ব্রেকিং নিউজ
বাংলা

আপডেট ২৫ সেকেন্ড

ঢাকা মঙ্গলবার, ১১ই বৈশাখ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ , গ্রীষ্মকাল, ৯ই শাবান, ১৪৩৯ হিজরী

রাজনীতি, লিড নিউজ খালেদা জিয়ার নিরাপত্তা নিয়ে প্রশ্ন : নেতাকর্মীরা শঙ্কিত

খালেদা জিয়ার নিরাপত্তা নিয়ে প্রশ্ন : নেতাকর্মীরা শঙ্কিত

বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া – ফাইল ফটো

১৯ এপ্রিল ২০১৭, নিরাপদ নিউজ : সাবেক প্রধানমন্ত্রী বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার নিরাপত্তা নিয়ে এবার দলের মধ্যেই প্রশ্ন উঠেছে। তার ব্যাক্তিগত নিরাপত্তা বাহিনীর গাফিলতি আর গুলশান কার্যালয়ের এক কর্মকর্তার ষড়যন্ত্রের সন্দেহে নেতাকর্মীরা আরো শঙ্কিত হয়ে উঠছে।

খোজ নিয়ে জানা গেছে, দেশের তিনবারের প্রধানমন্ত্রী আর বিএনপির মতো এত বড় রাজনৈতিক দলের প্রধান খালেদা জিয়ার এমন ভঙ্গুর নিরাপত্তা ব্যবস্থা নিয়ে ইতিমধ্যে বিভিন্ন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ঝড় তুলেছেন দলটির তৃণমূল নেতাকর্মীরা।

গত শুক্রবার পহেলা বৈশাখ বাংলা নববর্ষ উপলক্ষে নয়া পল্টনের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে এক সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। দলের অন্যতম অঙ্গ সংগঠন জাতীয়তাবাদী সামাজিক সাংস্কৃতিক সংস্থা জাসাসের আয়োজন করে। ওই অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন খালেদা জিয়া।

বিকাল ৩টায় অনুষ্ঠান শুরু হলেও খালেদা জিয়া সাড়ে চারটার দিকে অনুষ্ঠানস্থলে উপস্থিত হন। এসময়ে অন্যান্য দিনের মতো খালেদা জিয়ার চারপার্শে তার নিরাপত্তা বেষ্টনী দেখা যায়নি। যার কারনে নয়াপল্টন কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে খালেদা জিয়ার গাড়ি আসার পর তাকে বেষ্টনী করে নিরাপত্তা দিয়ে অনুষ্ঠানের মঞ্চ পর্যন্ত যেতে তেমন কোন নিরাপত্তা ব্যবস্থাই ছিলো না। আর এই সূযোগে অনেক অপরিচিত লোকদেরকেও তার যাতায়াতের রাস্তার পার্শে দেখা গেছে। নেতাকর্মী বেষ্টিত ওই প্রবেশ পথে অনেক ধাক্কাধাক্কিও ঘটনা ঘটতেও দেখা গেছে।

একাধিক নেতা জানান, ওই দিন খালেদা জিয়ার নিরাপত্তার জন্য আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর কাছে আবেদন করা হয়েছিলো। কিন্তু পর্যাপ্ত নিরাপত্তা নেই অযুহাতে খালেদা জিয়ার ব্যক্তিগত নিরাপত্তা বাহিনী সদস্যদের কার্যালয়ের আশেপাশের ভবনের ছাদে ডিউটি করতে নির্দেশনা দেন গুলশান কার্যালয়ের ওই প্রভাবসালী কর্মকর্তা। যার কারনে বিএনপি চেয়ারপার্সনের ব্যক্তিগত নিরাপত্তা ব্যবস্থায় অনেকটা শিথিল হয়ে পড়ে। আর এই সূযোগে ওইদিন খালেদা জিয়ার গাড়ি থেকে মঞ্চে ওঠার রাস্তায় একজন অপরিচিত ও সন্দেহভাজন যুবক তার খুব কাছাকাছি চলে আসেন। যা দলের নেতাকর্মীরা ফিরিয়ে দেন। আর এই ধরনের একটি ভিডিও ক্লিপ বিভিন্ন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে চলে আসে।

ক্ষোভ প্রকাশ করে একাধিক নেতা জানায়, গুলশান কার্যালয়ের ওই প্রভাবশালী কর্মকর্তা সরকারের এজেন্ডা বাস্তবায়ন করতে চাই। তবে ম্যাডাম খালেদা জিয়া ও জিয়া পরিবারের কোন ক্ষতি হলে ওই কর্মকর্তা রেহাই পাবেন না।

পাঠকের মন্তব্য: (পাঠকের কোন মন্তব্যের জন্য কর্তৃপক্ষ কোন ক্রমে দায়ী নয়)