আপডেট ১৯ মিনিট ১ সেকেন্ড

ঢাকা শনিবার, ৩১ ভাদ্র, ১৪২৬ , শরৎকাল, ১৫ মুহাররম, ১৪৪১

দুর্ঘটনা সংবাদ কানে হেডফোন: রেলপথ ধরে হেঁটে চলার সময় ট্রেনের ধাক্কায় খণ্ড-বিখণ্ড হয়ে গেলো রতন!

কানে হেডফোন: রেলপথ ধরে হেঁটে চলার সময় ট্রেনের ধাক্কায় খণ্ড-বিখণ্ড হয়ে গেলো রতন!

নিরাপদ নিউজ: কানে হেডফোন দিয়ে রেলপথ ধরে হেঁটে গান শোনার সময় পেছন দিক থেকে ডেমু ট্রেন এসে খণ্ড-বিখণ্ড করে দিল রতনের (৩০) দেহ। রতন চাঁদপুর পল্লীবিদ্যুৎ সমিতি ১ এর শাহরাস্তি জোনাল অফিসের গাড়িচালক। শনিবার চাঁদপুর লাকসাম রেলপথের হাজীগঞ্জের এনায়েতপুর নামক স্থানে এ মর্মান্তিক দুর্ঘটনা ঘটে। রতন পাবনা সদরের ১২ নম্বর ওয়ার্ড চকপৈলানপুর (নয়নামিত) গ্রামের মো. কালু মিয়ার ছেলে।

রতনের সহকর্মীরা জানান, শনিবার রতন গাড়ি থেকে সহকর্মীদের কাজে নামিয়ে পাশের রেললাইন ধরে হাঁটছিলেন। হঠাৎ ডেমু ট্রেন হর্ন দেওয়ায় অন্যদের কানে সেই শব্দ গেলেও হেডফোনের কারণে সহকর্মীদের চিৎকার আর ট্রেনের হর্ন শুনতে পাননি রতন। এ সময় পেছন দিক থেকে ডেমু এসে রতনকে কয়েক টুকরা করে ফেলে।

পল্লী বিদ্যুতের এজিএম (প্রশাসন) জহুরুল ইসলাম জানান, আজ (শনিবার) এনায়েতপুর নামক স্থানে রেললাইনসংলগ্ন এলাকায় পল্লী বিদ্যুতের মেইনটেন্সের কাজ চলছিল। মেইনটেন্সের মালামাল নিয়ে সকালে ড্রাইভার রতন ওই এলাকায় যায়। সে কানে হেডফোন দিয়ে মোবাইলে গান শুনতে শুনতে রেললাইনের ওপর দিয়ে হাঁটছিল।  হাঁটতে গিয়ে রতন কাজের স্থান থেকে ৩০-৪০ গজ দূরে চলে যায়। ওই সময় ডেমু ট্রেন এসে যায়। ট্রেনের হুইসেল ও সহকর্মীদের চিৎকারেও তিনি রেললাইন থেকে সরে না যাওয়ায় ট্রেনের নিচে কাটা পড়ে ঘটনাস্থলেই মৃত্যু বরণ করেন।

এ বিষয়ে হাজীগঞ্জ থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. আলমগীর হোসেন রনি জানান, খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে আমাদের ফোর্স পাঠানো এবং চাঁদপুর রেলওয়ে থানায় অবহিত করা হয়েছে।

পাঠকের মন্তব্য: (পাঠকের কোন মন্তব্যের জন্য কর্তৃপক্ষ কোন ক্রমে দায়ী নয়)