ব্রেকিং নিউজ
বাংলা

আপডেট August ১৩, ২০১৯

ঢাকা বৃহস্পতিবার, ৩০ কার্তিক, ১৪২৬ , হেমন্তকাল, ১৭ রবিউল-আউয়াল, ১৪৪১

মতামত ‘তাঁর বাইক এক্সিডেন্টে মৃত্যুর নিউজটি টিভিতে আমিই পড়ি, কিন্তু জানতাম না সেই যুবকই…’

‘তাঁর বাইক এক্সিডেন্টে মৃত্যুর নিউজটি টিভিতে আমিই পড়ি, কিন্তু জানতাম না সেই যুবকই…’

রেহনুমা মোস্তফা,নিরাপদ নিউজ: আমার কিছুটা দূরের এক আত্মীয়, উচ্চতা ৬”৩’। আমার দুই বছরের বড়। প্রচন্ড মেধাবী ও মানবিক। ওর কাছ থেকে কেউ কোনোদিন খালি হাতে ফিরে নাই। সবার আশ্রয় যেনো সে। সবার জন্য দরজা খোলা। স্বার্থপরতা কি জিনিস সে জানতো না। ভাইয়ের শ্বশুর বাড়ির আত্মীয় হলেও আমার কিশোরী বয়সের বন্ধু হয়ে উঠে সে। একসাথে গল্প আড্ডা আর পড়াশোনা। আমার অংকে পাশ করার পিছনেও তার হাত থাকতো। জীবনটাকে কখনো সিরিয়াসলি নিতোনা,, বলতো রেহনুমা জীবনটা খুব ছোট্টরে.. আমাদের শান্ত ছাদ এর বিকাল, তার পোষা কবুতর আর হিন্দি সিনেমা। আমার মন খারাপের বিকালে তার সেই কবুতর গুলো আমাকে দারুণ সঙ্গ দিতো। একদিন খুব চোখের পানি ফেলে হাসিখুশি বন্ধুটি আমাকে বললো তার রোজ বুকের পাঁজর ভাঙ্গার গল্প। হঠাৎ করে কাউকে খুব ভালোবেসে ফেলেছে সে। মেয়েটি তাকে ধোঁকা দিয়ে স্বার্থপরতা দেখিয়ে কয়েকদিন আগে বিয়েও করে ফেলেছে। সে আবার বিয়েতে সেই মেয়ে ও তার স্বামীর জন্য পাঠিয়েছে নানা রকম উপহার। কষ্ট কুঁড়ে কুঁড়ে খাচ্ছে তাকে, জীবনটা হয়ে যাচ্ছে নরক।শান্তনা আর শক্ত হতে বলা ছাড়া ওই সময়ে আমার আর কিছু বলার ছিলো না তাকে। ওর মানসিক অবস্থা দিন দিন খারাপ হচ্ছিলো। আরটিভিতে জয়েন করি তখন আমি বেশ কিছুদিন হয়। আমাকে টিভিতে দেখিয়ে সবাইকে বলতো ওই দেখো আমাদের রেহনুমা। একদিন রাতের নিউজে আমি পড়ি খিলগাঁও ফ্লাইওভারে বাইক এক্সিডেন্টে এক যুবক নিহত হয়েছেন, আর দশটা নিউজের মতোই পড়ে বাড়ি ফিরি আমি। খুব ভোরে আব্বা আমাকে ডেকে বলে কাল রাতের সেই মারা যাওয়া ছেলেটিই নাকি আমার বন্ধু তপু। আমার ভাই ফোন দিয়ে তাই জানিয়েছে। যখন তাদের বাসায় ছুটে যাই ততক্ষণে তপুর দাফন হয়ে গেছে। শেষ দেখা আর হয় নাই। তপুর পোষা কবুতরগুলো হয়ত দূরে কোথাও উড়ে চলে গেছে। তপুর মৃত্যু বার্ষিকী এগিয়ে আসছে,,, আর আমারটা আমি হয়ত নিজের অজান্তেই প্রতিবছর পালন করে আসছি। তপুরা ভালো থাকুক ওপারে। ভালো মানুষরা আফসোস আর চাপা কষ্ট নিয়ে পৃথিবী ছাড়বে আর স্বার্থপর দুমুখোরা হিসাবনিকাশ করে বিজয়ীর হাসি হেসে জীবনের স্বাদ নিবে এটাই বোধহয় নিয়ম…..

লেখক: সংবাদপাঠিকা, বাংলাভিশন। সূত্র: ফেসবুক

পাঠকের মন্তব্য: (পাঠকের কোন মন্তব্যের জন্য কর্তৃপক্ষ কোন ক্রমে দায়ী নয়)