আপডেট ২২ সেকেন্ড

ঢাকা বুধবার, ৪ আশ্বিন, ১৪২৬ , শরৎকাল, ১৯ মুহাররম, ১৪৪১

বিনোদন জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারে ফিরে এলো ‘নৃত্য বিভাগ’

জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারে ফিরে এলো ‘নৃত্য বিভাগ’

নিরাপদ নিউজ: ২০১৬ সালে ‘জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার’-এ নৃত্য বিভাগের পুরস্কার নিয়ে বেশ বিতর্ক তৈরি হয়েছিল। জানা যায় ঐ বছর জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারে নৃত্য বিভাগে নৃত্য পরিচালক হিসেবে হাবিবের নাম আসে। কিন্তু তালিকায় নাম দেখে তিনি বিস্ময় প্রকাশ করে পুরস্কার নিতে অস্বীকৃতি জানান। তার যুক্তি ছিল যে গানের জন্য তাকে নির্বাচিত করা হয়েছে, সেই গানটির নৃত্য পরিচালনা তিনি করেন নি। নিয়ম মতে, মনোনয়নে তালিকায় দ্বিতীয় হিসেবে যার নাম থাকে তাকে এই পুরস্কার দেয়া হয়। সেখানেও মনোনীত ছিলেন হাবিব। কিন্তু তখন তাকে আর মনোনীত না করে হঠাৎই মন্ত্রণালয় থেকে ‘নৃত্য বিভাগ’ বাতিলের ঘোষণা দেওয়া হয়। একেবারে অপ্রস্তুত হয়ে পড়ে চলচ্চিত্র অঙ্গন। চলতে থাকে নানা চেষ্টা। অবশেষে অবশেষে এবারের পুরস্কারের তালিকায় আবার ফিরছে ‘নৃত্য বিভাগ’ এমনটাই আভাষ মিলেছে। ২০১৭ ও ২০১৮ সালের পুরস্কার তালিকায় আবার অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে শাখাটি। বিষয়টি নিশ্চিত হওয়া গেছে জুরি বোর্ডের একাধিক সদস্যদের কথায়। জুরি বোর্ডের গুরুত্বপূর্ণ সদস্য মুশফিকুর রহমান গুলজার বলেন, এবার দুই বছরের জন্য পুরস্কার প্রদান করা হবে। নৃত্য বিভাগের জন্যও আমরা যোগ্যদের বাছাই করেছি। অর্থাৎ এবার নৃত্য বিভাগ থাকছে।
উল্লেখ্য ২০১৬ সালে বিতর্কটি হয় ‘নিয়তি’ চলচ্চিত্রটিকে ঘিরে। জাজ মাল্টিমিডিয়া প্রযোজিত এ ছবির ‘ঢাকাই শাড়ি’ শিরোনামের গানের আসল নৃত্য পরিচালক হিসেবে কাজ করেন ভারতের জয়েশ প্রধান, এমনটাই জানান ছবির পরিচালক জাকির হোসেন রাজু। কিন্তু প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান জুরি বোর্ডে হাবিবের নাম দিয়েছিল। যে কারণে পুরস্কারের তালিকায় হাবিবের নাম আসে। কিন্তু হাবিবের অভিযোগের ভিত্তিতে ২০১৬ সালের জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারের তালিকা থেকে ‘সেরা নৃত্য পরিচালক’ বিভাগটি বাতিল করে তথ্য মন্ত্রণালয়। এবার সেই বিভাগটি আবার যুক্ত হলো।
নানা সূত্র থেকে জানা গেছে এবারের জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারের সম্ভাব্য পুরস্কারপ্রাপ্তদের সম্ভাব্য তালিকা ইতোমধ্যে পাঠিয়ে দেওয়া হয়েছে সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়ে। মন্ত্রিপরিষদ কমিটির অনুমোদন হলেই এটি ঘোষণা করা হবে। ঘোষণাটি চলতি মাসেই আসতে পারে। আর মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সময় পাওয়া গেলে আগামী অক্টোবরে আনুষ্ঠানিকভাবে ট্রফি তুলে দেওয়া হবে পুরস্কারপ্রাপ্তদের হাতে।

পাঠকের মন্তব্য: (পাঠকের কোন মন্তব্যের জন্য কর্তৃপক্ষ কোন ক্রমে দায়ী নয়)