আপডেট ২৪ মিনিট ৫০ সেকেন্ড

ঢাকা সোমবার, ১২ চৈত্র, ১৪২৫ , বসন্তকাল, ১৮ রজব, ১৪৪০

ক্রিকেট খাওয়াজার সেঞ্চুরিতে উড়ে গেলো ভারত

খাওয়াজার সেঞ্চুরিতে উড়ে গেলো ভারত

নিরাপদ নিউজ:  উসমান খাওয়াজার দারুণ সেঞ্চুরির পর সিরিজ নির্ধারণী ম্যাচে ঘুরে দাঁড়িয়েছিল ভারত। লক্ষ্যটা ছিল নাগালেই। তবে স্বাগতিকদের কেউ খাওয়াজার মতো টানতে পারলেন না দলকে। বোলারদের সম্মিলিত চেষ্টায় সিরিজ জিতে নিল অস্ট্রেলিয়া।

পঞ্চম ওয়ানডেতে ৩৫ রানে জিতেছে অ্যারন ফিঞ্চের দল। শেষ তিন ম্যাচ জিতে ৩-২ ব্যবধানে সিরিজ ঘরে তুলেছে বিশ্ব চ্যাম্পিয়নরা। পঞ্চমবারের মতো ওয়ানডেতে কোনো দল ২-০ ব্যবধানে পিছিয়ে থাকার পরও সিরিজ জিতল। ২০০৯ সালের পর ভারতের মাটিতে ওয়ানডে সিরিজ জিতল অস্ট্রেলিয়া।

দিল্লীর ফিরোজ শাহ কোটলায় বুধবার টস জিতে ব্যাট করতে নেমে ফিঞ্চের সঙ্গে ৭৬ রানের জুটিতে অস্ট্রেলিয়াকে ভালো শুরু এনে দেন খাওয়াজা। আগের ম্যাচের সেঞ্চুরিয়ান পিটার হ্যান্ডসকমের সঙ্গে ১০১ রানের আরেকটি চমৎকার জুটিতে দলকে গড়ে দেন বড় সংগ্রহের ভিত।

বিসিসিআই ক্যারিয়ার ও সিরিজে নিজের দ্বিতীয় সেঞ্চুরিতে পৌঁছানোর পরপরই খাওয়াজা আউট হলে ভাঙে শতরানের জুটি। বাঁহাতি এই ওপেনার ১০৬ বলে ১০ চার ও দুই ছক্কায় ফিরেন ১০০ রান করে।

খাওয়াজার বিদায়ের পর তেমন কোনো জুটি গড়তে পারেনি সফরকারীরা। ভালো ভিত পেলেও প্রত্যাশিত ঝড় তুলতে পারেননি পরের ব্যাটসম্যানরা। শেষ ১৭ ওভারে মাত্র ৯৭ রান যোগ করতে পারে অস্ট্রেলিয়া।

হ্যান্ডসকম ৬০ বলে চারটি চারে করেন ৫২। পরের কোনো ব্যাটসম্যান যেতে পারেননি ত্রিশ পর্যন্ত।

ভারতের পেসার ভুবনেশ্বর কুমার ৩ উইকেট নেন ৪৮ রানে। দুটি করে উইকেট নেন রবীন্দ্র জাদেজা ও মোহাম্মদ শামি।

বিসিসিআই রান তাড়ায় শুরুটা ভালো হয়নি ভারতের। দুই অঙ্ক ছুঁয়ে ফিরে যান আগের ম্যাচের সেঞ্চুরিয়ান শিখর ধাওয়ান। অফ স্টাম্পের বেশ বাইরের বল তাড়া করতে গিয়ে কট বিহাইন্ড হয়ে বিদায় নেন সবচেয়ে বড় ব্যাটিং ভরসা বিরাট কোহলি। রিশাব পান্ত, বিজয় শঙ্কর ভালো শুরুটা বড় করতে পারেননি।

এক প্রান্ত আগলে রেখে ভারতকে এগিয়ে নেওয়া রোহিত শর্মার প্রতিরোধ ভাঙেন অ্যাডাম জাম্পা। সেই ওভারেই এই লেগ স্পিনার তুলে নেন জাদেজার উইকেট। ৮৯ বলে চারটি চারে ৫৬ রান করে ফিরেন রোহিত।

কেদার যাদবের সঙ্গে ভুবনেশ্বরের ৯১ রানের জুটিতে জেগে ওঠে ভারতের আশা। তবে শেষরক্ষা করতে পারেনি স্বাগতিকরা। তিন চার ও দুই ছক্কায় ৫৪ বলে ৪৬ রান করা ভুবনেশ্বরকে ফিরিয়ে ভারতের প্রতিরোধ ভাঙেন প্যাট কামিন্স। ৫৭ বলে ৪৪ রান করা কেদারকে থামান জাই রিচার্ডসন। এরপর বেশিদূর এগোয়নি স্বাগতিকদের ইনিংস।

লেগ স্পিনার জ্যাম্পা ৪৬ রানে নেন ৩ উইকেট। দুটি করে উইকেট নেন মার্কাস স্টয়নিস, কামিন্স ও জাই রিচার্ডসন।

সেঞ্চুরিতে দলকে পথ দেখানো খাওয়াজা জেতেন ম্যাচ সেরার পুরস্কার। দুটি করে সেঞ্চুরি ও ফিফটির জন্য সিরিজ সেরার পুরস্কারও জেতেন বাঁহাতি এই ওপেনার।

সংক্ষিপ্ত স্কোর:

অস্ট্রেলিয়া: ২৭২/৯ (খাওয়াজা ১০০, ফিঞ্চ ২৭, হ্যান্ডসকম ৫২, ম্যাক্সওয়েল ১, স্টয়নিস ২০, টার্নার ২০, কেয়ারি ৩, রিচার্ডসন ২৯, কামিন্স ১৫, লায়ন ১*; ভুবনেশ্বর ৩/৪৮, শামি ২/৫৭, বুমরাহ ০/৩৯, কুলদীপ ১/৭৪, জাদেচা ২/৪৫, কেদার ০/৮)

ভারত: ৫০ ওভারে ২৩৭ (রোহিত ৫৬, ধাওয়ান ১২, কোহলি ২০, পান্ত ১৬, শঙ্কর ১৬, কেদার ৪৪, জাদেজা ০, ভুবনেশ্বর ৪৬, শামি ৩, কুলদীপ ৯, বুমরাহ ১; কামিন্স ২/৩৮, রিচার্ডসন ২/৪৮, স্টয়নিস ২/৩১, লায়ন ১/৩৪, জ্যাম্পা ৩/৪৬, ম্যাক্সওয়েল ০/৩৪)

ফল:  অস্ট্রেলিয়া ৩৫ রানে জয়ী

সিরিজ: ৫ ম্যাচের সিরিজে ৩-২ ব্যবধানে জয়ী অস্ট্রেলিয়া

ম্যান অব দা ম্যাচ: উসমান খাওয়াজা

ম্যান অব দা সিরিজ: উসমান খাওয়াজা

পাঠকের মন্তব্য: (পাঠকের কোন মন্তব্যের জন্য কর্তৃপক্ষ কোন ক্রমে দায়ী নয়)