ব্রেকিং নিউজ
বাংলা

আপডেট ২ মিনিট ৩ সেকেন্ড

ঢাকা সোমবার, ৩ অগ্রহায়ণ, ১৪২৬ , হেমন্তকাল, ২০ রবিউল-আউয়াল, ১৪৪১

জাতীয় একজন লেখক কেন অন্যের প্রভাবে প্রভাবিত হয়েছেন: তথ্যমন্ত্রী

একজন লেখক কেন অন্যের প্রভাবে প্রভাবিত হয়েছেন: তথ্যমন্ত্রী

নিরাপদ নিউজ: একে খন্দকারের তার ভুলের জন্য জাতির কাছে ক্ষমা চেয়েছেন। কিন্তু একে খন্দকারের লেখা নিয়ে এখনও প্রশ্ন আছে বলে মন্তব্য করেছেন আওয়ামী লীগের প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক এবং তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ। আজ রোববার রাজধানীর ধানমন্ডিস্থ আওয়ামী লীগ সভানেত্রী শেখ হাসিনার রাজনৈতিক কার্যালয় প্রচার উপ-কমিটির সভা শেষে সাংবাদিকদের তিনি এ কথা বলেন।
তিনি বলেন, লেখক তার বক্তব্য যে কোন সময় প্রত্যাহার করতে পারে, ভুল স্বীকারও করতে পারে। সেটার জন্য লেখকের স্বাধীনতা আছে। তাকে ধন্যবাদ জানাই যে, তার উপলব্ধি হয়েছে, যে তিনি ভুল বলেছেন। তবে এ ক্ষেত্রে একটু দুর্বলতা থেকেই যায়। একজন লেখক কেন অন্যের প্রভাবে প্রভাবিত হয়েছেন। একটি ঐতিহাসিক সত্যকে তিনি কেন অন্যভাবে উপস্থাপন করেছিলেন, সে প্রশ্নটি থেকেই যায়। যাদের কারণে এ কে খন্দকার এমন ভুল করেছিলেন তাদের বিরুদ্ধে দলের পক্ষে থেকে কোন ব্যবস্থা নেওয়া হবে কিনা জানতে চাইলে তিনি বলেন, এ অভিযোগ অত্যন্ত গুরুতর।
তিনি আরও বলেন, ঈদের আগে প্রতিবছর বিএনপির পক্ষ থেকে গৎবাঁধা সমালোচনা করা হয়। আমরা সেটা দেখতে পাচ্ছি এবারো বিএনপি নেতৃবৃন্দ সেটা শুরু করে দিয়েছেন। আগের কাগজগুলো একটু খুলে দেখেন, দশ বছর আগেও তারা একই কথা বলেছেন। প্রতিবছরই একই কথা বলেন, যে মানুষ নির্বিঘ্নে বাড়িতে যেতে পারছে না। কিন্তু তাদের সময় কী ছিল, সেটি তারা বলে না।
তথ্যমন্ত্রী বলেন, আমাদের প্রধানমন্ত্রী বর্তমানে রাষ্ট্রীয় সফরে বিদেশে রয়েছেন। কিন্তু বিদেশে থাকলেও তিনি সার্বক্ষণিকভাবে দেশের সমস্ত বিষয়ের উপর নজর রাখছেন। তিনি সরকারী কর্মকর্তা ও মন্ত্রীদের সঙ্গে সার্বক্ষণিক যোগাযোগ রাখছেন এবং প্রয়োজনে নির্দেশনাও দিচ্ছেন। এছাড়া এবার মানুষ স্বস্তির সঙ্গে রোজাও রাখতে পারছে। দেশে নিত্যপণ্যের মূল্য বাড়েনি। কারণ রমজানের আগেই পর্যাপ্ত খাদ্যদ্রব্যের মজুদের ব্যবস্থা করেছিল। এ জন্য ব্যবসায়ীদের সঙ্গে আলাপ-আলোচনা করে, কেউ যাতে পণ্যের দাম না বাড়ায় সে দিকেও সরকার দৃষ্টি দিয়েছিল। একই সঙ্গে আপনারা দেখেছেন সরকার ভেজাল বিরোধী অভিযানও চালিয়েছে। যাতে রমজানে কেউ মানুষকে ভেজাল খাদ্যদ্রব্য না খাওয়ায়। এসময় ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রী মোস্তফা জব্বার উপস্থিত ছিলেন।

পাঠকের মন্তব্য: (পাঠকের কোন মন্তব্যের জন্য কর্তৃপক্ষ কোন ক্রমে দায়ী নয়)