আপডেট মার্চ ১১, ২০১৭

ঢাকা সোমবার, ১৪ জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৫ , গ্রীষ্মকাল, ১২ রমযান, ১৪৩৯

ভ্রমন কেরালার কোভালম অসাধারণ বীচ

কেরালার কোভালম অসাধারণ বীচ

কোভালমে সমূদ্র বীচে নাসিম রুমি

কোভালমে সমূদ্র বীচে নাসিম রুমি

নাসিম রুমি, ১১ মার্চ ২০১৭, নিরাপদ নিউজ : সমুদ্রর হাতছানি উপেক্ষা করতে পারেন এমন বাঙালি খুব কমই আছেন। অত্যান্ত সুন্দরতম কেরালার কোভালম বীচ। চারিধারে পাহাড় পরিবেশ-কলা, পেঁপে আর নারিকেল বীথিকায় ছাওয়া রূপালি বালুকাবেলা শান্তি আর নির্জনতা যাঁরা পছন্দ করবে, তাঁদের অতি প্রিয় এই বেলাভূমি ছায়া সুনিবিড় এই বেলাভূমির প্রশস্তি আজ বিশ্বজুড়ে। সানবাথেও মনোরম কোভালম। সমুদ্র এখানে শান্ত, আকাশ তার ধনুকাকার-রূপ পেয়েছে। মোট তিনটি বীচ রয়েছে কোভালমে, সমুদ্রবীচ, লাইট হাউস বীচ, আর হাওয়া বীচ। এর মধ্যে সমুদ্র বীচটি বেশ নির্জন। কিন্তু হাওয়ার আর লাইট হাউজ বীচ দুটো বেশ জমজমাট। পর্যটকদের মনোরঞ্জনের জন্য হাজার ব্যবস্থা রয়েছে এখানে।

কোভালম সৈকতে লাইট হাউস প্রান্তে

লাইট হাউজ বিচের দক্ষিণপ্রান্তে কুরুমক্কল টিলার উপরে রয়েছে এক সুউচ্চ বাতিঘর। এর উপর থেকে সমুদ্রর অসাধারণ দৃশ্য দেখা যায়। বিকাল ৩টা থেকে ৫টায় লাইট হাউসটি চড়বার অনুমতি রয়েছে। হাওয়া বীচটি খাঁড়ি আকারের। বীচের ধারে জেলেদের বসতি। প্রত্যুষে গভীর সমুদ্র থেকে মাছ ধরে জেলে নৌকার প্রত্যাগমন আকর্ষন বাড়ায় হাওয়া বীচের। কোভারমের সূর্যাস্থ ভোলবার নয়। আমি কোভালম বীচে দুইবার ভ্রমণ করেছি সর্বপ্রথম ২০০৮ সালে দ্বিতীয়বার ভ্রমণ করেছি ২০১৩ সালে। কেরালাতে ভ্রমণে গেলে যদি কোভালম বীচে ভ্রমণ করা না হয় তাহলে ভ্রমণ অসম্পর্ণ রয়ে যাবে।

নির্জন হাওয়া বিচ

কারণ সত্যি কেরালার কোভালম এক কথায় অপূর্ব আমার কাছে গোয়া কোন-কোন বীচের চেয়ে কেরালার কোভালম বীচ অনেক ভাল ও সুন্দর। পর্যটক বন্ধুরা  কেরালার কোভালম বীচ ভ্রমণ করে বাড়তি আনন্দ পাবে এবং মনটা উৎফুল্ল থাকবে। কোলকাতা থেকে বিমানে এবং ট্রেনে ত্রিবন্দ্রম যাওয়া যায়।
কোভালম সৈকতে অসংখ্য হোটেল রয়েছে। ভাড়া ১৫০০ থেকে ৩০০০ রুপি।

সাংবাদিক, লেখক ও পর্যটক

পাঠকের মন্তব্য: (পাঠকের কোন মন্তব্যের জন্য কর্তৃপক্ষ কোন ক্রমে দায়ী নয়)