আপডেট ৪১ মিনিট ৩৯ সেকেন্ড

ঢাকা শুক্রবার, ৫ শ্রাবণ, ১৪২৬ , বর্ষাকাল, ১৫ জিলক্বদ, ১৪৪০

লিড নিউজ, শোক সংবাদ কিংবদন্তী ফিরোজ এম হাসান আর নেই

কিংবদন্তী ফিরোজ এম হাসান আর নেই

নিরাপদ নিউজ: বাংলাদেশের স্বনামধন্য ফটো সাংবাদিক বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পের গোড়া পত্তনকারী এবং প্রথম চলচ্চিত্র মুখ ও মুখোশের সর্বশেষ ইতিহাস, বাংলাদেশ চলচ্চিত্র সাংবাদিক সমিতি (বাচসাস) এর সদস্য, বাংলাদেশ সিনে স্টিল ফটোগ্রাফার্স এসোসিয়েশনের প্রতিষ্ঠাতা, অসংখ্য গুণী ফটো সাংবাদিক তৈরী করার কারিগর, বহু শিল্পী সৃষ্টির কারিগর, চলচ্চিত্র প্রযোজক ও পরিবেশক, বাংলাদেশের চলচ্চিত্রের ইতিহাসের সর্বশেষ সাক্ষি (যাকে চলচ্চিত্রের এনসাইকোপ্লেডিয়া বলা হয়), সকলের প্রিয়জন প্রিয় মুখ নিসচা কেন্দ্রীয় কমিটির সাধারণ সদস্য ফিরোজ এম হাসান (ফিরোজ মামা) আর নেই (ইন্নালিল্লাহে ওয়া ইন্না ইলাইহে রাজিউন)। আজ সন্ধ্যা ৭ টায় উত্তরাস্থ বাসায় তিনি ইন্তেকাল করেন। মৃত্যুকালে তাঁর বয়স হয়েছিলো ৮৩বছর।

জানা যায়, আজ সন্ধ্যয় নিজ বিল্ডিংয়ের ২য় তলায় ছোট বোনের বাসায় নাস্তা করে সেখান থেকে নিজের ফ্ল্যাট ৬তলায় চলে যান এবং সেখানে পরিবারের সকলের সাথে কথা বলে তার রুমে চলে যান। এর অল্প কিছক্ষন পর পর রুম থেকে তিনি বেরিয়ে আসেন এবং সাথে সাথে মেঝেতে ঢলে পড়ে যান। তৎক্ষনাৎ তাকে পার্শ্ববর্তী ক্লিনিকে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত ডা. পরীক্ষা নিরীক্ষা করে জানান তিনি আর নেই। তাঁর মৃত্যুর মধ্য দিয়ে একটি ইতিহাসের মৃত্যু হলো।

উল্লেখ্য, তিনি টাঙ্গাঈল জেলায় জন্মগ্রহণ করেন। তিনি ৩ ছেলের বাবা। ২ ছেলে কানাডায় বসবাস করেন ও ছোট ছেলে তার সঙ্গে বাসায় বসবাস করতেন। তার স্ত্রী একজন অবসরপ্রাপ্ত স্কুল শিক্ষিকা।

আজকের ববিতা, সুচন্দা, চম্পা, রোজিনস, ফারুক, ইলিয়াস কাঞ্চনসহ চলচ্চিত্রের প্রায় প্রত্যেক শিল্পী ফিরোজ এম হাসানের হাতের স্পর্শ পেয়েছেন। তাঁর মৃত্যু সংবাদে সমস্ত সাংবাদিক মহল, চলচ্চিত্র অঙ্গনসহ সর্বত্র শোকের ছায়া নেমে আসে।

ফিরোজ এম হাসানের মৃত্যুতে নিসচা চেয়ারম্যান ইলিয়াস কাঞ্চন শোক প্রকাশ করে বলেছেন, এই মৃত্যু আমাদের স্তব্ধ করে দিয়েছে। মামার মৃত্যুর মধ্য দিয়ে যে শূন্যতা তৈরী হবে, যে ইতিহাস ঢাকা পড়ে যাবে তা কখনোই পুরণ হবার মতো নয়। আজকের আমি ইলিয়াস কাঞ্চন এর পেছনে তাঁরও অনেক অবদান রয়েছে। বাংলাদেশের চলচ্চিত্রের প্রবীণ স্থির চিত্রগ্রাহক ফিরোজ এম হাসান সম্পর্কে ইলিয়াস কাঞ্চন আরো বলেন, তিনি আমার সাথে দীর্ঘদিন যাবৎ নিরাপদ সড়ক চাই সংগঠনেও কাজ করেছেন। সাম্প্রতিককালে আমাদের নিসচার প্রায় সকল পোগ্রামে তিনি আসতেন ছবিগুলো তিনি নিজেই তুলতেন। মানুষ হিসেবে তিনি অত্যন্ত সৎ ও ভালো একজন মানুষ ছিলেন। যখনই তিনি আমার কাকরাইল অফিসের পাশ দিয়ে কোথাও কাজে যেতেন উনি আমার অফিসের ভেতর আসতেনই। সবার খোঁজ খবর নিতেন। নিসচা চেয়ারম্যান ইলিয়াস কাঞ্চন তাঁর বিদেহী আত্মার মাগফিরাত কামনা করেন এবং শোকসন্তপ্ত পরিবারের প্রতি গভীর শোক ও সমবেদনা জানান।

নিসচার যুগ্ম মহাসচিব ও বাচসাসের সাবেক সিনিয়র সহ-সভাপতি লিটন এরশাদ ফিরোজ এম হাসানের আত্মার মাগফেরাত কামনা করেন ও মরহুমার পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানিয়ে বলেন, আমার সাংবাদিকতার শুরু থেকে আমি তাঁর অনেক সহযোগীতা পেয়েছি। এই মানুষটির মৃত্যুতে আমরা শোকাহত। আমরা ব্যাথিত। সকলের নিকট দোয়া প্রার্থনা করছি। সকলে তার বিদেহী আত্মার জন্য দোয়া করবেন।

উল্লেখ্য, গত বছর ১৬ অক্টোবরে বিএফডিসির জহির রায়হান কালারল্যাব ভিআইপি প্রজেকশন হলে ফিরোজ এম হাসানের ৮২তম জন্মদিন উপলক্ষে ‘সিনে ম্যাগাজিন ছায়ালোক’ এক সংবর্ধনা অনুষ্ঠানের আয়োজন করেছিল। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন সাবেক তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু। এ অনুষ্ঠানে ফিরোজ এম হাসানের তোলা সত্তর আশির দশকের বিভিন্ন ছবির স্টিল প্রদর্শন করা হয়।

পাঠকের মন্তব্য: (পাঠকের কোন মন্তব্যের জন্য কর্তৃপক্ষ কোন ক্রমে দায়ী নয়)