সংবাদ শিরোনাম

২১শে সেপ্টেম্বর, ২০১৭ ইং

00:00:00 শুক্রবার, ৭ই আশ্বিন, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ , শরৎকাল, ২রা মুহাররম, ১৪৩৯ হিজরী
স্বাস্থ্য কথা কোলন ক্যান্সারের বিভিন্ন স্টেজ দ্বারা যা বুঝা যায়

কোলন ক্যান্সারের বিভিন্ন স্টেজ দ্বারা যা বুঝা যায়

পোস্ট করেছেন: Nsc Sohag | প্রকাশিত হয়েছে: এপ্রিল ২০, ২০১৭ , ১২:৪৩ অপরাহ্ণ | বিভাগ: স্বাস্থ্য কথা

কোলন ক্যান্সারের বিভিন্ন স্টেজ দ্বারা যা বুঝা যায়

নিরাপদ নিউজ : একবার কোলন ক্যান্সার শনাক্ত হওয়ার পর পরবর্তী পদক্ষেপ নির্ধারণ করা হয় ক্যান্সারের স্টেজের উপর যা ক্যান্সার কোষ কতটুকু ছড়িয়েছে তার উপর নির্ভর করে। চিকিৎসক আপনার ক্যান্সারের স্টেজের বিষয়টি বিবেচনা করে চিকিৎসা নির্ধারণ করবেন। কোলন ক্যান্সারের ৪ টি স্টেজ থাকে। কোলনের গঠন এবং শরীরের অন্যান্য অংশে এটা কতটুকু ছড়িয়েছে তার উপর নির্ভর করে শ্রেণীবিন্যাস করা হয় কোলন ক্যান্সারকে। কোলন ক্যান্সারের  বিভিন্ন স্টেজ দ্বারা কী বুঝা যায় সে বিষয়ে জেনে নিই চলুন।

 

১. এটি কোলন ক্যান্সারের প্রাথমিক অবস্থা যেখানে ক্যান্সার কোষ কোলনের মধ্যেই সীমাবদ্ধ আছে তা নির্দেশ করে। এই পর্যায়ে ক্যান্সার কোষ কোলনের প্রাচীরে (যা মিউকোসা বা সাব মিউকোসা নামে পরিচিত) বৃদ্ধি পেতে থাকে।

 

২. এই পর্যায়ে ক্যান্সার কোষ কোলন থেকে বের হওয়া শুরু করে এবং কোলনের আশেপাশের অঞ্চলে ছড়িয়ে পড়তে থাকে। ক্যান্সার কোষ কতটুকু ছড়িয়েছে তার উপর নির্ভর করে স্টেজ ২ কে ২ এ, ২ বি ও ২ সি নামক ৩ টি শ্রেণীতে বিভক্ত করা হয়।  ২ এ স্তরে ক্যান্সার কোষ কোলনের বাহিরের স্তরে পৌঁছে যায়,  ২ বি স্তরে ক্যান্সার কোষ কোলনের বাহিরের ঝিল্লিতে ছড়িয়ে পড়ে যা  উদরের অন্যান্য অঙ্গকে ধরে রাখে, ২ সি স্তরে ক্যান্সার কোষ কোলনের কাছাকাছি অঙ্গে পৌঁছে যায়।

 

৩. এই পর্যায়ে ক্যান্সার কোষ কোলনের নিকটবর্তী লিম্ফ নোডে ছড়িয়ে পড়ে। কতটি লিম্ফ নোড আক্রান্ত হয়েছে তার উপর নির্ভর করে একেও ৩ টি স্তরে বিভক্ত করা হয় যেমন- ৩ এ, ৩ বি ও ৩ সি। যখন কোলনের কাছাকাছি লিম্ফ নোড আক্রান্ত হয় তখন তাকে ৩ এ পর্যায় বলে। যদি ২-৩ টি লিম্ফ নোড আক্রান্ত হয় তখন তাকে ৩ বি পর্যায় বলে। যদি ৪ টির বেশি লিম্ফ নোড আক্রান্ত হয় তখন তাকে ৩ সি পর্যায় বলে ধরে নেয়া হয়।

 

৪. কোলন ক্যান্সারের শেষ পর্যায় হচ্ছে এটি। এই পর্যায়ে ক্যান্সার কোষ শরীরের অন্যান্য অঙ্গে ছড়িয়ে পড়ে। এই পর্যায়ে ক্যান্সার কোষগুলো যকৃৎ ও ফুসফুসে মেটাস্ট্যাসিস পদ্ধতিতে ছড়িয়ে পড়ে। যখন কোলনের নিকটবর্তী অঞ্চল আক্রান্ত হয় তখন তাকে ৪ এ পর্যায় বলে। যখন ক্যান্সার কোষ এক বা একের অধিক দূরবর্তী  অঙ্গে ছড়িয়ে পড়ে তখন তাকে ৪ বি পর্যায় বলে।

 

কোলন  ক্যান্সারের স্টেজের উপর নির্ভর করে এর নিরাময় প্রক্রিয়া নির্ধারণ করা হয়। সাধারণত স্টেজ ১ ও স্টেজ ৩ কোলন ক্যান্সার সার্জারির মাধ্যমে নিরাময় করা যায়। স্টেজ ৩ এর শেষ পর্যায় (এটা হতে পারে ৩ বি বা ৩ সি) সার্জারির পাশাপাশি কেমোথেরাপি ও নেয়ার প্রয়োজন হতে পারে। স্টেজ ৪ এর ক্ষেত্রে কেমোথেরাপি বা নির্দিষ্ট কোন থেরাপি নেয়ার প্রয়োজন হয়।

 

ভালো হওয়ার সম্ভাবনা কতটুকু?

কোলন ক্যান্সারে আক্রান্তদের বাঁচার সম্ভাবনা নির্ভর করে কোলন ক্যান্সারের স্টেজ, শ্রেণী, বয়স এবং ব্যক্তির সার্বিক স্বাস্থ্যের উপর। ক্যান্সারকে শ্রেণীবিন্যস্ত করা আসলে তেমন কোন বিষয় নয় অণুবীক্ষণ যন্ত্রের নীচে কোষটিকে কতটা স্বাস্থ্যবান দেখাচ্ছে তাই নির্ধারণ করে। এর মাত্রা যত বেশি হবে কোষটিকে তত অস্বাভাবিক দেখাবে এবং এর আরোগ্যলাভের সম্ভাবনা তত কম থাকবে। নিম্ন মাত্রার ক্যান্সার কোষ আস্তে আস্তে ছড়ায় এবং ভালো হওয়ার সম্ভাবনা থাকে। সাধারণভাবে বলা যায় যে রোগীদের বেঁচে থাকার সম্ভাবনা ৫ বছরের জন্য ৫০ শতাংশ। স্টেজ ১ কোলন ক্যান্সারের  ক্ষেত্রে ৫ বছরের জন্য বেঁচে থাকার সম্ভাবনা ৯০ শতাংশ, স্টেজ ২ তে ৮০-৮৩ শতাংশ, স্টেজ ৩ তে ৬০ শতাংশ এবং স্টেজ ৪ এর ক্ষেত্রে ১১ শতাংশ। বেঁচে থাকার সম্ভাবনা কমতে থাকে কোলন ক্যান্সারের স্টেজ ১ থেকে স্টেজ ৪ এ।

Share on Facebook0Share on Google+0Tweet about this on TwitterShare on LinkedIn1Digg thisShare on Tumblr0Email this to someonePin on Pinterest0Print this page

comments

Bangla Converter | Career | About Us