ব্রেকিং নিউজ
বাংলা

আপডেট মার্চ ২৯, ২০১৯

ঢাকা সোমবার, ১১ আষাঢ়, ১৪২৬ , বর্ষাকাল, ২১ শাওয়াল, ১৪৪০

রাজশাহী, শিক্ষা দশ বছরের বেশি সময় পর একসঙ্গে রাবির ছাত্রলীগ, ছাত্রদলসহ সকল সংগঠন

দশ বছরের বেশি সময় পর একসঙ্গে রাবির ছাত্রলীগ, ছাত্রদলসহ সকল সংগঠন

জাহাঙ্গীর আলম,নিরাপদনিউজ : দশ বছরেরও বেশি সময় পর রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় (রাবি) ক্রিয়াশীল ছাত্রলীগ, ছাত্রদলসহ সকল রাজনৈতিক, সাংস্কৃতিক ও সাংবাদিক সংগঠনের নেতাদের মিলনমেলা বসেছে। বাংলাদেশ ছাত্র ইউনিয়ন রাবি সংসদের এক প্রীতিভোঁজ উপলক্ষ্যে শুক্রবার দুপুর আড়াইটায় বিশ্ববিদ্যালয় স্টেডিয়ামের সামনে মিলিত হোন সব সংগঠনের নেতারা। প্রীতিভোজ শেষে যেখানে অনুষ্ঠিত হয় এক সংক্ষিপ্ত আলোচনা সভা। আলোচনায় রাকসু নির্বাচনসহ ক্যাম্পাসে শিক্ষার্থীদের স্বার্থ সংশ্লিষ্ট নানা বিষয় উঠে এসেছে।

ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক ফয়সাল আহমেদ রুনু বলেন, ‘দীর্ঘদিন পর একসঙ্গে সকল ছাত্র সংগঠনের নেতারা আলোচনায় বসা একটা নতুন মাইলফলক। আমরা সরকারী ছাত্র সংগঠনের নেতারা সব সময় সাধারণ শিক্ষার্থীদের পাশে থেকে কাজ করার চেষ্টা করছি। তবে কাজ করতে গেলে অনেক সময় অনেক রকমের ভুল ভ্রান্তি হয়ে যায়। আপনারা সকলেই আমাদের সেই সব ভুল-ভ্রান্তি ক্ষমা সুন্দর দৃষ্টিতে দেখবেন। আমরা সকলেই একসঙ্গে সাধারণ শিক্ষার্থীদের জন্য কাজ করে যেতে চাই। আপনাদের কোনো ধরনের পরামর্শ থাকলে অবশ্যই আমাদের জানাবেন।’

এ সময় ছাত্রদলের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক সুলতান আহমেদ রাহী বলেন, ‘অনেক দিন পরে আমরা ক্যাম্পাসে সকলেই একসঙ্গে বসতে পেরেছি। ২০০৯ সালের পর সকল ছাত্র সংগঠনের নেতারা এভাবে একসঙ্গে বসা এটাই প্রথম। তাই আমি মনে করছি এটা খুবই ইতিবাচক দিক। আমরা সবাই বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী। তাই সব ধরণের ভেদাভেদ ভুলে সাধারণ ছাত্রদের জন্য আমরা সকলেই কাজ করে যাব সেই প্রত্যাশা থাকবে।’

আলোচনায় ছাত্র ইউনিয়নের সাবেক সভাপতি এ এম শাকিল হোসেন বলেন, ‘আমরা যারা এখানে আছি তাদের মতাদর্শ ভিন্ন হলেও সাধারণ ছাত্রদের জন্য কাজ করাই আমাদের মূল লক্ষ্য। সামনে যেহেতু রাকসু নির্বাচন এই নির্বাচন কীভাবে সুষ্ঠু করা যায় তা আমাদেরকেই নিশ্চিত করতে হবে।’

এসময় ছাত্র ইউনিয়ন দাবি করেন, রাকসু নির্বাচনে যেনো কোনো মৌলবাদি ও স্বাধীনতা বিরোধী দল অংশ না নেয়। সকল সংগঠানের পক্ষ থেকে রাকসু নির্বাচনের দাবিতে উপাচার্যের কাছে যাওয়ার দাবিও তোলেন শাকিল হোসেন। শাকিল হোসেনের দাবির সঙ্গে একমত পোষণ করেন সকল রাজনৈতিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠনের নেতারা।

ছাত্র সংগঠনের এই মিলনমেলায় বিপ্লবী ছাত্রমৈত্রীর কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক দিলীপ রায়, বিপ্লবী ছাত্রমৈত্রী রাবি শাখার সভাপতি ফিদেল মনির, সাধারণ সম্পাদক রঞ্জু হাসান, রাকসু অন্দোলন মঞ্চের আহ্বায়ক আব্দুল মজিদ অন্তর, সমাজতান্ত্রিক ছাত্রফ্রন্ট রাবি শাখার সাধারণ সম্পাদক আল আমিন প্রধান তারেক, ছাত্র ফেডরেশন রাবি শাখার সাংগঠনিক সম্পাদক সুমন মোড়ল, কেন্দ্রীয় সাংস্কৃতিক জোটের সাধারণ সম্পাদক তমালিকা বিশ্বাস, গণশিল্পী সংস্থা রাবি শাখার সভাপতি জাকিরুল ইসলাম, বিশ্ববিদ্যালয় রিপোর্টার্স ইউনিটি, সাংবাদিক সমিতি ও প্রেসক্লাবের সদস্যবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন ।

পাঠকের মন্তব্য: (পাঠকের কোন মন্তব্যের জন্য কর্তৃপক্ষ কোন ক্রমে দায়ী নয়)