ব্রেকিং নিউজ
বাংলা

আপডেট সেপ্টেম্বর ১০, ২০১৯

ঢাকা রবিবার, ৮ আশ্বিন, ১৪২৬ , শরৎকাল, ২৩ মুহাররম, ১৪৪১

খুলনা, সড়ক সংবাদ উদ্বোধনের আগেই সড়ক ও গাইড ওয়ালে ফাটল!

উদ্বোধনের আগেই সড়ক ও গাইড ওয়ালে ফাটল!

নিরাপদ নিউজ: শরীয়তপুর জেলার ডামুড্যা উপজেলার ধনই উচা ব্রিজ থেকে আমিন বাজার সড়ক নির্মাণের এক মাসের মাথায় ফাটলের সৃষ্টি হয়ে গাইড ওয়াল ভেঙে পড়েছে। ফলে এ সড়কে চলাচল ঝুঁকিপূর্ণ হয়ে উঠেছে। সড়কটির বিভিন্ন স্থানে ধস নেমে অধিকাংশ স্থান বিলীন হওয়ার অবস্থার সৃষ্টি হয়েছে।

এলজিইডি অফিস সূত্রে জানা যায়, ধনই বাজার-টু-আমিন বাজার প্রায় সাড়ে ৩ কিলোমিটার রাস্তা ২ কোটি ৫ লক্ষ ৭৫ হাজার ৮১ টাকা ব্যয়ে রাস্তাটি নির্মাণ করা হয়। এর মধ্যে ৫৩৯ মিটার রাস্তার পাশে খালে বাঁধ দেওয়ার প্লাইল ও ওয়াল নির্মাণের বরাদ্দ হয়।

পথচারী আক্তার মোল্লা ও ইয়াসিন আকন বলেন, কোরবানি ঈদের ৫ দিন আগে শেষ হয় রাস্তার কাজ। পাইলিং করার কথা থাকলে তা করা হয়নি। ফলে ঈদের পরপরই ভেঙে পড়ে এটি। বিভিন্ন জায়গা দিয়ে রাস্তার বিটুমিনও উঠে গিয়ে সৃষ্টি হচ্ছে ছোট ছোট গর্ত।

স্থানীয়দের অভিযোগ, নির্মাণে নিম্নমানের সামগ্রী ব্যবহার করায় উদ্বোধনের আগেই ধসে পড়েছে সড়ক। এছাড়া হেলে গেছে খালপাড়ে নির্মিত গাইড ওয়াল। রাস্তার বিভিন্ন স্থান দিয়ে উঠে গেছে পিচ। সৃষ্টি হয়েছে গর্ত। নির্মাণের সময়ই স্থানীয়রা ঠিকাদার প্রতিষ্ঠান ও এলজিইডিকে নিম্নমানের বিটুমিন ব্যবহারের বিষয়টি নজরে আসেন। কিন্তু এ বিষয়ে কোনো পদক্ষেপ নেননি তারা।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক অনেকেই বলেন, সাড়ে ৩ কিলোমিটার রাস্তা দুইভাবে ভাগ করে কাজ করা হয়। তারা এক অংশ আগে করেন। আরেকটি অংশ পরে করেন। বৃষ্টির মধ্যে কাজ করে ঠিকাদার প্রতিষ্ঠান। নিম্নমানের ইটের সুরকি ব্যবহার করা হয়। বিভিন্ন জায়গায় পাকা করে ওয়াল করার কথা থাকলেও তা করা হয়নি। বাঁশ ব্যবহার করা হয়েছে। বিশেষ করে আমিন বাজারের আগের অংশে যেখানে বাঁশ দিয়ে পাইলিং করা হয়েছে, সেই অংশ ভেঙে পড়ে গেছে। কাজ চলাকালীন রাস্তার বিভিন্ন জায়গা দিয়ে বিটুমিন উঠে গিয়েছিল। আর ৬ কিলোমিটার দূর থেকে তৈরি করে আনা হতো এই বিটুমিন।

স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তর (এলজিইডি) ডামুড্যা শাখার ভারপ্রাপ্ত প্রকৌশলী দশরত চক্রবতী বলেন, আমি ব্যপারটি দেখেছি। আমাদের এক্সচেঞ্জ স্যার দেখে গেছেন। দ্রুত জায়গাগুলো ঠিক করার জন্য ঠিকাদার প্রতিষ্ঠানকে বলা হয়েছে।

ডামুড্যা উপজেলা নির্বাহী অফিসার দিলরুবা শারমীন বলেন, সড়কের বিষয়টি আমি জানার পর প্রকৌশলীর মাধ্যমে ঠিকাদারকে আগামী ৭ দিনের মধ্যে ভাঙা স্থান দ্রুত মেরামত করার জন্য বলেছি।

পাঠকের মন্তব্য: (পাঠকের কোন মন্তব্যের জন্য কর্তৃপক্ষ কোন ক্রমে দায়ী নয়)