ব্রেকিং নিউজ
বাংলা

আপডেট ১৭ মিনিট ৪৯ সেকেন্ড

ঢাকা বুধবার, ২ কার্তিক, ১৪২৬ , হেমন্তকাল, ১৭ সফর, ১৪৪১

শিক্ষা ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে ২০১৯-২০ সেশনে ভর্তির আবেদন শুরু ৫ আগস্ট

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে ২০১৯-২০ সেশনে ভর্তির আবেদন শুরু ৫ আগস্ট

ঢাবি প্রতিনিধি, নিরাপদ নিউজ: ২০১৯-২০ সেশনে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের(ঢাবি) অধীনে অনার্সে ভর্তি পরীক্ষার অনলাইন আবেদন আগামী ৫ আগস্ট থেকে শুরু হবে এবং ভর্তি পরীক্ষা শুরু হবে ১৩ সেপ্টেম্বর থেকে। ৩ জুলাই, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশাসনিক ভবনে অনুষ্ঠিত ডিনস কমিটির এক বৈঠকে এমন সিদ্ধান্ত নেয়া হয়। এসময় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের মাননীয় উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো: আখতারুজ্জামানের বর্তমানে অনলাইন ভর্তি কমিটির আহ্বায়ক এবং ইলেকট্রিক্যাল অ্যান্ড ইলেকট্রনিক ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের অধ্যাপক ড. সুব্রত কুমার আদিত্যসহ বিভিন্ন অনুষদের ডিনরা উপস্থিত ছিলেন।
ডিনস কমিটির সভার সিদ্ধান্ত অনুযায়ী, এবারের অনলাইন ভর্তির আবেদন প্রক্রিয়া আগামী ৫ আগস্ট থেকে শুরু হয়ে চলবে ২৭ আগস্ট পর্যন্ত। আর পরীক্ষা শুরু হবে ১৩ সেপ্টেম্বর। গত বছরের মতো এ বছরও ভর্তি পরীক্ষা গ ইউনিটের(বাণিজ্য) (১৩ সেপ্টেম্বর) মাধ্যমেই শুরু হবে। চ-ইউনিটের (চারুকলা) সাধারণ জ্ঞান বিষয়ের ভর্তি পরীক্ষা ১৪ সেপ্টেম্বর (শনিবার), ক-ইউনিটের (বিজ্ঞান) ভর্তি পরীক্ষা ২০ সেপ্টেম্বর (শুক্রবার), খ-ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষা ২১ সেপ্টেম্বর (শনিবার), ঘ-ইউনিটের (কলা ও সামাজিক বিজ্ঞান) ভর্তি পরীক্ষা ২৭ সেপ্টেম্বর (শুক্রবার) এবং চ-ইউনিটের (অঙ্কন) পরীক্ষা ২৮ সেপ্টেম্বর (শনিবার) অনুষ্ঠিত হবে।
অনলাইন ভর্তি কমিটির আহ্বায়ক অধ্যাপক ড. সুব্রত কুমার আদিত্য বলেন, যেহেতু অন্য বিশ্ববিদ্যালয়গুলো ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের দিকে তাকিয়ে থাকে যে আমরা কিভাবে পরীক্ষার শিডিউল দেবো, সে অনুযায়ী তারা তাদের শিডিউল ঠিক করবেন; যাতে শিক্ষার্থীরা তাদের ভর্তি পরীক্ষাটা দিতে পারেন। এ জন্য পরীক্ষামূলক সময়সীমা নির্ধারণ করা হয়েছে।
তবে বড় ধরনের কোনো সমস্যা না হলে এ শিডিউলেই আবেদন ও ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে বলে বিষয়টি একাধিক সূত্র নিশ্চিত করেছে।
বিগত বছরের প্রশ্নপত্র ফাঁসের পর থেকে ভর্তি পরীক্ষায় পরিবর্তন আনার কথা শোনা গেছে। আনুষ্ঠানিকভাবে শীগ্রই এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত জানানো হবে বলে ডিনস কমিটির বৈঠক সূত্র জানিয়েছে।
পরীক্ষার পদ্ধতির বিষয়ে জানতে চাইলে ইঞ্জিনিয়ারিং অ্যান্ড টেকনোলজি অনুষদের ডিন অধ্যাপক ড. মো: হাসানুজ্জামান বলেন, ৬০ নম্বরের বহুনির্বাচনি (এমসিকিউ) এবং ৪০ নম্বরের লিখিত পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে। ৪০ নম্বরের লিখিত পরীক্ষার ধরন কী রূপ হবে সে বিষয়।

পাঠকের মন্তব্য: (পাঠকের কোন মন্তব্যের জন্য কর্তৃপক্ষ কোন ক্রমে দায়ী নয়)