ব্রেকিং নিউজ
বাংলা

আপডেট ৩২ মিনিট ৫০ সেকেন্ড

ঢাকা বুধবার, ৭ চৈত্র, ১৪২৫ , বসন্তকাল, ১৩ রজব, ১৪৪০

ধর্মকর্ম আল কোরআন ও আল হাদিস

আল কোরআন ও আল হাদিস

আল কোরআন

বিসমিল্লাহির রাহমানির রাহিম
সূরা তাওবা১
মদীনায় অবতীর্ণ।
আয়াত : ১২৯; রুকূ : ১৬
৩৭. নিশ্চয় এই (মাসগুলির) স্থানান্তর কুফরের মধ্যে আরও কুফরী বৃদ্ধি করা, যা দ্বারা কাফেরদেরকে পথভ্রষ্ট করা হয় (এরূপে) যে, তারা সেই হারাম মাসকে কোন বছর হালাল করে নেয় এবং কোন বছর হারাম মনে করে, আল্লাহ যে মাসগুলিকে হারাম করেছেন, যেন তারা সেগুলির সংখ্যা পূর্ণ করে নিতে পারে, অতঃপর তারা আল্লাহর নিষিদ্ধ মাসগুলিকে হালাল করে নেয়, তাদের দুষ্কর্মগুলি তাদের কাছে শোভনীয় মনে হয়, আর আল্লাহ এরূপ কাফেরদেরকে হিদায়াত (এর তাওফীক দান) করেন না।

আল হাদিস
মিথ্যা সাক্ষ্য দেয়া হারাম
আবূ বাকারাহ্ নুফাই’ বিন হারেস রাদিয়াল্লাহু ‘আনহু থেকে বর্ণিত, তিনি বলেন, রাসূলুল্লাহ্ সাল্লাল্লাহু ‘আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেছেন: “আমি কি তোমাদেরকে সবচেয়ে বড় ও মারাÍক গোনাহ্ সম্পর্কে বলবো না? এ কথাটা তিনি তিনবার বললেন। আমরা বললাম: অবশ্যই বলুন, হে আল্লাহর রাসূল! তিনি বললেন: আল্লাহর সাথে শির্ক করা, পিতামাতার অবাধ্যতা; তিনি হেলান দিয়ে ছিলেন, অতঃপর (সোজা হয়ে) বসে বললেন: সাবধান! মিথ্যা কথা বলা এবং মিথ্যা সাক্ষ্য দেয়া। এ কথাটি তিনি বার বার বলতে ছিলেন, এমনকি আমরা বলতে লাগলাম- আহা! যদি তিনি থেমে যেতেন।”
[মুত্তাফাকুন ‘আলাইহি, বুখারী: ৫৯৭৬, মুসলিম: ৮৭]

পাঠকের মন্তব্য: (পাঠকের কোন মন্তব্যের জন্য কর্তৃপক্ষ কোন ক্রমে দায়ী নয়)