ব্রেকিং নিউজ
বাংলা

আপডেট ১১ মিনিট ৪৫ সেকেন্ড

ঢাকা বৃহস্পতিবার, ২ কার্তিক, ১৪২৬ , হেমন্তকাল, ১৭ সফর, ১৪৪১

লাইফস্টাইল চট্টগ্রাম পার্বত্যাঞ্চলে এখন জনপ্রিয় সবজি বাঁশ কোড়ল

চট্টগ্রাম পার্বত্যাঞ্চলে এখন জনপ্রিয় সবজি বাঁশ কোড়ল

বাঁশ কোড়ল

বাঁশ কোড়ল

নিরাপদ নিউজ,শফিক আহমেদ সাজীব : পাহাড়ে বসবাসরত আদিবাসীদের প্রিয় একটি সবজি বাঁশ কোড়ল। সবজি হিসেবে খাওয়া হলেও এটি মাংস দিয়েও রান্না করা হয়। পাহাড়ের আদিবাসীরা বিভিন্নভাবে এটি সবজি হিসেবে খেয়ে থাকে। স্বাদে অতুলনীয় এই সবজিটি শুধু আদিবাসীদের জন্য নয় দেশের সব মানুষের এখন প্রিয় খাবার। মে থেকে জুলাই এটি পাওয়া যায়। অন্যান্য সবজির চেয়ে এটি সিদ্ধ হতে সময় নেয়। রান্নার আগে শুধু পানি দিয়ে সিদ্ধ করা হয়। সিদ্ধ হওয়ার পর পানি সেকে রান্না করা হয়।
পার্বত্যাঞ্চলে কয়েক প্রজাতির বাঁশ জন্মায়। এগুলো স্থানীয়ভাবে মলিবাঁশ, ফারুয়া বাশ, ডুলু বাঁশ, মিটিংগ্যা বাঁশ, বাজ্জে বাঁশ, কালিছুরি বাঁশ নামে পরিচিত। মুলত বাঁশ কচি অংশকে বলা হয় বাঁশ কোড়ল। চাকমারা একে বলে বাচ্চুরি। মারমারা বলে মহ্ই। ত্রিপুরা বলে মেওয়া।

বাঁশ কোড়ল

বাঁশ কোড়ল

বৈশাখে বৃষ্টির পর যখন মাটি নরম হয়ে উঠে তখন বাঁশ কোড়ল মাটি ফুড়ে গজিয়ে উঠতে শুরু করে। বাঁশ গজিয়ে উঠার ৫-৬ ইঞ্চি হতেই খাওয়ার উপযোগী হয়ে উঠে। বাঁশের জাত অনুযায়ী বাঁশ কোড়লের স্বাদও আলাদা আলাদা হয়। মলি বাঁশের কোড়ল সবচেয়ে স্বাদে অতুলনীয়। মানুষের কাছে কদর বেশী হওয়ায় বাজারে এটির দামও অন্যদের চেয়ে একটু বেশী থাকে।
বর্ষা শুরু হওয়ার সাথে সাথে বাঁশ কোড়ল বাজারে আসে। সবার আগে মিটিংগ্যা বাঁশের কোড়ল আসে বাজারে। বাজারে প্রথম আসায় একচেটিয়া বাজার দখল করে নেয় এই মিটিংগ্যা বাঁশের কোড়ল। জুন, জুলাই, আগষ্টের বাঁশ কোড়লের ভরা মৌসুম। এসময় পাওয়া যায় মলি বাঁশের কোড়ল। এসময় পার্বত্যাঞ্চলে বেড়াতে আসা পর্যটকদের প্রধান আকর্ষণ থাকে বাঁশ কোড়ল। এসময় বাঁশ কোড়ল বিক্রি করে অনেকে সাবলম্বী হয়। বাজারে ছোট ছোট থুরুং নিয়ে বাঁশ কোড়লের পসরা বসায় আদিবাসী নারীরা।
এক সময় পাহাড়ে বাঁশ কোড়লের মৌসুমে এটির ভরপুর থাকলেও ৫-৬ বছর আগে পার্বত্য চট্টগ্রামে প্রাকৃতিক ভাবে বাঁশের মোড়ক ধরায় কমে এসেছে বাঁশবন। ফলে বাঁশ কোড়লও চাহিদা মত বাজারে আসছে না। এখন বাঁশ উৎপাদনের স্বার্থে জুন-জুলাই- আগষ্ট মাসে বাঁশ আহরণ বন্ধ রাখতে হচ্ছে বন বিভাগ। তবে ব্যাক্তি মালিকানাধীন বাঁশ বাগান এর আওতার বাইরে রাখা হয়।

পাঠকের মন্তব্য: (পাঠকের কোন মন্তব্যের জন্য কর্তৃপক্ষ কোন ক্রমে দায়ী নয়)