আপডেট ৮ মিনিট ১১ সেকেন্ড

ঢাকা বুধবার, ৩ আশ্বিন, ১৪২৬ , শরৎকাল, ১৮ মুহাররম, ১৪৪১

লিড নিউজ, শিল্পনগরী সংবাদ খুলনার গাইকুড় মধ্যডাঙ্গায় বিএনপি নেতাকে গুলি করে হত্যা

খুলনার গাইকুড় মধ্যডাঙ্গায় বিএনপি নেতাকে গুলি করে হত্যা

সে শিক্ষা প্রকৌশল অধিদপ্তর ও খুলনা সিটি করপোরেশনের একজন ঠিকাদার ও ব্যবসায়ী। তিনি নগরীর দৌলতপুর থানার ৩ নং ওয়ার্ড বিএনপির শিল্প বিষয়ক সম্পাদক ।

সে শিক্ষা প্রকৌশল অধিদপ্তর ও খুলনা সিটি করপোরেশনের একজন ঠিকাদার ও ব্যবসায়ী। তিনি নগরীর দৌলতপুর থানার ৩ নং ওয়ার্ড বিএনপির শিল্প বিষয়ক সম্পাদক ।

০৯ এপ্রিল, ২০১৬, নিরাপদনিউজ : খুলনা মহানগরীর আড়ংঘাটা থানার গাইকুড় মধ্যডাঙ্গা এলাকায় নিজের বাড়ির সামনে গুলি করে এক বিএনপি নেতাকে হত্যা করা হয়েছে। শুক্রবার রাত পৌনে ১১টার দিকে এই ঘটনা ঘটে। নিহত বিএনপি নেতা এসএম আলমগীর ওরফে আলম (৫২) মধ্যডাঙ্গা এলাকার মরহুম আকবর আলী শেখের ছেলে। সে শিক্ষা প্রকৌশল অধিদপ্তর ও খুলনা সিটি করপোরেশনের একজন ঠিকাদার ও ব্যবসায়ী। তিনি নগরীর দৌলতপুর থানার ৩ নং ওয়ার্ড বিএনপির শিল্প বিষয়ক সম্পাদক ।

আড়ংঘাটা থানা ওসি মো. নাসিম খান জানান, শুক্রবার রাত পৌনে ১১টার দিকে ঠিকাদার আলম মধ্যডাঙ্গা এলাকায় তার বাড়িতে প্রবেশ করার মুহূর্তে সেখানে আগে থেকে ওঁত পেতে থাকা সন্ত্রাসীরা তাকে গুলি করে। ঘটনাস্থলেই তার মৃত্যু হয়। মৃত্যু নিশ্চিত জেনে আলমের বাড়ির পাশের বাগানের ভিতর দিয়ে দৃর্বৃত্তরা পালিয়ে যায়।

খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে সুরতহাল প্রতিবেদন তৈরীর পর আলমের লাশ উদ্ধার করে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়। এ হত্যাকা-ে সন্ত্রাসীরা ৩/৪ জন অংশ নেয়। তিনি আরও জানান, পারিবারিক শত্রুত থেকে প্রতিপক্ষরা তাকে হত্যা করেছে বলে প্রাথমিকভাবে ধারণা করছে পুলিশ। শনিবার সকালে নিহত পরিবারের পক্ষ মামলা দেয়া হচ্ছে।

ঠিকাদারীসহ আলম দৌলতপুরের মুহাসিন স্কুলের মোড়ে রড, সিমেন্টের ব্যবসাও করতেন। তার স্ত্রী ও দুই মেয়ে ও এক ছেলে রয়েছে। খুলনা নগর বিএনপির সভাপতি ও সাবেক এমপি নজরুল ইসলাম জানান, নিহত আলমগীর নগরীর দৌলতপুর থানার ৩ নং ওয়ার্ডের সম্পাদক মন্ডলীর সদস্য ছিলেন। তার হত্যার প্রতিবাদ ও হত্যাকারীদের গ্রেফতারের দাবিতে খুলনা বিএনপি আন্দোলনের কর্মসূচি ঘোষণা করবে।

পাঠকের মন্তব্য: (পাঠকের কোন মন্তব্যের জন্য কর্তৃপক্ষ কোন ক্রমে দায়ী নয়)