ব্রেকিং নিউজ
বাংলা

আপডেট মে ১৭, ২০১৭

ঢাকা বৃহস্পতিবার, ১৩ই বৈশাখ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ , গ্রীষ্মকাল, ১০ই শাবান, ১৪৩৯ হিজরী

বিনোদন, মিডিয়া ধর্ষক নাঈমের সঙ্গে সেলফি: একুশে টিভির অনুষ্ঠান প্রধান ফারহানা নিশো বরখাস্ত

ধর্ষক নাঈমের সঙ্গে সেলফি: একুশে টিভির অনুষ্ঠান প্রধান ফারহানা নিশো বরখাস্ত

একুশে টিভির অনুষ্ঠান প্রধান ফারহানা নিশো বরখাস্ত

১৭ মে ২০১৭, নিরাপদ নিউজ : একুশে টেলিভিশন থেকে বরখাস্ত হলেন জনপ্রিয় মিডিয়ামুখ ফারহানা নিশো। সূত্র জানায়, বুধবার (১৭ মে) সকালে প্রতিষ্ঠানের মানবসম্পদ বিভাগ থেকে একটি বিজ্ঞপ্তি পাঠায় সকল বিভাগীয় প্রধানের কাছে। কোম্পানি সচিব ও মানব সম্পদ প্রধান মো. আতিকুর রহমানের স্বাক্ষরিত অফিসের নোটিশ বোর্ডে ঝুলিয়ে দেওয়া ঐ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, এতদ্বারা সংশ্লিষ্ট সকলের অবগতির জন্য জানানো যাচ্ছে যে, অনুষ্ঠান প্রধান জনাব ফারহানা শবনম নিশোকে কর্তৃপক্ষের আদেশক্রমে চাকরি থেকে বরখাস্ত করা হয়েছে। এ আদেশ অবিলম্বে কার্যকর হবে।
তবে ঠিক কী কারণে তাকে বরখাস্ত করা হয়েছে সেটি নিশ্চিত হওয়া যায়নি। এ বিষয়ে ফারহানা নিশোর সঙ্গে মুঠোফোনে কথা বলার চেষ্টা করে পাওয়া যায়নি।

এ বিষয়ে টিভি চ্যানেলটির সিইও এবং প্রধান সম্পাদক মঞ্জুরুল আহসান বুলবুলের কাছে জানতে চাইলে তিনি  বলেন, ‘আমার কোনও মন্তব্য নেই। যিনি (মানব সম্পদ প্রধান মো. আতিকুর রহমান) ঐ বিজ্ঞপ্তি স্বাক্ষর করেছেন, তাকেই জিজ্ঞেস করুন।’

একুশে টেলিভিশনের মানব সম্পদ প্রধান মো. আতিকুর রহমানের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, ‘দেখুন এটা আমাদের অভ্যন্তরীণ বিষয়। এখানে অনেকেই আসবেন, অনেকেই চলে যাবেন- এটাই তো স্বাভাবিক। ফলে এই বিষয়টি আলাদা করে বাইরে শেয়ার করার কারণ নেই।’

তবে একটি সূত্রে জানা যায়, ফারহানা নিশো বনানীর হোটেলে ছাত্রী ধর্ষণের ঘটনায় অভিযুক্ত দ্বিতীয় আসামি নাঈম আশরাফ ওরফে আব্দুল হালিমের সঙ্গে সেলফির ছবি ফেসবুকে ভাইরাল হয়। এর প্রেক্ষিতেই নিশোকে বরখাস্ত করা হয়েছে।

 

গেল বছর (২০১৬) ফেব্রুয়ারিতে একুশে টেলিভিশনে যোগ দেন ফারহানা নিশো। তখনই তার যোগদান নিয়ে চ্যানেলকর্মীদের মধ্যে দ্বন্দ্ব তৈরি হয়, যা প্রাকাশ্যে চলে এসেছিল।
প্রসঙ্গত, উপস্থাপক এবং সংবাদ পাঠিকা হিসেবে এখনও ভালোই জনপ্রিয় ফারহানা নিশো। পাশাপাশি চ্যানেল ওয়ান ও বৈশাখী টিভির করপোরেট অ্যাফেয়ার্স বিভাগের প্রধান হিসেবেও কাজ করেছেন দীর্ঘদিন।
২০০৩ সালে এনটিভিতে সংবাদ উপস্থাপক হিসেবে ক্যারিয়ার শুরু হলেও মাঝে গ্রামীণফোনের টেকনিক্যাল ডিভিশন ও ওয়ারিদ টেলিকমে প্রোজেক্ট ম্যানেজমেন্ট বিভাগেও কাজ করেন বেশ কিছুদিন।

পাঠকের মন্তব্য: (পাঠকের কোন মন্তব্যের জন্য কর্তৃপক্ষ কোন ক্রমে দায়ী নয়)