ব্রেকিং নিউজ
বাংলা

আপডেট ২৮ মিনিট ১৮ সেকেন্ড

ঢাকা সোমবার, ৩ পৌষ, ১৪২৫ , শীতকাল, ৯ রবিউস-সানি, ১৪৪০

এই দিনে ইতিহাসরে এই দিনে

ইতিহাসরে এই দিনে

ইতিহাসের এই দিনে

আজ (বুধবার) ১৪ মার্চ’২০১৮

১৮৭৯ সালের এ দিনে বিশ্বখ্যাত বৈজ্ঞানিক আলবার্ট আইনস্টাইন জন্মগ্রহণ করেন। তার জন্ম হয়েছিলো জার্মানীর উলম নগরীতে এবং তার বাবা ছিলেন বিদ্যুৎ প্রকৌশলী। আলবার্ট আইনস্টাইনের বিশেষ এবং সাধারণ আপেক্ষিক তত্ত্ব বিশ্ব সম্পর্কে মানব জাতির দৃষ্টিভঙ্গী আমূলে পরিবর্তন করে দিয়েছে। এ জন্য তিনি ১৯২১ সালে পর্দাথ বিদ্যায় নোবেল পুরস্কার লাভ করেন। তার আপেক্ষিক তত্ত্ব নিউটনের পদার্থবিদ্যার জগতে দারুণ অগ্রগতি সাধণ করেছিলো। বিশ্বখ্যাত এই বিজ্ঞানী ১৯৫৫ সালে পরলোকগমন করেন।

১৯৫৫ সালের এ দিনে ভিয়েতনামে ঐতিহাসিক দিয়েন বিয়েন ফুয়ের যুদ্ধ শুরু হয়। পাশ্চাত্যের একজন বিখ্যাত সমর ঐতিহাসিক এ যুদ্ধ সম্পর্কে লিখেছেন, এই প্রথম বারের মতো অইউরোপীয় ঔপনিবেশিক স্বাধীনতা আন্দোলন গেরিলা যুদ্ধের পর্যায় অতিক্রম করে এবং প্রচলিত সেনাবাহিনীর হিসেবে আত্মপ্রকাশ করে। এ যুদ্ধের মধ্য দিয়ে তারা পাশ্চাত্যের আধুনিক সেনাবাহিনীকে পরাজিত করে। উত্তর পশ্চিম ভিয়েতনামের দিয়েন বিয়েন ফুতে বিমান বন্দর নির্মাণ করে ফরাসি বাহিনী ভিয়েতনামের মুক্তি সেনাদের পর্যুদস্ত করতে চেয়েছিলো। কিন্তু জেনারেল গিয়াপের নেতৃত্বে ভিয়েতনামের সৈন্যরা ফরাসি বাহিনীকে ঘিরে ফেলে এবং তাদের পরাজিত করে। তারা আত্মসমর্পনে বাধ্য হন। দিয়েন বিয়েন ফুয়ের যুদ্ধের মাধ্যমে ভিয়েতনামে ফরাসি উপনিবেশের অবসান ঘটে।

১৯৭৮ সালের এ দিনে ইসরাইল মহড়ার অজুহাতে সৈন্য বাহিনীকে জড়ো করে এবং লেবাননের উপর আগ্রাসন চালায়। এই আগ্রাসনের মাধ্যমে ইসরাইল লেবাননের লিতানি নদী পর্যন্ত এলাকা দখল করে নেয়। ইসরাইলের পানির ঘাটতি মিটানোর জন্য তেল আবিব লিতানি নদীর পানি ব্যবহার করতে চেয়েছিলো। ইসরাইলের এই আগ্রাসনের পরিপ্রেক্ষিতে জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদ ৪২৫ নম্বর ইশতেহার গ্রহণ করে। এই ইশতেহারে ইসরাইলকে সত্বর লেবানন ত্যাগ করার আহবান জানানো হয়। জাতিসংঘ সেখানে চার হাজার সদস্যের একটি শান্তিবাহিনী প্রেরণ করার সিদ্ধান্ত গ্রহণ করে। তবে ইসরাইল এই ইশতেহারকে পাশ কাটানোর জন্য সেখানে নিজের একটি পেটোয়া বাহিনী রেখে আসে। ১৯৮২ সালে হামলা করে আবার ইসরাইল দক্ষিণ লেবানন দখল করে নেয়। তবে লেবাননের প্রতিরোধ যোদ্ধাদের প্রচন্ড এবং অব্যাহত আক্রমণের মুখে ইসরাইল শেষ পর্যন্ত ২০০০ সালে ওই এলাকা থেকে পিছু হটতে বাধ্য হয়।

ফার্সি ১৩৫৮ সালের ২৪শে ইসফান্দ অর্থাৎ ১৯৮০ সালের এ দিনে ইসলামী ইরানের সংসদ মজলিসে শুরার প্রথম নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। এই নির্বাচন অনুষ্ঠানের মাধ্যমে ইরানের ইসলামী বিপ্লবের অন্যতম লক্ষ্য অর্জিত হয়। আর ইরানের জনগণ অবাধ এবং সুষ্ঠু নির্বাচনের মাধ্যমে নিজেদের প্রতিনিধি নিয়োগ করার সুযোগ লাভ করেন। এই নির্বাচন এমন এক সময় অনুষ্ঠিত হয় ইসলাম ও ইরানের শত্রুরা বিভিন্ন ষড়যন্ত্রের মাধ্যমে একদিকে সদ্যজাত ইসলামী প্রজাতন্ত্রকে দুর্বল এবং ধ্বংস করে দেয়ার চেষ্টা করছে। অন্যদিকে ইরানে ইসলামী আইন বাস্তবায়ন যেনো না হয় তার প্রচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে। কিন্তু ইরানের জাগ্রত মুসলিম জনতা ইমাম খোমেনী (রহ) নেতৃত্বে শত্রুদের সব ষড়যন্ত্রের জ¦াল ছিন্ন করে দেয়।

ফার্সি ১৩৬৩ সাল অর্থাৎ ১৯৮৫ সালের এ দিনে তেহরানের জুমআর নামাজের সমাবেশে বিদেশীদের অনুচররা বোমা হামলা চালিয়েছিলো। তাদের ন্যক্কারজনক এ হামলায় বহু মুসল্লী শহীদ এবং আহত হন। ঠিক একই সময় তৎকালীন ইরাকের শাসক সাদ্দামের বিমান বহর ইরানের রাজধানী তেহরানের উপর বিমান হামলা চালায়। তবে তাদের এই বর্বরোচিত হামলা নামাজের জুমআর উপর কোনো প্রভাব ফেলতে ব্যর্থ হয়। সে সময় জুমআর নামাজের খোতবা পাঠ করছিলেন আয়াতুল্লাহিল উজমা খামেনেয়ী। তিনি যথারীতি তার খোতবা প্রদান করেন এবং নামাজ সম্পন্ন করেন।

১৯৯০ সালের এ দিনে মিখাইল গর্বাচেভ সাবেক সোভিয়েত ইউনিয়নের প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হন। সোভিয়েত ইউনিয়নের পিপলস কংগ্রেসের ডেপুটিরা তাকে ৫ বছরের জন্য প্রেসিডেন্ট হিসেবে নির্বাচন করেন। তিনিই ছিলেন সোভিয়েত ইউনিয়নের শেষ প্রেসিডেন্ট এবং ১৯৯১ সালে তিনি সোভিয়েত ইউনিয়নের প্রেসিডেন্টের পদ থেকে ইস্তফা দেন এবং সোভিয়েত ইউনিয়ন ভেঙ্গে যায়।

পোপের হাতে মুকুট পরিধান ছাড়াই প্রথম ফার্দিনান্দ রোম স¤্রাটের উপাধি ধারণ (১৫৫৮)
স্কটল্যান্ডে কনভেনশন পার্লামেন্ট অধিবেশনে উইলিয়াম ও মেরীকে ইংল্যান্ডের রাজা-রানী ঘোষণা (১৬৮৯)
পোপ নবম পিউস কর্তৃক রোমের সংবিধান প্রণয়ন (১৮৪০)
কার্লোস এন্টনিও লোপেজ প্যারাগুয়ের প্রথম সাংবিধানিক প্রেসিডেন্ট হিসেবে শপথ গ্রহণ (১৮৪৪)
পাকিস্তান-ভারতে অস্ত্র সরবরাহের ওপর থেকে যুক্তরাষ্ট্রের বিধিনিষেধ শিথিল (১৯৭৩)
রুশ ঔপন্যাসিক ম্যাক্সিম গোর্কির জন্ম (১৮৬৮)
বৈজ্ঞানিক সমাজতন্ত্রের প্রবক্তা কার্ল মার্কসের জন্ম(১৮৮৩)
ইরান-ইরাকের পরস্পরের রাজধানীর ওপর ক্ষেপণাস্ত্র হামলা শুরু (১৯৮৮)
ভারতের কংগ্রেস পার্টি ইতালি বংশোদ্ভূত সোনিয়া গান্ধীকে দলের সভাপতি মনোনয়ন (১৯৯৮)
ইউরি মুসাভেনি পুনরায় উগান্ডার প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত (২০০১)

পাঠকের মন্তব্য: (পাঠকের কোন মন্তব্যের জন্য কর্তৃপক্ষ কোন ক্রমে দায়ী নয়)