ব্রেকিং নিউজ
বাংলা

আপডেট ডিসেম্বর ২৯, ২০১৪

ঢাকা শুক্রবার, ৫ শ্রাবণ, ১৪২৬ , বর্ষাকাল, ১৬ জিলক্বদ, ১৪৪০

চট্টগ্রাম, ভ্রমন তীব্র শীতেও পর্যটক বাড়ছে মনোরম বান্দরবানে

তীব্র শীতেও পর্যটক বাড়ছে মনোরম বান্দরবানে

b 1

বান্দরবান, ডিসেম্বর ২৯ ২০১৪, নিরাপদনিউজ : তীব্র শীতের মধ্যেও বান্দরবানে পর্যটকের সংখ্যা বাড়ছে। প্রতিদিনই জেলা শহরে অনেক পর্যটক আসছেন। তারা ভ্রমণ করছেন তাদের পছন্দের পর্যটন কেন্দ্রগুলোতে। ছুটিসহ টানা বন্ধের সময় জেলা শহরে প্রতিদিন গড়ে ১০ হাজার পর্যটকের আগমন ঘটছে।
জেলা প্রশাসন, পুলিশ, সেনাবাহিনী, বিজিবি এবং আনসার বাহিনীর পক্ষ থেকে ভ্রমণ পিপাসুদের জন্যে পর্যাপ্ত নিরাপদ ব্যবস্থা নিশ্চিত করা হয়েছে।
জেলা হোটেল-মোটেল মালিক সমিতির সভাপতি কাজী মজিবুর রহমান জানান, দেশের পরিস্থিতি স্বাভাবিক থাকায় বান্দরবানে প্রতিমাসে গড়ে ৩ লাখ পর্যটকের আগমন ঘটছে। এ অবস্থা বজায় থাকলে বছরে প্রায় ৬ মাস পর্যটকের সংখ্যা এমনই থাকে। এ সময় দৈনিক গড়ে কোটি টাকা খরচ করেন পর্যটক ও ভ্রমণ পিপাসুরা থাকা-খাওয়া ও পরিবহন খাতে।
তিনি জানান, যদি অস্বাভাবিক পরিস্থতির উদ্ভব ঘটে, তবে প্রতিমাসেই গড়ে লোকসান গুণতে হয় কোটি টাকা।

tourist
জেলা শহরে অর্ধশত হোটেল-মোটেল ও কটেজ গড়ে উঠেছে। তবওু ভরা মৌসুমে এসবে ঠাঁই মেলে না পর্যটকদের আগমন বৃদ্ধির কারণে।
জেলা শহরের কাছে মেঘলা পর্যটন কেন্দ্র, নীলাচল, বালাঘাটায় স্বর্ণমন্দির, কালাঘাটায় রামজাদি, দয়ায় প্রান্তিক লেক ও ন্যাচারাল পার্ক, বান্দরবান-রুমা সড়কের পাশে শৈলপ্রপাত, চিম্বুক পাহাড়, জিয়া পুকুর, নীলগিরি, রুমা উপজেলায় পাহাড়ি ঝর্ণা, প্রায় আড়াই হাজার ফুট উচুঁ পাহাড়ের ওপর বগালেক, ক্যক্রাডং পর্বতমালা এবং তাজিংডং বা বিজয় পাহাড়, শিপ্পী পাহাড়, লামা উপজেলার ইয়াংছায় টাইটানিক আদলের মনোহারা পর্যটন কেন্দ্র, আলীকদম উপজেলা সদরের কাছে প্রাকৃতিক ও বিস্ময়কর সুড়ংগ এবং নাইক্ষ্যংছড়িতে ঝুলন্ত সেতুসহ প্রাকৃতিক লেক অনেক উপভোগ্য এবং পর্যটকদের জন্য তা নান্দনিক স্পট।
অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক মো. ফারুক হোসেন জানিয়েছেন, জেলায় ভ্রমণে আসা পর্যটক ও ভ্রমণ পিপাসুদের মুগ্ধকরণ ও তাদের সুযোগ সুবিধা আরও বাড়ানোর লক্ষ্যে আগামীতে দীর্ঘ সংযোগযুক্ত কেবলকারসহ বেশকিছু নতুন পর্যটন কেন্দ্র স্থাপন এবং আকর্ষণ বাড়ানের লক্ষ্যে প্রশাসন থেকে প্রকল্প প্রস্তাবনা পাঠানো হয়েছে সরকারের উচ্চ পর্যায়ে।
প্রস্তাবিত প্রকল্প বাস্তবায়নে প্রাথমিকভাবে প্রায় সাড়ে ৪ কোটি টাকা চাওয়া হয়েছে বলেও জানান।-সংগৃহীত

পাঠকের মন্তব্য: (পাঠকের কোন মন্তব্যের জন্য কর্তৃপক্ষ কোন ক্রমে দায়ী নয়)