ব্রেকিং নিউজ
বাংলা

আপডেট ১৯ মিনিট ৩৪ সেকেন্ড

ঢাকা বৃহস্পতিবার, ২৯ অগ্রহায়ণ, ১৪২৫ , হেমন্তকাল, ৫ রবিউস-সানি, ১৪৪০

বিনোদন এগিয়ে যাওয়ার প্রত্যয়ে রুহী

এগিয়ে যাওয়ার প্রত্যয়ে রুহী

এগিয়ে যাওয়ার প্রত্যয়ে রুহী

নিরাপদ নিউজ : নিজেকে সবসময় ভিন্নভাবে উপস্থাপন করতে ভালোবাসেন তিনি। প্রতিনিয়ত কাজের মধ্যে নতুনত্ব খোঁজা এবং ভিন্নধর্মী সব চরিত্রে কাজ করতে তিনি ভালোবাসেন। শোবিজের অনেক শাখায় তিনি কাজ করছেন। নাচ, অভিনয়, মডেলিং ও উপস্থাপনা করা- মিডিয়ার প্রায় সব শাখায় তিনি কাজ করছেন। ক্যারিয়ারের শুরু থেকে বেছে বেছে কাজ করার তিনি পক্ষ্যপাতী। তাই তো একটি কাজ এলেই তিনি সেটিতে রাজি হয়ে যান বিষয়টি তা নয়। চরিত্র, কাজের ধরণ এবং নিজের সাথে কাজটি কতটুকু মানানসই- সবকিছু বিবেচনা করে তবেই কাজটি করতে যান। পাঠক, বলছি নৃত্যশিল্পী, অভিনেত্রী ও মডেল নুসরাত জান্নাত রুহীর কথা। শোবিজে যাকে সবাই রুহী নামেই বেশি চিনেন।


রুহী ছোটবেলা থেকেই নাচের সঙ্গে সম্পৃক্ত। যেদিন স্কুলে ভর্তি হোন, সে বছরই নাচের স্কুলে তার মা ভর্তি করিয়ে দেন। সেই ছোট্টবেলা থেকেই তিনি বাফা, বাংলাদেশ শিশু একাডেমি, জাতীয় শিল্পকলা একাডেমিসহ দেশের প্রায় সব ইনস্টিটিউট থেকেই তিনি ক্ল্যাসিক্যাল নাচের উপর প্রশিক্ষণ নিয়েছেন। শান্ত- মরিয়ম বিশ্ববিদ্যালয় থেকে নাচের উপর তিনি মাস্টার্সও করেছেন। ফ্যাশন ডিজাইন- এও তিনি মাস্টার্স করেছেন। রুহী বুলবুল একাডেমী অব ফাইন আর্টস (বাফা) এ গত বারো বছর ধরে সিনিয়র নৃত্য শিক্ষক হিসেবে কর্মরত রয়েছেন। এছাড়াও তিনি ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশন এর অঞ্চল-৫ এর যাত্রাবাড়ি শাখায় সঙ্গীত স্কুলে টিচার এডমিন হিসেবে শিক্ষগতা করছেন। এছাড়াও জাতীয় ও আন্তর্জাতিক পর্যায়ে তিনি বেশকিছু অনুষ্ঠানে নিয়মিত অংশ গ্রহণ করে আসছেন।  শোবিজ মিডিয়ায় রুহী কাজ শুরু করেন ১৯৯৮ সালে। বিটিভি থেকে শুরু করে দেশের প্রায় সব ক‘টি টিভি চ্যানেলে তিনি অনুষ্ঠান করেছেন। সেই সময়ে তিনি বিজ্ঞাপন, মিউজিক ভিডিও ও নাটক-টেলিফিল্মেও কাজ করেছেন। মাঝে পড়াশুনার জন্য নিয়েছেন লম্বা একটি বিরতি। বিইউএফটি থেকে ফ্যাশন ডিজাইন ও শান্ত মরিয়াম থেকে মাস্টার্স করার ফলে তিনি মডেলিং এবং অভিনয় থেকে সরে আসেন। এছাড়াও নিজের স্বপ্নীল ললিতকলা একাডেমির ব্যস্ততা, নাচের উপর বিভিন্ন কোর্স করা সহ জাতীয় পর্যায়ে অনুষ্ঠান করার ফলে তিনি শোবিজে নিয়মিত কাজ করতে পারেননি। তবে ২০১২ সাল থেকে রুহী আবার নিয়মিত কাজ শুরু করেছেন। অভিনয়, মডেলিং এবং উপস্থাপনা করছেন নিয়মিত। আর তো রয়েছেই নাচের অনুষ্ঠানের ব্যস্ততাও।


বর্তমানে রুহী নাটকে অভিনয় নিয়েই বেশি ব্যস্ত। কিছুদিন আগে অভিনেতা আফরান নিশোর সঙ্গে জুটি বেঁধে একটি নাটকে অভিনয় করেন। সৈয়দ ইকবালের রচনায় ‘আকাশ বদল’ শিরোনামের নাটকটি মাছরাঙা টিভিতে প্রচার হওয়ার পর থেকেই শোবিজে বেশ আলোচনায় আসেন রুহী। এছাড়াও আরটিভিতে তার অভিনীত ও তপু খানের পরিচালনায় ‘সময়ের গল্প’, আজাদ আল মামুনের পরিচালনায় ‘শিমুল তুলার প্রেম’, তানভীর হোসেন প্রবালের পরিচালনায় এটিএন বাংলায় ‘গল্পটি ভ-এর’ সহ বেশিকিছু নাটক প্রচার হয়। অতি সম্প্রতি তিনি অভিনেতা সজল, জোভান, ইরফান সাজ্জাদ, নিলয় ও চিত্রনায়ক ইমন সহ অনেক জনপ্রিয় অভিনেতার সঙ্গে জুটি বেঁধে অভিনয় করেছেন। এসব নাটকগুলোর মধ্যে রয়েছে- হারুন রুশোর পরিচালনায় ‘দহনকালের ভালোবাসা’ ও ‘এবং বিচ্ছেদ এবং ভালোবাসা’, অনিক বিশ্বাসের পরিচালনায় ‘দ্রোহ’, কাজী সাইফ আহমেদের ‘অদ্ভুত মায়াজাল’, লুনা খানের ‘ভালোবাসার অন্য অনুভূতি’সহ আরো অনেকগুলো নাটক। একে একে আরো অভিনয় করেছেন ‘প্রেম অথবা অপ্রেমের গল্প’, ‘রাইটার’, ‘অন্য বসন্ত’, ‘মুখোশ’, ‘গানিতিক হিসাবের গল্প’সহ আরো অনেকগুলো নাটক। এগুলোর প্রত্যেকটিতে রুহীকে ভিন্ন ভিন্ন সব চরিত্রে অভিনয় করতে দেখা যাবে। সামনে আরো বেশকিছু খন্ড নাটক ও টেলিফিল্মের শুটিং করবেন এই গ্ল্যামার কন্যা। যেগুলোর কো-আর্টিস্ট হচ্ছেন অপূর্ব, সজল, নিশো, সিয়ামসহ জনপ্রিয় সব অভিনেতা। এসব নাটক সামনের ঈদে প্রচার হবে বলে জানান তিনি। মিউজিক ভিডিওতেও মডেল হয়েছেন খুলনার মেয়ে রুহী। শিল্পী মিলন মাহমুদ-এর ‘প্রিয়জন’, এফএ সুমন- এর ‘মন শুধু তুই তুই’ করে সহ বেশ কয়েকটি গানে তাকে মডেল হিসেবে দেখা গেছে। নাচের মেয়ে হওয়াতে মিউজিক ভিডিও করতে বেশ স্বাচ্ছন্দ্যবোধ করেন। তবে মিউজিক ভিডিওর কনসেপ্ট এবং গানটি অবশ্যই ভালো হওয়া চাই।


রুহী নিয়মিত বিজ্ঞাপন ও স্টিল ফটোগ্রাফিতেও কাজ করছেন। দেশের সবক’টি জাতীয় দৈনিকের লাইফস্টাইল পেইজে কাভার ফটোশ্যুট করেছেন তিনি। আরো করেছেন ফ্যাশন হাউজগুলোর ফটোশ্যুটও। যারমধ্যে রয়েছে রঙ বাংলাদেশ, ইন-টোটো, সাজমন, জ্যোতি শাড়ি হাউজ, বিশ্বরঙ, প্রেমস কালেকশন সহ আরো অনেকগুলো ফ্যাশন হাউজ। বিজ্ঞাপনেও কাজ করেছেন রুহী। আরএফএল ডিসপো, ম্যাক্স ব্যাগসহ বেশকিছু বিজ্ঞাপনে কাজ করেছেন।
উপস্থাপনাতেও রয়েছে রুহীর দক্ষতা। মাই টিভির মিউজিক ড্রিম, কী লিখি তোমায়সহ কিছু অনুষ্ঠান উপস্থাপনা করেছেন। রুহী স্বপ্ন দেখেন শোবিজে এমনকিছু কাজ করতে যেসব কাজ দিয়ে তিনি মানুষের হৃদয়ে ঠাঁই করে নিতে পারেন। তিনি বলেন, ‘আমি প্রতিনিয়ত নুতন নতুন গল্পে এবং নতুন সব কনসেপ্টে কাজ করতে বেশি ভালোবাসি। তবে আমি এমন সব কাজ করে যেতে চাই যেনো মানুষ আমাকে সারাজীবন মনে রাখেন। সেজন্যই ছুঁটে চলছি।’ রুহী স্বপ্ন দেখেন বড় পর্দায় অভিনয় করারও। তবে একেবারে কমার্শিয়াল ছবি নয়, আর্ট ঘরানার ছবিতে ভিন্নধর্মী চরিত্রে কাজ করতে তার বেশ আগ্রহ রয়েছে। এরইমধ্যে বেশ কয়েকটি সিনেমার প্রস্তাব তিনি পেয়েছেন। তবে গল্প এবং ইউনিট পছন্দ না হওয়ায় কাজ করেননি তিনি।  ব্যক্তি জীবনে রুহী বেশ ঘুরতে পছন্দ করেন। একটু অবসর পেলেই ছুঁটে যান কোনো নদীর পাড়ে কিংবা সবুজে ঘেরাও কোনো জায়গায়। সমুদ্র তার খুব প্রিয়। তাই তো সময় পেলেই ছুঁটে যান সমুদ্রের কাছে। রুহীর বাবা একজন চলচ্চিত্র পরিচালক, প্রযোজক ও মঞ্চ নাটক নির্দেশক ছিলেন। তার বাবার চলচ্চিত্র প্রযোজনা হাউজের নাম ছিলো এসআরএস প্রোডাকশনস। তার মা হেলেন বদরুদ্দীন একজন লেখক। এবারও বইমেলায় একটি বই প্রকাশিত হয়েছে। এই ভাই এক বোনের মধ্যে রুহী ছোট। বড় ভাই আবু হাসিব রণ কাজী ফার্মস এর একজন উর্ধ্বত কর্মকর্তা।

পাঠকের মন্তব্য: (পাঠকের কোন মন্তব্যের জন্য কর্তৃপক্ষ কোন ক্রমে দায়ী নয়)