ব্রেকিং নিউজ
বাংলা

আপডেট ১৬ মিনিট ১৯ সেকেন্ড

ঢাকা বৃহস্পতিবার, ৬ অগ্রহায়ণ, ১৪২৬ , হেমন্তকাল, ২৩ রবিউল-আউয়াল, ১৪৪১

এই দিনে ইতিহাসের এই দিনে

ইতিহাসের এই দিনে

আজ (শনিবার) ০৬ জুলাই’২০১৯

১২৬৫ সালের এ দিনে অর্থাৎ ৬ ই জুলাই ইতালীর বিশ্বখ্যত কবি দান্তে আলিঘিইরি ফ্লোরেন্স শহরে জন্ম গ্রহণ করেন। একজন বড় কবি বা সাহিত্যিক হওয়া ছাড়াও তিনি ছিলেন একজন রাজনৈতিক কর্মকর্তা। তার লেখা অনেক কাব্যের মধ্যে ডিভাইন কমেডী বিখ্যাত। এই কাব্য পৃথিবীর অধিকাংশ ভাষায় অনূদিত হয়েছে। খৃষ্টীয় ১৩২১ সালে তিনি মারা যান।

১৮৮৫ সালের এ দিনে বিখ্যাত ফরাসী চিকিৎসক ও বিজ্ঞানী লুই পাস্তুর রোগ প্রতিরোধক টীকা আবিস্কার করেন। তার এ আবিস্কারের ফলে বিভিন্ন জন্তু ও বিশেষ করে কুকুর থেকে মানুষের মধ্যে ছড়িয়ে পড়তে সক্ষম রোগগুলো সারিয়ে তোলার পথ সুগম হয়।

১৯৬৪ সালের এ দিনে পূর্ব আফ্রিকার মোলাওয়ি দেশটি বৃটেন থেকে স্বাধীনতা অর্জন করতে সক্ষম হয়। অতীতে এই দেশটিকে নিয়াসাল্যান্ড বলা হতো। ১৮৫৯ সালে স্কটল্যান্ডের খ্রীষ্টান মিশনারীদের একটি গ্রুপ এবং বিখ্যাত বৃটিশ আবিস্কারক ডেভিড লিভিংস্টোন মোলাওয়িতে যান। এরপর সেখানে বৃটেনের উপনিবেশ প্রতিষ্ঠিত হয়। বৃটেন এই অঞ্চলে পর্তুগাল ও জার্মানীর হামলা প্রতিহত করেছিল। ১৯৫৩ সালে নিজ উপনিবেশগুলোকে ঐক্যবদ্ধ করার জন্য এবং এই উপনিবেশগুলোতে লুণ্ঠন সহজ করার জন্য দক্ষিণ ও মধ্য আফ্রিকায় রোডেশিয়া ও নিয়াসাল্যান্ড ফেডারেশন গঠন করে। কিন্তু স্থানীয় অধিবাসীরা এই ফেডারেশন গঠনের বিরোধীতা করে। অবশেষে ১৯৬২ সালে জনতার ব্যাপক বিক্ষোব ও সশস্ত্র বিদ্রোহ ছড়িয়ে পড়লে ১৯৬৩ সালে এই ফেডারেশন বাতিল করা হয় এবং গঠিত হয় মোলাওয়ি প্রজাতন্ত্র। মোলাওয়ির আয়তন এক লক্ষ ১৮ হাজার ৪৮৪ বর্গ কিলোমিটার। তাঞ্জানিয়া, জাম্বিয়া ও মোজাম্বিক দেশটির প্রতিবেশী।
১৯৭৫ সালের এই দিনে আফ্রিকান কমোরো দ্বীপপুঞ্জ ফরাসী দখলদারিত্ব থেকে স্বাধীনতা অর্জন করে। অতীতে এই দেশটি ছিল আরবদের আওতাধীন এবং ফলে সেখানকার অনেক মানুষ ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করে। ষোড়শ শতাব্দীতে পুর্তুগীজরা দেশটি দখল করে এবং ১৮৪২ সাল থেকে ফরাসী উপনিবেশবাদীরা দেশটির কিছু অংশ দখল করে। এরপর ধীরে ধীরে পুরো কমোরো ফরাসীদের দখলে চলে যায়। অবশেষে কমোরোর জনগণের স্বাধীনতা সংগ্রাম ১৯৭৫ সালে বিজয় অর্জন করে এবং দেশটি স্বাধীনতা অর্জন করে। কমোরো দক্ষিণ পূর্ব আফ্রিকায় ভারত মহাসাগরে অবস্থিত। দেশটির আয়তন ১৮৬২ বর্গ কিলোমিটার।

২৫৪ হিজরীতে পরম অনুকরণীয় নবী বংশ বা আহলে বাইত (আঃ)’র অন্যতম সদস্য তথা দশম ইমাম আলী বিন মোঃ আল হাদী (আঃ) শাহাদত বরণ করেন। তিনি ২১২ হিজরীর ১৫ ই জিলহজ¦ বা খৃষ্টীয় ৮২৮ সালে মদীনায় জন্ম গ্রহণ করেছিলেন। পিতা ইমাম জাওয়াদ (আঃ)’র শাহাদতের পর তিনি মুসলমানদের নেতৃত্বের ভার গ্রহণ করেন। ইমাম হাদী (আঃ)সাত জন আব্বাসীয় খলিফার সমসাময়িক ছিলেন। এই সাতজন হলেন যথাক্রমে খলিফা মামুন, মুতাসিম, ওয়াসিক, মোতাওয়াক্কিল, মুন্তাসির, মোস্তাইন এবং মুতাজ। ২২০ হিজরীতে খলিফা মুতাসিম ইমাম হাদী (আঃ)’র পিতাকে বাগদাদে বিষ প্রয়োগে শহীদ করেছিল। এ সময় ইমাম হাদী (আঃ) মদীনায় ছিলেন। ইমামতের মহান দায়িত্ব পালন এবং ইসলামী শিক্ষা ও বিধি বিধান প্রচারের জন্যে তিনি মদীনায় একটি কেন্দ্র গড়ে তোলেন। মুসলিম বিশ্বের সব স্থানে তাঁর সুনাম ও খ্যাতি ছড়িয়ে পড়েছিল। ইমাম হাদী (আঃ)’র জ্ঞান ভান্ডার থেকে উপকৃত হবার জন্যে বহু দূর ও কাছের এলাকা থেকে জ্ঞান-পিপাসুরা তাঁর কাছে জড়ো হত। আব্বাসীয় খলিফারা জনগণের মধ্যে ইমাম হাদীর এতো জনপ্রিয়তা ও প্রভাব লক্ষ্য করে ভীত হয়ে পড়ে এবং তাকে গণবিচ্ছিন্ন করার জন্য কৌশলে ইরাকের সামারায় নিয়ে আসে। কিন্তু এরপরও জনগণের ওপর তাঁর প্রভাব না কমায় আব্বাসীয় খলিফা মুতাজের নির্দেশে ইমাম হাদী (আঃ)কে মাত্র ৪১ বছর বয়সে শহীদ করা হয়। সামারায় তাঁর মাজার আজো আহলে বাইত প্রেমিক লক্ষ কোটি মুসলমানের জিয়ারতগাহ। ইমাম হাদী (আঃ) বলেছেন, যে নিজের কাছেই হীন সে কখনও মন্দ ও অশুভ বিষয় থেকে মূক্ত নয়।

এবারে এই দিনের আরো দুটি বিশেষ স্মরণীয় ঘটনা সংক্ষেপে তুলে ধরছি।

১৯৭৯ সালের এ দিনে মিশরে নীল নদের তীরে বিনানুল মূলক নামক গুহায় মিশরের ফেরাউন দ্বিতীয় রেমেসিসের মমি আবিষ্কৃত হয়।

চেক ধর্মীয় সংস্কারবাদী জান হুসকে ক্যাথলিক কাউন্সিল কর্তৃক জীবন্ত পুড়িয়ে হত্যা (১৪১৫)
ভূমিকম্পে আগ্রা বিধ্বস্ত (১৫০৫)
ইংরেজ মানবতাবাদ নেতা, লেখক টমাস ঘোরের মৃত্যুদ- (১৫৩৫)
সিঙ্গাপুরের প্রতিষ্ঠাতা স্যার টমাস স্ট্যামফোর্ড র‌্যাফলসের জন্ম (১৭৮১)
মিশরে নীল নদের তীরবর্তী ভূ-প্রকৌষ্ঠ থেকে ফেরাউন দ্বিতীয় রেমেসিসের মমি আবিষ্কার (১৮৭৯)
লুই পাস্তুরের জলাতংক চিকিৎসার সফলতা লাভ (১৮৮৫)
বিশ্বের প্রথম বিমান-ব্রিটিশ আর-৩৪ এর আটলান্টিক অতিক্রম (১৯১৯)
নিকারাগুয়ার প্রথম জাতিসংঘের সনদ গ্রহণ (১৯৪৫)
লন্ডন শহরে শেষবারের মতো ট্রাম চলাচল (১৯৫২)
৭৩ বছর ব্রিটিশ অধিকারে থাকার পর মালায়ি (ন্যায়াসাল্যান্ড) এর স্বাধীনতা অর্জন (১৯৬৪)
নাইজেরিয়ায় গৃহযুদ্ধ শুরু (১৯৬৭)
কামুজু বান্দার নিজেকে মালাবির আজীবন প্রেসিডেন্ট ঘোষণা (১৯৭১)
চীনের কমিউনিষ্ট সামরিক নেতা জুদে’র মৃত্যু (১৯৭৬)
ইসরাইলের পার্লামেন্টে ইহুদ বারাককে প্রধানমন্ত্রী হিসেবে অনুমোদন (১৯৯৯)

পাঠকের মন্তব্য: (পাঠকের কোন মন্তব্যের জন্য কর্তৃপক্ষ কোন ক্রমে দায়ী নয়)