ব্রেকিং নিউজ
বাংলা

আপডেট ডিসেম্বর ৫, ২০১৮

ঢাকা বুধবার, ৫ পৌষ, ১৪২৫ , শীতকাল, ১১ রবিউস-সানি, ১৪৪০

এই দিনে ইতিহাসের এই দিনে

ইতিহাসের এই দিনে

আজ (বুধবার) ০৫ ডিসেম্বর’২০১৮

(বিশ্ব স্বেচ্ছাসেবী দিবস)
আন্তর্জাতিক স্বেচ্ছাসেবী দিবস আজ । জাতিসংঘ সাধারণ পরিষদে ১৯৮৫ সালের ১৭ ডিসেম্বরের অধিবেশনে প্রতি বছর ৫ ডিসেম্বর অর্থনৈতিক ও সামাজিক উন্নয়নে আন্তর্জাতিক স্বেচ্ছাসেবী দিবস পালনের জন্য সরকার সমূহকে আহবান জানানো হয় । জীবনের সর্বত্র স্বেচ্ছাসেবীদের অবদান সম্পর্কে গণ সচেতনতা এবং ঘরে ও বাইরে স্বেচ্ছাসেবায় অধিক সংখ্যক মানুষের অংশগ্রহণে উৎসাহ প্রদ আন্তর্জাতিক স্বেচ্ছাসেবী দিবস পালনের মূল উদ্দেশ্য। মানুষের অর্থনৈতিক ও সামাজিক উন্নয়নে জাতিসংঘ স্বেচ্ছাসেবীসহ সকল স্বেচ্ছাসেবীর সেবা এক গুরুত্বপূর্ণ অবদান রেখে আসছে। দেশী ও বিদেশী প্রতিষ্ঠানে বহু মাত্রিক, দ্বিপাক্ষিক অথবা জাতীয়, সরকারি বা বেসরকারি ক্ষেত্রে নিয়োজিত স্বেচ্ছাসেবীদের উৎসাহ প্রদানের বিষয়টি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তি আত্মত্যাগ। এই আত্মত্যাগ ঘরে বাইরে, দেশে বিদেশে সর্বত্র বিদ্যমান অথচ এ সম্পর্কে মানুষের ধারণা তেমন বিস্তৃত নয়। স্বেচ্ছাসেবীদের অবদানের মতো আত্মত্যাগকে জাতিসংঘ সাধারণ পরিষদ অত্যন্ত মর্যাদার সঙ্গে উল্লেখ করে তাদের সম্পর্কে জনসচেতনতা বৃদ্ধির লক্ষ্যে ৫ ডিসেম্বর আন্তর্জাতিক স্বেচ্ছাসেবী দিবস পালনের আহবান জানায়। উল্লেখ্য, অর্থনৈতিক ও সামাজিক পরিষদের ১৯৯৭/৪৪ সুপারিশ অনুসারে সাধারণ পরিষদ ১৯৯৭ সালের ২০ নভেম্বর ২০০১ সালকে আন্তর্জাতিক স্বেচ্ছাসেবী বর্ষ ঘোষণা করে। (সিদ্ধান্ত ৫২/১৭) পরিষদ স্বেচ্ছাসেবার স্বীকৃতি, সুবিধা, নেটওয়ার্ক ও উন্নয়নের জন্যে জনসচেতনতা বৃদ্ধির মাধ্যমে স্বেচ্ছাসেবা লক্ষ্য ও দক্ষতা অর্জনে উৎসাহ বৃদ্ধির প্রচেষ্টা চালায়। এসব স্বেচ্ছাসেবী পেশাদার এবং সাথীদেরসহ কাজ করে। তারা শোনে ও আলোচনা করে; শিক্ষা ও প্রশিক্ষণ দেয়; উৎসাহ ও সুবিধা দেয়। স্বেচ্ছাসেবী সবসময় অংশ নেয় এবং মত, দক্ষতা ও অভিজ্ঞতা বিনিময় করে। বিশাল ক্ষেত্র নিয়ে স্বেচ্ছাসেবীদের কর্মক্ষেত্র। প্রায় ১১০টি শিক্ষা ক্ষেত্রে কাজ করে তারা রোস্টার ভিত্তিক। এগুলোর মধ্যে রয়েছে কৃষি, স্বাস্থ্য এবং শিক্ষা। বর্তমানে ৩০% স্বেচ্ছাসেবী কাজ করছে আফ্রিকায়, ২৫% এশিয়ায় ও প্রশান্ত মহাসাগরীয় অঞ্চলে। বাকিরা আরব, ক্যারিবিয়ান, সেন্ট্রাল ও দক্ষিণ আমেরিকায়। বর্তমানে আন্তর্জাতিক জাতিসংঘ স্বেচ্ছাসেবী কার্যক্রমে বাংলাদেশের ২৮ জন বিশেষজ্ঞ রয়েছেন। বাংলাদেশে ইউএন ভি কার্যক্রম যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয়ের যুব অধিদপ্তরের বাস্তবায়নাধীন একটি পাইলট প্রকল্পে সমর্থন দিয়ে আসছে। যার অধীনে ২টি থানার ৪০টি যুব ক্লাবে আন্তর্জাতিক স্বেচ্ছাসেবক গ্রুপের ৪০ জন স্বেচ্ছাসেবক মাঠকর্মী হিসেবে কাজ করছে। মাঠকর্মীরা গ্রামের যুবকদের অংশগ্রহণ ভিত্তিক উন্নয়ন প্রকল্প চিহ্নিতকরণ, শুরু করা ও চালু রাখার ব্যাপারে অনুঘটকের কাজ করছে।

(সোহরাওয়াদীর মৃত্যু)
আজ গণতন্ত্রের মানসপুত্র খ্যাত হোসেন শহীদ সোহরাওয়াদীর মৃত্যুদিবস। তিনি ১৮৯২ সালের ৮ সেপ্টেম্বর কলকাতায় জন্মগ্রহণ করেন। তিনি ছিলেন রাজনীতিবিদ ও আইনজীবী । তার পিতার নাম স্যার জাহেদ সোহরাওয়াদী ও মায়ের নাম খোজেস্তা বানু। তিনি কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ১৯১৩ সালে এমএ পাস করেন। ব্যারিস্টারী পাস করেন ১৯১৮ সালে। ১৯৩৬ সালে মুসলিম লীগে যোগ দেন। অবিভক্ত বাংলার শেষ প্রধানমন্ত্রী ছিলেন সোহরাওয়াদী। ১৯৪৭ সালে শরৎ বসুর সাথে স্বাধীন বঙ্গের দাবি উত্থাপন করেন। ১৯৫৩ সালে আওয়ামী মুসলিম লীগ গঠন করেন। দলের আহবায়ক নির্বাচিত হন তিনি। ১৯৫৪ সালে যুক্তফ্রন্টের ঐতিহাসিক বিজয়ের পর তিনি পাকিস্তান কেন্দ্রীয় সরকারের আইনমন্ত্রী নিযুক্ত হন। ১৯৫৭ সালে তিনি প্রধানমন্ত্রীর পদ থেকে পদত্যাগ করেন। ১৯৬২ সালে এনডিএফ গঠন করে তিনি আবার রাজনীতিতে আত্মনিয়োগ করেন । শহীদ সোহরাওয়াদীকে গণতন্ত্রের মানসপুত্র’ বলে আখ্যায়িত করা হয়। অসুস্থ হয়ে চিকিৎসার জন্য তিনি বৈরুত যান। সেখানেই ১৯৬৩ সালের ৫ ডিসেম্বর মৃত্যুবরণ করেন। বিভিন্ন রাজনৈতিক দল প্রতিবছর এ দিনে আ স্মরণ করে ।

১৮১২ সালের এই দিনে নেপোলিয়ন বোনাপার্ট রাশিয়ায় লজ্জাজনক পরাজয়ের পর ফ্রান্সে ফিরে যায়। ইউরোপে ব্যাপক সাফল্য পাবার পর তিনি ১৮১২ সালের জুন মাসে রাশিয়ায় হামলা শুরু করেন। ছয় মাসব্যাপী যুদ্ধের পর নেপোলিয়ন বোনাপার্ট মস্কো দখল করতে সক্ষম হলেও প্রচন্ড শীত ও রুশ বাহিনীর হামলার কারণে পিছু হটতে বাধ্য হন। নেপোলিয়ন বোনাপার্টের সাড়ে তিন লক্ষ যোদ্ধার মধ্যে মাত্র ৩০ হাজার যোদ্ধা ফ্রান্সে ফিরে যেতে পেরেছিল।

১৯৯০ সালের এ দিনে বাংলাদেশের সাবেক প্রেসিডেন্ট হুসাইন মোহাম্মদ এরশাদ গণ আন্দোলনের মুখে পদত্যাগের সিদ্ধান্ত ঘোষণা করেন। তার এ ঘোষণাকে গণতন্ত্রের বিজয় হিসেবে গণ্য করা হয়।

ফার্সি ১৩৬৯ সালের এ দিনে ইরানের বিখ্যাত সঙ্গীতজ্ঞ মানুচেহের জাহানবেগলু ৬২ বছর বয়সে মৃত্যুবরণ করেন। ফার্সি ১৩০৭ সালে তার জন্ম হয়। তৎকালীন ইরানের স্বনামধন্য শিক্ষকদের কাছ থেকে তিনি শিক্ষা গ্রহণ করেছেন। এরপর তিনি সঙ্গীত বিষয়ে অস্ট্রিয়ার বিশ্ববিদ্যালয় থেকে পিএইচডি ডিগ্রী অর্জন করেন। ইরানে ফিরে এসে তিনি শিক্ষকতা ও গবেষণা শুরু করেন। তিনি বাদ্রযন্ত্র সানতুরসহ সঙ্গীত বিষয়ে বেশ কয়েকটি বই লিখেছেন।

হিজরী ১১৭১ সালের এদিনে ইরানের বিশিষ্ট আলেম ও হাদিস বিশারদ আবু আলী মোহাম্মদ বিন হাম্মাম জন্মগ্রহণ করেন। তিনি জীবনের বেশীর ভাগ সময় কাটিয়েছেন ইরাকের রাজধানী বাগদাদে। তার শিক্ষা ও সংস্পর্শে বহু যোগ্য আলেম গড়ে উঠেছে,যারা পরবর্তীতে ব্যাপক অবদান রেখে গেছেন। আবু আলী মোহাম্মদ বিন হাম্মাম ইসলামের ইতিহাস সম্পর্কে বেশ কয়েকটি বই লিখে গেছেন।

১৯৭৭ সালের এ দিনে মিশরের তৎকালীন প্রেসিডেন্ট আনোয়ার সাদাত সিরিয়া, লিবিয়া, আলজেরিয়া ও দক্ষিণ ইয়েমেনের সাথে কূটনৈতিক সম্পর্ক ছিন্ন করে। ইহুদিবাদী ইসরাইল সফর করার কারণে সিরিয়া, লিবিয়া, আলজেরিয়া ও দক্ষিণ ইয়েমেন আনোয়ার সাদাতের ব্যাপক সমালোচনা করেছিল। আনোয়ার সাদাত ১৯৮১ সালে এক সামরিক কুচকাওয়াজ অনুষ্ঠানে খালেদ ইস্তাম্বুলি নামে এক বিপ্লবী সেনা অফিসারের গুলিতে নিহত হন।

১৯৯২ সালের এই দিনে আলবেনিয়াকে মুসলিম রাষ্ট্র হিসেবে ঘোষণা করা হয়।
১৯৯৫ সালের ৫ ডিসেম্বর হংকং-র সবোর্চ্চ আদালতে প্রথমবারের মতো চীনা ভাষায় মামলা পরিচালিত হয়।
১৯৯৬ সালের ৫ই ডিসেম্বর ম্যাডেলিন অলব্রাইট যুক্তরাষ্ট্রের ইতিহাসের প্রথম নারী পররাষ্ট্র মন্ত্রী হিসেবে নিযুক্ত হন।
১৯৫০ সালের এদিনে কোরিয় যুদ্ধ চলাকালে চীনের সৈন্যরা উত্তর কোরিয়ার রাজধানী পিয়ংইয়ং-এ প্রবেশ করে।

লন্ডনে প্রথম নিলাম ডাক শুরু (১৭৬৬)
অবিভক্ত ভারতে নারী শিক্ষার অন্যতম পথিকৃৎ, দিগদর্শন পত্রিকার সম্পাদক জোশুয়া মার্শম্যানের মৃত্যু (১৮৩৭)
রাশিয়ার বিপ্লবী সরকার ও জার্মানির মধ্যে সন্ধি স্থাপন (১৯১৭)
সোভিয়েত ইউনিয়নে নতুন সংবিধান প্রণীত (১৯৩৬)
মুক্তিযুদ্ধ চলাকালে পাকিস্তানের বিরুদ্ধে বাংলাদেশ ও ভারতের যৌথ কমান্ডে মিত্রবাহিনী গঠন (১৯৭১)
যুক্তরাজ্যের ইউনেস্কোর সদস্যপদ প্রত্যাহার (১৯৮৫)
ভারতের ভৌত রসায়ন বিজ্ঞানের পথিকৃৎ ড. নীলরতন ধরের মৃত্যু (১৯৮৬)
আলবেনিয়াকে মুসলিম রাষ্ট্র ঘোষণা (১৯৯২)

পাঠকের মন্তব্য: (পাঠকের কোন মন্তব্যের জন্য কর্তৃপক্ষ কোন ক্রমে দায়ী নয়)