ব্রেকিং নিউজ
বাংলা

আপডেট ১২ মিনিট ৪ সেকেন্ড

ঢাকা মঙ্গলবার, ১১ই বৈশাখ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ , গ্রীষ্মকাল, ৯ই শাবান, ১৪৩৯ হিজরী

টিভি প্রোগ্রাম টিভি অনুষ্ঠানসূচী আজ বৃহস্পতিবার ২০ এপ্রিল’২০১৭

টিভি অনুষ্ঠানসূচী আজ বৃহস্পতিবার ২০ এপ্রিল’২০১৭

এটিএন বাংলার অনুষ্ঠানসূচী
০৯টা ১৫মিঃ টক শো ‘কথামালা’ উপস্থাপনা- মুস্তাফা নূরউল ইসলাম, পরিচালনা- তাশিক আহমেদ।
১০টা এটিএন বাংলা সংবাদ
১০টা ৩০ মিঃ সরাসরি সম্প্রচারিত ইসলামী অনুষ্ঠান ‘আরএফএল কসমিক ডোর ইসলামী সওয়াল ও জবাব’ (২৮৬),
পরিচালনা- মুস্তাফিজার রহমান।
১১টা এটিএন বাংলার প্রতি ঘন্টার সংবাদ
১১টা ১৫মিঃ অর্থনীতি নিয়ে অনুষ্ঠান ‘এটিএন বিজনেস এন্ড ফাইন্যান্স’, পরিচালনা- ইসমাত জেরিন খান।
১২টা এটিএন বাংলার প্রতি ঘন্টার সংবাদ
১২টা ১০মিঃ মুক্তিপ্রাপ্ত ছায়াছবি নিয়ে অনুষ্ঠান ‘ফেয়ার এন্ড লাভলী শুভমুক্তি’, (৯৭), পরিচালনা- লায়লা বানু।
১২টা ৪৫ মিঃ বিশেষ নাটক ‘রাইফেল সবুজ’, রচনা- ফারুক হোসেন, পরিচালনা- সালাউদ্দিন লাভলু।
০১টা এটিএন বাংলার প্রতি ঘন্টার সংবাদ
০২টা এটিএন বাংলা সংবাদ
০২টা ২৫মিঃ বিটিভির সংবাদ
০৩টা ১০মিঃ ফেয়ার এন্ড লাভলী সিনেমা হলে পূর্ণদৈর্ঘ্য বাংলা ছায়াছবি ‘সুন্দরী বধু’ পরিচালনা- আমজাদ হোসেন।
০৪টা এটিএন বাংলা সংবাদ
০৭টা এটিএন বাংলা সংবাদ
০৮টা ফেয়ার এন্ড লাভলী নিবেদিত ধারাবাহিক নাটক ‘গ্যারাকলে মীরাক্কেল’ (পর্ব-৬৫),
রচনা ও পরিচালনা- হামেদ হাসান নোমান।
অভিনয়ে: তৌকীর আহমেদ, মীর সাব্বির, জেনী, লুৎফর রহমান জজ, মানস বন্দোপাধ্যায়, জয়রাজ।
০৮টা৪০মিঃ ধারাবাহিক নাটক ‘রেডিও জকি এবং কতিপয় গল্প’ (পর্ব-৩০), রচনা ও পরিচালনা- মুরাদ পারভেজ।
অভিনয়েঃ ঝুনা চৌধুরী, শম্পা রেজা, চিত্রলেখা গুহ, সোহানা সাবা, আহসান হাবিব নাসিম, ইরফান সাজ্জাদ, ইউসুফ রাসেল, সুমনা সোমা, খালেকুজ্জামান, রোকসানা হিরা, সুসমী আহসান প্রমুখ।
০৯টা ২০মিঃ ধারাবাহিক নাটক ‘বাবুই পাখীর বাসা’ (পর্ব-৭৩) রচনা: কাজী শহীদুল ইসলাম,
পরিচালনাঃ সকাল আহমেদ।
অভিনয়েঃ রচি, শহীদুজ্জামান সেলিম, মীর সাব্বির, নাদিয়া, শ্যামল মওলা, অর্ষা, শর্মিলী আহমেদ, অলিউল হক রুমী, আইরিন আফরোজ, হীরা প্রমূখ।
১০টা এটিএন বাংলা সংবাদ
১০টা ৫৫মিঃ জুই নিবেদিত টেলিফিল্ম, কো স্পন্সর- ক্যামব্রিয়ান এডুকেশন গ্র“প।
১২টা টক শো ‘ওয়ান ফার্মা অন্যদৃষ্টি’ উপস্থাপনা- শ্যামল দত্ত, পরিচালনা- নবুয়াত রহমান।
০১টা এটিএন বাংলা সংবাদ।
০১টা ১৫মিঃ প্রাণ চানাচুর নিবেদিত ছায়াছবির গান নিয়ে অনুষ্ঠান ‘সিনে মিউজিক’ (পর্ব-৬৫২)

[প্রতি ঘন্টার সংবাদ : সকাল ৭টা, ৮টা, ৯টা, ১১টা, দুপুর ১২টা, ১টা, বিকেল ৩টা ও ৪টা। ইংরেজী সংবাদ সন্ধ্যা ৬টা]

ধারাবাহিক নাটক ‘রেডিও জকি এবং কতিপয় গল্প’
এটিএন বাংলায় আজ (২০ এপ্রিল) রাত ৮টা ৪০মিনিটে প্রচার হবে ধারাবাহিক নাটক ‘রেডিও জকি এবং কতিপয় গল্প’। মুরাদ পারভেজের রচনা ও পরিচালনায় নাটকটিতে অভিনয় করেছেন ঝুনা চৌধুরী, শম্পা রেজা, চিত্রলেখা গুহ, সোহানা সাবা, আহসান হাবিব নাসিম, ইরফান সাজ্জাদ, ইউসুফ রাসেল, সুমনা সোমা, খালেকুজ্জামান, রোকসানা হিরা, সুসমী আহসান প্রমুখ।
খেয়া রেডিও জকি। চাকরীটা করে সে একেবারে নিজের ভালো লাগার জন্য। কাক ডাকা ভোরে শ্রোতারা এসএমএসে বা ফোন করে পছন্দের গান শুনতে চায় তখন তার ভীভণ ভালো লাগে। প্রতিদিন ভোরে বাসা থেকে বের হয়ে ১০টা পর্যন্ত বকর বকর, তারপর ক্লাস। এভাবেই পার করেছে তিনচি বছর। খেয়া চৌধুরীর এখন অনেক ফ্যান। পড়াশোনার পাট চুকিয়ে এখন সে বেকার। প্রতিদিনের মতো ভোরে বাসা থেকে বেরিয়ে রেডিও স্টেশনে যাওয়া তারপর বাসায় ফিরে মাকে টুকটাক রান্নায় হেল্প করা, পুরনো বন্ধুদের সঙ্গে আড্ডা, তারপর আর সময় কাটেনা। বড় একা লাগে।
একদিন নিউজ ব্রেকে ক্যান্টিনে চা খেতে খেতে খেয়ার চোখ আটকে যায় একটা চাকরীর বিজ্ঞাপনে। চোখ ছাড়াবড়া হয়ে যায় বিজ্ঞাপনের শর্ত দেখে। বিবাহিত মেয়েদের চাকরীতে অগ্রাধিকার, শর্ত প্রযোজ্য। হাঁসিতে ফেটে পড়ে খেয়া। মা’ও হেঁসে ওঠে হো হো করে। মাকে চমকে দিয়ে ইন্টারভিউ দিতে রাজি হয় খেয়া। ম তাকে বোঝানোর চেষ্টা করে, এটা অন্যায়। বিবাহিত না হয়েও বিবাহিত এর অভিনয় করে চাকরী নেয়াটা ঠিক নয়। কিন্তু খেয়া ইন্টারভিউ দিবেই দিবে। এরপর কাহিনী মোড় নেয় অন্যদিকে। ঘটতে থাকে বিভিন্ন রকম মজার ঘটনা।

দেশটিভি

দেশ টিভি অনুষ্ঠানমালা
সময় অনুষ্ঠান
সকাল ৭:৩০ দেশ সংবাদ
সকাল ৮:০০ সিনেমার সকাল: বিয়ের লগন
শ্রেষ্ঠাংশে: রিয়াজ, জনা, অমিত হাসান, নদী, ডন প্রমুখ।
সকাল ১০:০০ দেশ সংবাদ
দুপুর ১২:০০ দেশ সংবাদ
দুপুর ২:০০ দেশ সংবাদ
বেলা ৩:৩০ গান আর গান
বেলা ৪:০০ দেশ জনপদ
বিকাল ৫:০০ স্বাস্থ্য বিষয়ক অনুষ্ঠান: স্বাস্থ্যকথা
সন্ধ্যা ৬:০০ কল্পলোকের গল্পকথা
সন্ধ্যা ৬:৩০ দূর দূরান্তে
সন্ধ্যা ৭:০০ দেশ সংবাদ
রাত ৭:৪৫ ফান শো: দেশ-ব-গল্প
রাত ৮:১৫ ফ্যাশন বিষয়ক অনুষ্ঠান: স্টাইল অ্যান্ড ফ্যাশন
রাত ৯:০০ সংবাদ
রাত ৯:৪৫ নতুন ধারাবাহিক নাটক: বারান্দায় রোদ্দুর
রচনা: লিটু সাখাওয়াত। পরিচালনা: তৌহিদ খান বিপ্লব।
অভিনয়ে: আমিরুল হক চৌধুরী, ওয়াহদিা মল্লকি জল, ফারুক আহমেদ, সানজিদা প্রীতি,
শাহাদাত হোসেন, এ্যালেন শুভ্র, শাকিলা আক্তার, বিথী সরকার, চিত্রলেখা গুহ প্রমুখ।
রাত ১০:৩০ নতুন ধারাবাহিক নাটক: উৎসব
রচনা: মাসুম শাহরীয়ার। পরিচালনা : গোলাম মুক্তাদির।
অভিনয় শিল্পী: আবুল হায়াত, আজাদ আবুল কালাম, নাজনীন হাসান চুমকী, রাজীব
সালেহীন, হি মে হাফিজ, দ্বীপ, নাদিয়া আহমেদ প্রমুখ।
রাত ১১:০০ দেশ সংবাদ
রাত ১১:৪৫ বিরতিহীন নাটক: দ্বিতীয় মানুষ
রাত ১:০০ দেশ সংবাদ
ধারাবাহিক নাটক: উৎসব
রচনা: মাসুম শাহরীয়ার।
পরিচালনা : গোলাম মুক্তাদির
অভিনয় শিল্পী: আবুল হায়াত, আজাদ আবুল কালাম, নাজনীন হাসান চুমকী, রাজীব সালেহীন, হি মে হাফিজ, দ্বীপ, নাদিয়া আহমেদ প্রমুখ। দেশ টিভিতে প্রচারিত হবে প্রতি মঙ্গল থেকে বৃহস্পতিবার রাত ১০টা ৩০ মিনিটে গ্রামের নামটা উৎসব। গ্রামটা একটু প্রত্যন্ত এলাকায়। গ্রামের একপাশে বকপট্টির জঙ্গল। অন্যপাশে বিল। বিলের উপাড়ে ঘাসপাড়া। প্রত্যন্ত এই গ্রামের বিত্তবান মানুষ গাজী আলতাফ। বিস্তর জমিজমা। গঞ্জে মাছ আর সবজির আড়ত। গাজি সাহেবের চার ছেলে মেয়ে। ছেলে মেয়েদের কেউ গ্রামে থাকে না। শহুরে জীবনে তারা অভ্যস্ত হয়ে পড়েছে। ছেলে মেয়েদের কথা ভেবে তিনি গ্রামে আধুনিক দুতলা একটা বাড়ি করেছেন। ফল কিছু হয়নি। গ্রামের প্রতি ছেলেমেয়েদের কোন টান নেই। অথচ এই গ্রামেই তাদের শৈষব কৈশোর কেটেছে। আলতাফ সাহেবের স্ত্রী হাসনাহেনা ছাড়া বাড়ির আরো দুটি চরিত্র মজনু এবং ময়না। এরা দুই ভাইবোন। এ বাড়ির আশ্রিতা বলা হলেও আসলে কাজের লোক। দুটি চরিত্রের মধ্যেই কি যেনো রহস্য আছে।

আলতাফ সাহেব অনুনয় অনুরোধ থেকে শুরু করে নানা ভাবে তার ছেলে মেয়েদের গ্রামে আনার চেষ্টা করছেন। সে চেষ্টা সফল হয়নি। আলতাফ সাহেব ঠিক করেছেন তার সমন্ত বিষয় সম্পত্তি তিনি দান করে যাবেন। খবরটা ছেলেমেয়েদের কানে পেীছেছে। খবর শোনর পর তাদের প্রতিক্রিয়া বেশ জটিল। কয়েক কোটি টাকার সম্পত্তি এভাবে হাতছাড়া হয়ে যাবে কেউ সেটা মেনে নিতে পারছে না কিন্তু বাপের এই সিদ্ধান্তকে তারা পাল্টাবে কি করে? আলতাফ সাহেবের একটাই শর্ত ছেলে মেয়েদের গ্রামে এসে থাকতে হবে। বাপকে এই সিদ্ধন্ত থেকে সড়ানোর ব্যার্থ চেষ্টা চলে কিছু দিন। দানের কাগজপত্র যখন তৈরী ছেলেমেয়েরা নিজেদের অবস্থান থেকে সরে আসে। তারা গ্রামে যাবার সিদ্ধান্ত নেয়। একদল শহুরে মানুষ গ্রামীন জীবন শুরু করতে প্রস্তুত হয়। তাদের রুচি ফ্যাশন চিন্তা অভ্যাস … এই সবকিছু গ্রামীন পটভূমিতে তৈরী করে নানারকম হাস্যরস। গ্রামের মানুষ সম্ভ্রান্ত পরিবার হিসেবে তাদের যেমন সমীহ করে, তাদের কান্ড কারখানায় হাসতে হাসনতে লুটুপুটিও খায়। দ্বিধা দ্বন্দ উৎসবের ভেতর দিয়ে একটা পরিবর্তন কি আমরা টের পাই না? একটা জাতী স্বত্তার শেকরের একটু কাছাকাছি কি পৌছাই না?

একটা দীর্ঘ ধারাবাহিক গল্পের শেষে আমরা আলতাফ সাহেবের মৃত্যু সংবাদ পাই। যে সংবাদ সবাইকে শূন্য করে দেয়। কাদায়। উৎসব নামের গ্রামটা হয়ে ওঠে আলতাফ সাহেবের স্মৃতির যাদুঘর।

পাঠকের মন্তব্য: (পাঠকের কোন মন্তব্যের জন্য কর্তৃপক্ষ কোন ক্রমে দায়ী নয়)