সংবাদ শিরোনাম

১৪ই ডিসেম্বর, ২০১৭ ইং

00:00:00 শুক্রবার, ১লা পৌষ, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ , শীতকাল, ২৭শে রবিউল-আউয়াল, ১৪৩৯ হিজরী
সড়ক সংবাদ কলাপাড়ায় আরসিসি গার্ডার ব্রীজের সংযোগ সড়কের কাজ শেষ না হওয়ায় দূর্ভোগ চরমে

কলাপাড়ায় আরসিসি গার্ডার ব্রীজের সংযোগ সড়কের কাজ শেষ না হওয়ায় দূর্ভোগ চরমে

পোস্ট করেছেন: Nsc Sohag | প্রকাশিত হয়েছে: ডিসেম্বর ৩, ২০১৭ , ৭:৩৪ অপরাহ্ণ | বিভাগ: সড়ক সংবাদ

কলাপাড়ায় আরসিসি গার্ডার ব্রীজের সংযোগ সড়কের কাজ শেষ না হওয়ায় দূর্ভোগ চরমে

কলাপাড়া,নিরাপদ নিউজ: পটুয়াখালীর কলাপাড়া উপজেলার লালুয়া ইউনিয়নের মুক্তিযোদ্ধা বাজারের আরসিসি গার্ডার ব্রীজটির নির্মান কাজ সম্পন্ন হওয়ার পর দীর্ঘদিনেও সংযোগ সড়কের কাজ শেষ না হওয়ায় স্থানীয়রা এর সুফল থেকে বঞ্চিত রয়েছেন। ফলে বাধ্য হয়ে স্কুল-কলেজের ছাত্র-ছাত্রী সহ শত শত মানুষ প্রতিদিন ঝূঁকিপূর্ন লোহার সেতু ব্যবহার করছেন। এতে প্রায়শ:ই দুর্ঘটনার কবলে পড়ছেন তারা। জানা যায়, প্রাকৃতিক দুর্যোগ প্রবন রামনাবাদ নদী পাড়ের লালুয়া ইউনিয়নের সাধারন মানুষের যোগাযোগ সুবিধার জন্য স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তর লালুয়া মুক্তিযোদ্ধা বাজার এলাকার নদীতে আরসিসি গার্ডার ব্রীজ নির্মানের উদ্দোগ নেয়। এ লক্ষ্যে এলজিইডি ২০১৫-২০১৬ অর্থ বছরে ৩ কোটি ৯ লক্ষ ৩৪ হাজার ৭৬২.৪৭ টাকা বরাদ্দে লালুয়া-নীলগঞ্জ ভায়া মিঠাগঞ্জ ইউপি সড়কে ৭২ মিটার দৈর্ঘ্য এবং ফুটপথ সহ ৭.৩২ মিটার প্রস্থ আরসিসি গার্ডার ব্রীজের দরপত্র আহবান করে। এতে পটুয়াখালীর মেসার্স মহিউদ্দীন আহমেদ ঠিকাদার নিযুক্তি লাভ করেন। ২১ জানুয়ারী ২০১৬ ব্রীজ নির্মানের কার্যাদেশ দেয় এলজিইডি। এরপর মেসার্স মহিউদ্দীন আহমেদ ব্রীজের কাজ শুরু করেন। পরবর্তীতে ব্রীজের সংযোগ সড়কে কার্পেটিং সড়কের পরিবর্তে হেরিংবন্ড সড়ক অন্তর্ভূক্ত করায় বরাদ্দ কিছুটা কমে এসে দাড়ায় ৩ কোটি ৪ লক্ষ ১৯ হাজার ৬৫২ টাকা। কিন্তু ঠিকাদারী ওই প্রতিষ্ঠানটি গার্ডার ব্রীজের কাজ শেষ করার পর দীর্ঘ দিনেও সংযোগ সড়কের কাজ শেষ না করায় স্থানীয়রা গার্ডার ব্রীজটির সুফল থেকে বঞ্চিত রয়েছেন। এদিকে মুক্তিযোদ্ধা বাজারের গার্ডার ব্রীজটি ব্যবহার অনুপযোগী থাকায় সাধারন মানুষ বাধ্য হয়ে পুরনো সেই ঝূঁকিপূর্ন আয়রন ব্রীজ ব্যবহার করছেন। ফলে শিশু, বৃদ্ধ, স্কুল কলেজের ছাত্র-ছাত্রী, ব্যবসায়ী সহ সাধারন মানুষের ভোগান্তির যেন শেষ নেই। এক সপ্তাহ পূর্বে বুড়োজালিয়া বাজারের মাছ ব্যবসায়ী মো: মাহাবুল হাওলাদার মাছ বোঝাই ভ্যান গাড়ি নিয়ে আয়রন ব্রীজ অতিক্রম করার সময় ঝূঁকিপূর্ন ওই আয়রন ব্রীজের কাঠের পাটাতন ভেঙ্গে নিচে পড়ে গিয়ে তার বুকের হাড় ভেঙ্গে যায়। প্রায়শ:ই ঘটছে এরকম দুর্ঘটনা। তারপরও এলজিইডির তাগিদ নেই সংযোগ সড়কের কাজ শেষ করার। কলাপাড়া এলজিইডি’র উপ-সহকারী প্রকৌশলী মো: দেলোয়ার জানান, ৩০ ডিসেম্বর ২০১৭ পর্যন্ত গার্ডার ব্রীজটির নির্মান কাজ শেষ করার সময় রয়েছে। এ সময়ের মধ্যে সংযোগ সড়কের কাজ শেষ করে এটি জনসাধারনরে জন্য খুলে দেয়া হবে।

Share on Facebook0Share on Google+0Tweet about this on TwitterShare on LinkedIn0Digg thisShare on Tumblr0Email this to someonePin on Pinterest0Print this page

comments

Bangla Converter | Career | About Us