ব্রেকিং নিউজ
বাংলা

আপডেট এপ্রিল ১৭, ২০১৭

ঢাকা রবিবার, ১০ আষাঢ়, ১৪২৫ , বর্ষাকাল, ৯ শাওয়াল, ১৪৩৯

বরিশাল, সড়ক সংবাদ কাঁঠালিয়ায় ব্রীজ ভেঙ্গে যাওয়ায় হাসপাতালে যেতে রোগীদের দুর্ভোগ চরমে

কাঁঠালিয়ায় ব্রীজ ভেঙ্গে যাওয়ায় হাসপাতালে যেতে রোগীদের দুর্ভোগ চরমে

কাঁঠালিয়ায় ব্রীজ ভেঙ্গে যাওয়ায় হাসপাতালে যেতে রোগীদের দুর্ভোগ চরমে

মোঃ আমিনুল ইসলাম, ১৭ এপ্রিল, ২০১৭, নিরাপদনিউজ : ঝালকাঠির কাঁঠলিয়া উপজেলার আমুয়া খালের আয়রন ব্রীজটি ভেঙ্গে যাওয়ার প্রায় ৯ মাসেও পূনঃ নির্মিত হয়নি। ফলে আমুয়া হাসপাতালে সেবা নিতে আসা উপজেলার ১০টি গ্রামের রোগীরা চরম দুর্ভোগে পরেছেন। ভোগান্তিতে রয়েছে স্কুল কলেজগামী শিক্ষার্থীসহ সাধারন মানুষ। ঝুঁকি নিয়ে নৌকায় পারাপার হতে হচ্ছে। ব্রীজ না থাকায় এ্যাম্বুলেন্সে রোগী আনা-নেয়া সম্ভব হচ্ছে না। রাত বেশি হলে নৌকাও পাওয়া যায়না। শিঘ্রই ব্রীজটি নির্মানের আশ্বাস দিয়েছেন স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান। ঝালকাঠির কাঁঠালিয়ার ৫০ শয্যা বিশিষ্ট আমুয়া হাসপাতালে যাতায়াতের প্রধান সড়কে অবস্থিত আমুয়া খালের উপর অবস্থিত আয়রন ব্রীজটির মাঝের অংশ প্রায় ৯ মাস আগে বালুভর্তি কার্গোর ধাক্কায় ভেঙ্গে যায়। এর পর থেকে হাসপাতাল এবং খালের দুই পারের স্কুল কলেজ ও হাট বাজারে যেতে হচ্ছে নৌকায় পার হয়ে। কখনো কখনো নৌকা উল্টেগিয়ে ঘটছে দুর্ঘটনা। বন্ধ হয়ে গেছে এ্যাম্বুলেন্সে রোগী আনা-নেয়া। একটু বেশি রাত হলে নৌকাও ঘাটে থাকে না। তখন রোগী নিয়ে হাসপাতালে যাওয়া দুরূহ হয়ে পরে। শিশু ও বয়স্কদের পক্ষে নৌকায় পারাপারও কষ্টকর। দীর্ঘদিন ধরে হাজার হাজার মানুষকে এ বিড়ম্বনার শিকার হতে হচ্ছে। এ ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান বর্তমান চেয়াম্যানের দিকে অভিযোগের আঙ্গুল তুলে জানান, তার কারনেই ব্রীজ মেরামত বিলম্বিত হচ্ছে। তবে বর্তমান চেয়ারম্যার এ অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, ব্রীজটি নির্মানের জন্য সংশ্লিষ্ট দপ্তরে কাগজ পত্র পাঠানো হয়েছে। কাঁঠালিয়া এলজিইডির প্রকৌশলী অমল চন্দ্র রায় জানান, আমার কাগজ পত্র উপরের অফিসে পাঠিয়েছি আশা করি খুব শিগ্রই এ ব্রীজ এর কাজ শুরু হবে।

পাঠকের মন্তব্য: (পাঠকের কোন মন্তব্যের জন্য কর্তৃপক্ষ কোন ক্রমে দায়ী নয়)