইচ, আকবর পরিচালিত ’জল’ ছবির মাধ্যমে চলচ্চিত্রে নায়ক হিসেবে আতœপ্রকাশ করেন। সত্তর ও আশি দশকে ফারুক সুপার ষ্টারের খ্যাতি অর্জন করেন। বিশেষ করে গ্রামের পটভূমি নিয়ে নির্মিত ছবিতে ফারুকের কোন প্রতিদ্বন্দ্বি ছিলনা। তিনি প্রযোজকও ছিলেন। ফারুক একজন বীর মুক্তিযোদ্ধা। সর্বদা স্পষ্ট ভাষী। সম্প্রতি তার সঙ্গে বিভিন্ন প্রসঙ্গে কথা হয় তা পাঠকদের উদ্দেশে তুলে ধরা হল।

প্রশ্নঃ শরীরের অবস্থা কেমন?
উত্তরঃ আগের চেয়ে অনেক ভাল আছি। যখন অসুস্থ ছিলাম তখন মনে হয়েছিল আমি হয়তো আর বাঁচবো না।
প্রশ্নঃ আপনি যে সুস্থ আছেন তার প্রমান কিন্ত শিল্পী সমিতির নির্বাচনে সকাল ১১টা থেকে রাত ৯টা পর্যন্ত অবস্থান করে বুঝিয়ে দিয়েছেন। বেশ মুডে ছিলেন।
উত্তরঃ শিল্পী সমিতির নির্বাচনে আমি মিশা-জায়েদ পরিষদকে সমর্থন করেছিলাম। আমার দায়িত্ব ছিল নির্বাচনের দিন ওদের উৎসাহ দেওয়া। তাই সকাল থেকে রাত পর্যন্ত এফডিসিতে ছিলাম। তুমিও তো আমাদের সাথে আড্ডা মারলে। প্রায় দেড় যুগ পরে আমি এফডিসিতে সকাল থেকে রাত পর্যন্ত অতিবাহিত করেছি নির্বচন উপলক্ষে।

ফারুকের সাথে নিরাপদ নিউজের সিনিয়র রিপোর্টার নাসিম রুমি

প্রশ্নঃ আপনি মিশা-জায়েদ পরিষদকে কেন পূর্ন সমর্থন দিয়েছেন?
উত্তরঃ আমার জানামতে একমাত্র আলমগীর ছাড়া সকল সিনিয়র শিল্পীরা মিশা-জায়েদ পষিদকে সমর্থন করেছিরেন। আমি সমর্থন করেছি এই জন্য, মিশা-জায়েদ পরিষদ শিল্পী সমিতির হয়ে চলচ্চিত্রের বর্তমানে নাজুক অবস্থানকে ভাল পথে এগিয়ে নিয়ে যাবে। তাদের প্রতিশ্রুতি আমার বিশ্বাস হয়েছে এবং আমার কাছে মনে হয়েছে মিশা-জায়েদ চলচ্চিত্রের উন্নয়নের জন্য ভূমিকা রাখতে পারবে। তাছাড়া এই প্রথমবারের মত মিশা-জায়েদ পরিষদ সিনিয়র শিল্পীদের সঠিক মূল্যায়ন করেছে। তাদের সাথে সর্বদা যোগাযো রেখেছে এবং সিনিয়র শিল্পীদের পরার্মশ চেয়েছে এবং সিনিয়র শিল্পীদের শিল্পী সমিতির উপদেষ্টা করে শিল্পী সমিতিকে মর্যাদা পূর্ণ স্থানে নিয়ে যাবে। তাদের কথা আমার বিশ্বাস হয়েছে তাই শত ভাগ সমর্থন দিয়েছি।
প্রশ্নঃ এবার বল তুমি কোন পরিষদকে সমর্থন করেছো? আমিও মিশা-জায়েদ পরিষদকে সমর্থন করেছি। তবে মিশা-জায়েদ পরিষদের এসি থেকে ২ জনকে ভোট দেইনি।
প্রশ্নঃ একদা আপনি চলচ্চিত্রে ভীষন ব্যস্ত ছিলেন। গত দেড় যুগ ধরে আপনার ব্যস্ততা নেই, এতে খারাপ লাগেনা?
উত্তরঃ যখন আমার খুবই জনপ্রিয়তা ছিল তখন আমার ব্যস্ততা হ্রাস পাওয়ার করনে, মাঝে মধ্যে কষ্ট পেতাম। তখন কেন নির্মাতারা আমাকে নিয়ে ছবি নির্মান করেনি? অনেকে বলেছে ফারুক ভাই খুবই ভাল অভিনেতা কিন্ত উনার সঙ্গে কাজ করতে ভয় পাই। আরে ভাই আমি বাঘ কিংবা সিংহ নাকি? ক্ষিধে পেলেই হরিণ কিংবা মানুষ খেয়ে ফেলবো। আমি তো প্রায় দুই শত ছবিতে কাজ করেছি। যদি বাঘ কিংবা সিংহ হতাম, তাহলে এত গুলো ছবি আমি কি করে করলাম।

ফারুকের সঙ্গে একদার জনপ্রিয় নায়িকা রোজিনা

ফারুকের সঙ্গে একদার জনপ্রিয় নায়িকা রোজিনা

প্রশ্নঃ আমার জানা মতে কিছু নির্মাতা আপনাকে ভয় পেত এবং বদমেজাজী হিসেবে আখ্যায়িত করতো?
উত্তরঃ তাই নাকি? তাহলে তারা আমাকে বাঘ কিংবা সিংহ মনে করতেন। হ্যাঁ আমার রাগ আছে তা সত্য। তবে আমি বিশ্বাস ঘাতকদের একেবারে অপছন্দ করি। চলচ্চিত্রের উন্নয়নের জন্য অতীতে আমি কিছু সত্য অপ্রিয় কথা মিডিয়াতে প্রকাশ করেছিলাম, সেটা কিছু-কিছু নির্মাতা ও প্রদর্শকদের পছন্দ হয়নি। তাই সড়যন্ত্র করে আমাকে নিয়ে ছবি নির্মান করেনি। মূলত তাদের সড়যন্ত্রে আমি চলচ্চিত্র থেকে বিছিন্ন হয়ে পড়ি।
প্রশ্নঃ আপনি যখন সুপার ষ্টার ছিলেন তখন ববিতা এবং রোজিনার সঙ্গে আপনার হৃদয় ঘটিত সর্ম্পক ছিল। এখন তাদের সাঙ্গে সর্ম্পক কেমন?
উত্তরঃ থাক সেই হারানো দিনের কথা। তুমি কিন্ত আমাকে অতীতের দিকে নিয়ে গেলে এবং আমর মুড নষ্ট করে দিলে। ওদের সঙ্গে অতীতেও সু-সর্ম্পক ছিল। এখনও তাই। তবে এখন যোগাযোগ খুবই কম। এই তো ববিতা ভোট দিতে আসলো শিল্পী সমিতির কিন্ত আমার সঙ্গে দেখা হয়নি।
প্রশ্নঃ নতুন করে কি অভিনয়ের চিন্তা ভাবনা আছে কি?

উত্তরঃ না। যখন অভিনয় করার বাসনা ছিল তখন অফার পাইনি এখন কি অফার পাবো? আগেও তো বলেছি। সিনিয়র গুনী শিল্পীদেও এখন কোন মূল্যায়ন হচ্ছেনা।
প্রশ্নঃ আপনি এখন কি নিয়ে ব্যস্ত?
উত্তরঃ রাজনীতি নিয়ে ব্যস্ত। আমি জাতীর জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের আর্দশের সৈনিক এবং আমার একমাত্র নেত্রী মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

পাঠকের মন্তব্য: (পাঠকের কোন মন্তব্যের জন্য কর্তৃপক্ষ কোন ক্রমে দায়ী নয়)