আপডেট জুন ১৯, ২০১৭

ঢাকা সোমবার, ১৪ জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৫ , গ্রীষ্মকাল, ১২ রমযান, ১৪৩৯

বহির্বিশ্ব ছয়জন মিলে ধর্ষণের পর স্কুলছাত্রীকে চলন্ত ট্রেন থেকে নিক্ষেপ!

ছয়জন মিলে ধর্ষণের পর স্কুলছাত্রীকে চলন্ত ট্রেন থেকে নিক্ষেপ!

ছয়জন মিলে ধর্ষণের পর স্কুলছাত্রীকে চলন্ত ট্রেন থেকে নিক্ষেপ!

১৯ জুন ২০১৭. নিরাপদ নিউজ : বান্ধবীর বাসায় যাওয়ার পথে দশম শ্রেণির ওই ছাত্রীকে অপহরণ করা হয়। স্থানীয় স্টেশন থেকে জোর করে তোলা হয় ট্রেনে। ছয়জন মিলে ধর্ষণের পর চলন্ত ট্রেন থেকে তাকে ছুড়ে ফেলা হয়।

ভারতের বিহারের পাটনা হাসপাতালে এখন জীবন-মৃত্যুর সন্ধিক্ষণে ১৬ বছর বয়সী ওই স্কুলছাত্রী। এ ঘটনায় এক কিশোরকে গ্রেফতার করা হয়েছে। খবর এনডিটিভি’র।

শুক্রবার সন্ধ্যায় বান্ধবীর বাসায় যাওয়ার পথে ওই ছাত্রীকে তুলে নিয়ে দক্ষিণ বিহারের লক্ষ্মীসরাই জেলাতে চলন্ত ট্রেনে গণধর্ষণ করা হয়। পরদিন সকালে তাকে রেললাইনের ট্র্যাকে অজ্ঞান অবস্থায় পাওয়া যায়। তখনো তার রক্তপাত হচ্ছিল এবং মারাত্মকভাবে আহত অবস্থায় পড়েছিল।

পরবর্তীতে ওই ছাত্রীকে সরকারি পাটনা মেডিকেল কলেজে নিয়ে যাওয়া হলে ছয় ঘণ্টা দেরিতে ভর্তি করা হয়। পরিবারের এ অভিযোগ স্বীকার করে চিকিৎসরা জানান, ওই সময় হাসপাতালে বেডের অভাব ছিল।

একটি চিকিৎসক বোর্ড ধর্ষণের বিষয়টি নিশ্চিত করেছে। গণধর্ষণের শিকার স্কুলছাত্রীর শারীরিক অবস্থা অবনতির দিকে বলে জানিয়েছে চিকিৎসকরা।

এদিকে স্থানীয় পুলিশের বিরুদ্ধে অভিযোগ তুলেছে ছাত্রীর পরিবার। তারা যখন রেললাইনে মেয়েকে খুঁজছিলেন, তখন নাকি পুলিশ জানায়, তাদের মেয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা চালিয়েছে। ট্রেন থেকে ছুড়ে ফেলা হয়েছে এমন অভিযোগ তুললে পুলিশ সেটা নাকচ করার চেষ্টা করে।

বিহারের মুখ্যমন্ত্রী নিতিশ কুমার জানান, ‘এটি একটি ঘৃণ্য অপরাধ। প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে এবং কোনো অভিযুক্তকেই ছাড় দেওয়া হবে না।’

ভারতে ধর্ষণ-গণধর্ষণ নিয়মিত ঘটনা। গত কয়েকমাসে উত্তর প্রদেশেই বেশ কয়েকটি চাঞ্চল্যকর ধর্ষণের ঘটনা ঘটে। কয়েক বছর আগে দিল্লিতে এক ডাক্তারি পড়ুয়া ছাত্রী চলন্ত বাসে গণধর্ষণের শিকার হন। তার ছেলেবন্ধুকে মেরে ফেলা হয় এবং তাকে চলন্ত বাস থেকে ছুড়ে ফেলা হয়। পরে ওই ছাত্রীও চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান।

পাঠকের মন্তব্য: (পাঠকের কোন মন্তব্যের জন্য কর্তৃপক্ষ কোন ক্রমে দায়ী নয়)