আপডেট জানুয়ারি ১০, ২০১৯

ঢাকা মঙ্গলবার, ৫ আষাঢ়, ১৪২৬ , বর্ষাকাল, ১৪ শাওয়াল, ১৪৪০

ফুটবল, লিড নিউজ চেলসিতে যাচ্ছেন হিগুয়েইন!

চেলসিতে যাচ্ছেন হিগুয়েইন!

নিরাপদনিউজ : তাহলে সাবেক কোচ মরিসিও সারির সঙ্গে পুর্নমিলনীই হচ্ছে গঞ্জালো হিগুয়েইনের? গণমাধ্যমের খবর অন্তত সে রকমই। এসি মিলান ছেড়ে চেলসিতে যোগ দিতে যাচ্ছেন আর্জেন্টাইন ফরোয়ার্ড। স্পেনের জনপ্রিয় ক্রীড়া দৈনিক মার্কার খবর, চেলসির প্রস্তাব গ্রহণ করেছেন হিগুয়েইন। আগামী কয়েক ঘণ্টার মধ্যেই চেলসির সঙ্গে চুক্তিটা হয়ে যেতে পারে তার।

গুঞ্জনটা সত্যি হলে, স্টাম্পফোর্ড ব্রিজে সাবেক কোচ মরিসিও সারির সঙ্গে পুর্নমিলনী ঘটবে তার। চেলসির ইতালিয়ান কোচ সারির সঙ্গে হিগুয়েইনের সম্পর্কটা খুবই মধুর। গুরু-শিষ্য হলেও তাদের সম্পর্কটা বন্ধুর মতো। ইতালিয়ান ক্লাব নাপোলিতে সারির অধীনে একটা মৌসুম খেলেছেন হিগুয়েইন। সেই ২০১৫-২০১৬ মৌসুমটি হিগুয়েইনের ক্যারিয়ারের অন্যতম সেরা মৌসুম। সিরি আ’তে করেছিলেন ৩৬ গোল। সব মিলে মৌসুমে করেছিলেন ৩৮ গোল।

এরপরই তিনি নাপোলি ছেড়ে যোগ দেন জুভেন্টাসে। কোচ সারি আরও দুই মৌসুম নাপোলিতে কাটিয়ে গত জুলাইয়ে দায়িত্ব নিয়েছেন চেলসির। চেলসির দায়িত্ব নেওয়ার পর থেকেই হিগুয়েইনের দিকে হাত বাড়ান তিনি। কিন্তু গত গ্রীষ্মে লক্ষ্য পূরণ হয়নি। তবে হিগুয়েইনও জুভেন্টাসে থাকতে পারেননি। তারই সাবেক বন্ধু-সতীর্থ ক্রিস্তিয়ানো রোনালদো জুভেন্টাসে দেওয়ায় কপাল পুড়ে হিগুয়েইনের। রোনালদোর আগমনে জুভেন্টাসের একাদশে জায়গা পাবেন না ভেবে হিগুয়েইন ধার চুক্তিতে যোগ দেন এসি মিলানে।

মিলানের সঙ্গে ধার চুক্তিটা মৌসুমের শেষ পর্যন্ত। কিন্তু হিগুয়েইন সাবেক গুরু সারির আহ্বানে সারা দিয়ে চেলসিতে যোগ দিতে রাজি হয়েছেন। অবশ্য তার চুক্তি নিয়ে ছোট্ট একটা ঝামেলা আছে। মিলানে খেললেও তিনি মূলত জুভেন্টাসের চুক্তিবদ্ধ খেলোয়াড়। ফলে চেলসিকে চুক্তিটা করতে হবে জুভেন্টাসের সঙ্গেই। তবে চুক্তিতে সম্মতি লাগবে মিলানেরও। কারণ, মিলানের সঙ্গে তার ধার চুক্তির মেয়াদ এখনো শেষ হয়নি। ফলে তার ওপর মিলানেরও অধিকার আছে।

যাই হোক, চার পক্ষ (চেলসি, জুভেন্টাস, মিলান, হিগুয়েইন) মিলেই নাকি চুক্তির বিষয়ে ঐকমত্যে পৌঁছেছে। কথা-বার্তা নাকি এরই মধ্যে প্রায় পাকা হয়ে গেছে। মার্কা জানিয়েছে, আগামী কয়েক ঘণ্টা বা দিনের মধ্যে চুক্তিটাও হয়ে যাবে। দেখা যাক জল কোন দিকে গড়ায়।

পাঠকের মন্তব্য: (পাঠকের কোন মন্তব্যের জন্য কর্তৃপক্ষ কোন ক্রমে দায়ী নয়)