আপডেট ১ মিনিট ১১ সেকেন্ড

ঢাকা সোমবার, ১ আশ্বিন, ১৪২৬ , শরৎকাল, ১৬ মুহাররম, ১৪৪১

লাইফস্টাইল দেশবাসী নতুন স্বাদের সবজিতে অভ্যস্ত

দেশবাসী নতুন স্বাদের সবজিতে অভ্যস্ত

নিরাপদ নিউজ: নানা রকমের দেশি সবজির ভিড়ে এখন আমাদের দেশে প্রচলিত হচ্ছে নানা বিদেশি সবজি। এগুলো আজকাল দেশেই চাষ হচ্ছে আর আমরাও অভ্যস্ত হচ্ছি নতুন ধরনের সবজি খেতে। জেনে নিন এমন কয়েকটি নতুন সবজির পুষ্টিগুণ।

ব্রকলি

ব্রকলি দেখতে ফুলকপির মতো, রং সবুজ। পুষ্টিতে ভরপুর এই সবজি ভাপিয়ে খেলে পুষ্টিগুণ পুরোপুরি বজায় থাকে। এ ছাড়া হালকা তেলে ভাজি করে, স্যুপ বা সালাদে, নুডলসেও খাওয়া যায় এটি। ব্রকলি অ্যান্টি-অক্সিডেন্টসমৃদ্ধ, রক্তস্বল্পতা দূর করে। প্রচুর সেলুলোজ আছে বলে কোষ্ঠকাঠিন্য দূর করে। এক কাপ সেদ্ধ ব্রকলিতে আছে ৪৫ ক্যালরি শক্তি। এর ৬ গ্রাম শর্করা, ১.৮ গ্রাম প্রোটিন। ভিটামিন সি ৫১ মিলিগ্রাম, পটাশিয়াম ২২৮ মিলিগ্রাম, ক্যারোটিন অনেক, প্রায় ৩৪০০ আইইউ। এ ছাড়া আছে ফসফরাস, ক্যালসিয়াম, ম্যাগনেশিয়াম, ফলিক অ্যাসিড ইত্যাদি।

চায়নিজ ক্যাবেজ

বাঁধাকপির মতো দেখতে বেগুনি রঙের এই সবজির আরেক নাম রেড ক্যাবেজ। এতে যে রঞ্জক পদার্থ আছে, তা মস্তিষ্কের বিকাশের জন্য গুরুত্বপূর্ণ। এতে লাইকোপেন আছে, যা ক্যানসাররোধী। এক কাপ রেড ক্যাবেজে ১.৭৮ গ্রাম প্রোটিন আছে। তা ছাড়া আছে পটাশিয়াম, ম্যাগনেশিয়াম, ক্যালসিয়াম, ফলিক অ্যাসিড, ভিটামিন এ এবং সি।

ক্যাপসিকাম

এখন অনেকেই ক্যাপসিকাম খেতে বেশ অভ্যস্ত হয়ে উঠছেন। এটা তিন ধরনেরÑহলুদ, সবুজ ও লাল। লাল ও হলুদ ক্যাপসিকামে বিটা ক্যারোটিন বেশি। বিটা ক্যারোটিন চোখ ভালো রাখে, হার্ট অ্যাটাক, স্ট্রোক প্রতিহত করে। সবুজ ক্যাপসিকামে আছে প্রচুর ভিটামিন সি ও লিউটেইন। এটি হজমশক্তি বাড়ায়। আর্থ্রাইটিসের সমস্যায় বেশ উপকারী। ১০০ গ্রাম ক্যাপসিকামে ৪০ ক্যালরি শক্তি।

বেবি কর্ন

স্যুপ, সালাদ, নুডলস, ফ্রায়েড রাইসে বেবি কর্নের ব্যবহার হয়। এতে ফ্রুকটোজ আছে। এক কাপ বেবি কর্নে ৭০ ক্যালরি আছে। আছে লৌহ, ক্যালসিয়াম, ভিটামিন এ ইত্যাদি।

ব্যাম্বু শুট

সাধারণত স্যুপে ব্যবহার করা হয় এই সবজি। এক কাপ ব্যাম্বু শুটে ১.৮ গ্রাম প্রোটিন আছে। আছে পটাশিয়াম, ম্যাগনেশিয়াম, ক্যালসিয়াম,

লিক অ্যাসিড।

মাশরুম

মাশরুম ক্রমেই শহরে জনপ্রিয় খাবার হয়ে উঠছে। মাশরুম কখনো কাঁচা খাবেন না। এক কাপ সেদ্ধ মাশরুমে প্রোটিন অনেক, ২ গ্রামের বেশি। পটাশিয়াম, ফসফরাস, সেলেনিয়াম, ভিটামিন ডি, নিয়াসিনের উৎস হলো মাশরুম। মাশরুম শুকিয়ে গেলে প্রোটিনের পরিমাণ আরও বাড়ে। প্রোটিনের ভেষজ উৎস হিসেবে এটি অসাধারণ। তবে ইউরিক অ্যাসিড যাদের বেশি, তাদের কম খেতে হবে।

পাঠকের মন্তব্য: (পাঠকের কোন মন্তব্যের জন্য কর্তৃপক্ষ কোন ক্রমে দায়ী নয়)