ব্রেকিং নিউজ
বাংলা

আপডেট ৫ মিনিট ২৪ সেকেন্ড

ঢাকা শনিবার, ৪ কার্তিক, ১৪২৬ , হেমন্তকাল, ১৯ সফর, ১৪৪১

এই দিনে ইতিহাসের এই দিনে

ইতিহাসের এই দিনে

আজ (মঙ্গলবার) ০৯ জুলাই২০১৯

১৮১৬ সালের এই দিনে আর্জেন্টিনা স্বাধীনতা লাভ করে। ষোড়শ শতকের প্রথম থেকেই আর্জেন্টিনা ছিল স্পেনের উপনিবেশ। বৃটেনের সাথে আর্জেন্টিনার কয়েক দফা যুদ্ধ হয়। আর্জেন্টিনার জনগণ প্রতিরোধ সংগ্রামের মাধ্যমে ১৮১৬ সালের এই দিনে দখলদারদের বিতাড়িত করে স্বাধীনতা অর্জন করতে সক্ষম হয়। দক্ষিণ আমেরিকার দেশ আর্জেন্টিনার আয়তন ২৭ লক্ষ ৮০ হাজার ৯২ বর্গ কিলোমিটার এবং চিলি, বলিভিয়া, প্যারাগুয়ে ও ওরুগুয়ে হচ্ছে আর্জেন্টিনার প্রতিবেশী দেশ।

১৯৪৮ সালের এই দিন এক মাস যুদ্ধ বিরতির পর আরব ও ইহুদিবাদী ইসরাইলের মধ্যে নতুন করে যুদ্ধ শুরু হয়। ফিলিস্তিনী ভূখন্ড দখল করে ১৯৪৮ সালের মে মাসে ইসরাইল প্রতিষ্ঠার পর থেকেই উভয় পক্ষের মধ্যে যুদ্ধ শুরু হয় এবং জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদের আহ্বানে জুন মাসে যুদ্ধ বিরতি প্রতিষ্ঠিত হয়। যুদ্ধ বিরতি চলাকালে ইহুদিবাদীরা পাশ্চাত্যের বিভিন্ন দেশ বিশেষ করে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের কাছ থেকে বিপুল পরিমাণ অস্ত্র সংগ্রহ করে এবং ৯ই জুলাই পুণরায় যুদ্ধ শুরুর মাধ্যমে ব্যাপক সাফল্য অর্জন করতে সক্ষম হয়। জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদ পুণরায় যুদ্ধ বিরতির প্রস্তাব দিলেও তারা তা প্রত্যাখ্যান করে। ইহুদিবাদীরা পুণরায় যুদ্ধ বিরতি তখনি মেনে নেয় যখন তারা তাদের লক্ষ্যে পৌছতে সক্ষম হয়। দখলদার ইসরাইল ১৯৪৯ সালের জানুয়ারি মাসে যুদ্ধ বন্ধের চুক্তিতে স্বাক্ষর করে। আর এ সময়ের মধ্যে তারা ফিলিস্তিনের ৭৮ শতাংশ ভূখন্ড দখল করে নেয় এবং সাড়ে ৭ লক্ষ ফিলিস্তিনী শরণার্থীতে পরিণত হয়।

১৯৭২ সালের এই দিনে দখলদার ইসরাইলের গুপ্তচর সংস্থা মোসাদের সদস্যরা ফিলিস্তিনের সংগ্রামী লেখক গাসান কানানিকে হত্যা করে। লেবাননের রাজধানী বৈরুতে গাড়ীতে পেতে রাখা বোমা বিস্ফোরণে তিনি তার ভাতিজাসহ নিহত হন। এর ১৬ দিন পর তার সহযোগী বাসাম আবু শরীফকেও হত্যার চেষ্টা করা হয়। ইহুদিবাদীরা বিভিন্ন দেশে অবস্থানরত ফিলিস্তিনী নেতৃবৃন্দকে বিভিন্ন সময় এভাবেই হত্যা করেছে এবং এই প্রক্রিয়া অব্যাহত রয়েছে। কিন্তু সন্ত্রাসবাদ বিরোধী হিসেবে দাবিদার দেশগুলো কখনোই এ ব্যাপারে প্রতিক্রিয়া দেখায় নি।

২০০২ সালের এই দিনে আফ্রিকার দেশগুলোর নেতৃবৃন্দ অর্গানাইজেশন অব আফ্রিকান ইউনিটির স্থলে আফ্রিকান ইউনিয়ন প্রতিষ্ঠার ঘোষণা দেন। আফ্রিকা মহাদেশের দেশগুলোর স্বাধীনতা অর্জনকে সহজীকরণ ও নিজেদের দ্বন্দ্ব-বিবাদ মিটিয়ে ফেলার লক্ষ্যে ১৯৬৩ সালে অর্গানাইজেশন অব আফ্রিকান ইউনিটি গঠন করা হয়েছিল। কিন্তু সময় গড়াবার সাথে সাথে আফ্রিকান নেতৃবৃন্দ আরও সক্রিয় একটি সংস্থা গঠনের প্রয়োজনীয়তা উপলব্ধি করেন। আফ্রিকান ইউনিয়নের বেশ কয়েকটি অঙ্গ সংগঠন রয়েছে। আফ্রিকান ইউনিয়নের শান্তি ও নিরাপত্তা পরিষদ, সংকটময় মুহুর্তে সদস্য দেশগুলোর আভ্যন্তরীণ বিষয়ে হস্তক্ষেপের অধিকার রাখে। আফ্রিকান ইউনিয়নের সদর দপ্তর ইথিউপিয়ায় অবস্থিত এবং প্রতি বছর সংস্থাটির শীর্ষ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়।

২৪৮ সালের রজব মাসে বিখ্যাত লেখক ও ইসলামী চিন্তাবিদ আবু হাতাম সাহল বিন মোহাম্মদ সাজেস্তানি মৃত্যুবরণ করেন। তিনি কোরান, হাদীস ও সাহিত্যে বিশেষ পান্ডিত্য অর্জন করতে সক্ষম হয়েছিলেন। চরিত্র গঠন ও পবিত্র কোরআন সম্পর্কে তিনি বেশ কয়েকটি বই লিখেছেন। তার বিখ্যাত একটি বইয়ের নাম আখলাকুল ইনসান।

৫১৬ হিজরীর এই দিনে ইরানের বিশিষ্ট লেখক ও সাহিত্যিক আবু মোহাম্মদ কাসেম বিন আলী বাসরি মৃত্যুবরণ করেন। তিনি ইবনে হারিরি নামেই বেশি পরিচিত। তার লেখা বইগুলো সহজপাঠ্য। নানাবিধ উদাহরণ টেনে তিনি লেখাকে বোধগম্য ও যুক্তিপূর্ণ করে তুলতে পারদর্শী ছিলেন। তার একটি বিখ্যাত বইয়ের নাম মাকোমাত বা নেতৃবৃন্দ।

কবি আহসান হাবিবের মৃত্যু
খ্যাতনামা কবি, সাহিত্যিক, সাংবাদিক আহসান হাবিবের আজ মৃত্যুবার্ষিকী। ১৯৮৫ সালের এই দিনে ঢাকায় তিনি শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন। সামাজিক বাস্তবতা, মধ্যবিত্ত মানুষের সংগ্রামী চেতনা শিল্পসম্মতভাবে পরিস্ফুটিত হয়েছে তার লেখায়। রাত্রীশেষ, ছায়াহরিণ, সারাদুপুর, মেঘ বলে চৈত্রে যাবো, প্রেমের কবিতা ইত্যাদি তার সাড়া জাগানো কাব্যগ্রন্থ। অরণ্যে নীলিমা, জাফরাণী রং পায়রা, বৃষ্টিপড়ে টাপুর-টুপুর ছাড়াও তার বহু উপন্যাস ও শিশু সাহিত্য রয়েছে। ১৯৬১ সালে বাংলা একাডেমী পুরস্কার এবং ১৯৭৮ সালে একুশে পদক পেয়েছিলেন তিনি। আহসান হাবিবের জন্ম ১৯১৭ সালের ২ জানুয়ারি পিরোজপুরে।
অর্থাভাবে উচ্চশিক্ষা নিতে পারেননি আহসান হাবিব । বরিশাল বিএম কলেজে আইএ তে অধ্যয়ন করেন। এরপর কর্ম খোজে চলে যান কলকাতায় । সেখানে এরপর কর্ম খোজে চলে যান কলকাতায় । সেখানে কাজ করেন দৈনিক তকবীর পত্রিকায় । মাসিক সওগাতের ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক ছিলেন কয়েক বছর। আকাশবাণী কলকাতাতেও কাজ করেছেন। পাকিস্তান সষ্টির পর চলে আসেন ঢাকায়। দৈনিক আজাদ, মাসিক মোহাম্মদী, দৈনিক কৃষক, দৈনিক ইত্তেহাদসহ বিভিন্ন পত্রিকায় প্রায় এক দশক সাংবাদিকতা করেছেন। ১৯৬৪ তে আসেন দৈনিক পাকিস্তানে। প্রায় দু’দশক ছিলেন দৈনিক পাকিস্তান (পরে দৈনিক বাংলা)-এর সাহিত্য পাতার সম্পাদক, পঞ্চাশ ও ষাটের দশকে পাকিস্তানের নীতি ওঁ আদর্শের সমর্থক ছিলেন তিনি। ১৯৬৭ তে পাকিস্তান বেতার ও টিভিতে রবীন্দ্র সঙ্গীত প্রচার বন্ধের সিদ্ধান্তে সমর্থন দিয়েছেন। ৭১-এ পাকিস্তানের অখ-তার পক্ষে বিবৃতিও দিয়েছিলেন। ৮০এর দশকে সামরিক শাসনের বিরোধী আন্দোলনের সঙ্গে একাত্মতা প্রকাশ করেছেন। বুদ্ধিজীবীদের সামরিক শাসন বিরোধী আন্দোলনে তার ছিলো ব্যাপক ভূমিকা।

বায়েজীদ বোস্তামী (রা:)-এর ইন্তেকাল (৮৭৪)
লা পলাতা (বর্তমান আর্জেন্টিনা), উরুগুয়ে, প্যারাগুয়ে এবং বলিভিয়ার অংশ বিশেষ স্পেনের কাছ থেকে স্বাধীনতা ঘোষণা (১৮১৬)
কবি কালিদাস রায়ের জন্ম (১৮৮৯)
জার্মানির ভার্সাই চুক্তি অনুমোদন (১৯১৯)
সোভিয়েত ইউনিয়নের পসকভ অঞ্চলে জার্মান নাৎসী বাহিনীর দখল কায়েম (১৯৪১)
শ্যামদেশের রাজা আনন্দ মাইদল আততায়ীর হাতে নিহত (১৯৪৬)
নিউক্লিয়াস অস্ত্রপ্রতিযোগিতার বিরুদ্ধে রাসেল আইনস্টাইনের ইশতেহার প্রকাশ (১৯৫৫)
মরক্কোর বাদশা হোসেনের জন্মদিন অনুষ্ঠানে হামলা। একশ লোক নিহত (১৯৭১)
বাহামার স্বাধীনতা লাভ (১৯৭৩)

আর্জেন্টিনায় ৬০ বছরের মধ্যে প্রথম বেসামরিক প্রেসিডেন্ট হিসেবে কার্লোস মেনেসের শপথ গ্রহণ (১৯৮৯)
মেক্সিকোতে দীর্ঘস্থায়ী (৫৮ সেকেন্ড) সূর্যগ্রহণ। ২০৩২ সালের আগে এতো দীর্ঘ সূর্যগ্রহণ হবে না বলে ধারণা (১৯৯১)
বরিস ইয়েলৎসিন পুনরায় প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হওয়ায় রাশিয়ার পুনরায় চেচনিয়া আক্রমণ (১৯৯৬)
শিরোপা নির্ধারণী ম্যাচে হলিফিল্ডের কানে কামড় দেয়ায় মাইক টাইসনের বক্সিং লাইসেন্স বাতিল। ৩০ লাখ ডলার জরিমানা (১৯৯৭)
আফ্রিকান ইউনিয়ন (এইউ) প্রতিষ্ঠিত (২০০২)

পাঠকের মন্তব্য: (পাঠকের কোন মন্তব্যের জন্য কর্তৃপক্ষ কোন ক্রমে দায়ী নয়)