আপডেট মার্চ ১৬, ২০১৯

ঢাকা মঙ্গলবার, ৮ জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৬ , গ্রীষ্মকাল, ১৬ রমযান, ১৪৪০

বিনোদন, লিড নিউজ নিউ জিল্যান্ডের দুটি মসজিদে সন্ত্রাসী হামলা: বাংলাদেশি তারকাদের শোক

নিউ জিল্যান্ডের দুটি মসজিদে সন্ত্রাসী হামলা: বাংলাদেশি তারকাদের শোক

নিরাপদ নিউজ: নিউ জিল্যান্ডের দুটি মসজিদে জুমার নামাজরত মুসল্লিদের ওপরে বন্দুকধারীর গুলিতে এখন পর্যন্ত ৪৯ জন নিহত হয়েছে। আহত হয়েছেন আরও ৪৯ জন। নিহতদের মধ্যে রয়েছেন তিন বাংলাদেশিও। কয়েকজন বাংলাদেশি নিখোঁজ রয়েছেন বলেও জানা গেছে।

এ সন্ত্রাসী হামলার ঘটনায় ক্ষোভে ফেটে পড়ে সারাবিশ্ব। তারা এঘটনায় নিহতের পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানিয়ে এই ঘটনার বিচার দাবি করেন। বিশ্ব নেতৃবৃন্দ এই ঘটনায় শোক প্রকাশ করেছেন।

এ ঘটনায় শোক জানিয়েছেন বাংলাদেশি তারকারাও। কেউ কেউ নিজেদের ক্ষোভও প্রকাশ করেছেন।

নিরাপদ সড়ক চাই এর প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান চিত্রনায়ক ইলিয়াস কাঞ্চন এই ঘৃন্য সন্ত্রাসী কর্মকান্ডের প্রতি তীব্র ঘৃণা প্রকাশ করে এক শোক বার্তায়  বলেন, মুসলিম ও আল নুর মসজিদের ওপর হামলার তীব্র নিন্দা জানাচ্ছি। এমন একটি জঘন্যতম কাজ কখনো গ্রহণযোগ্য নয়। এটি অত্যন্ত নিন্দনীয় একটি কাজ। তিনি হামলায় হতাহতদের পরিবারের প্রতি গভীর সমবেদনা প্রকাশ করেন এবং আরো বলেন এমন সন্ত্রাসী হামলা বিশ্বের কোন দেশেই কাম্য নয়। একটি দেশে কিভাবে এমন সন্ত্রাসী হামলা পরিচালনা সফল হয় এই বিষয়ে সে দেশের জনগনের নিরাপত্তার বিষয়ে আইন শৃঙ্খলার বিষয়টি আরো গুরুত্ব দিয়ে পরিচালনার আহবান জানান।

চলচ্চিত্র নির্মাতা মোস্তফা সরওয়ার ফারুকী ক্ষোভ প্রকাশ করে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে বলেন, “যখন একজন খ্রিষ্টান ‘হোয়াইট সুপ্রিমেসিস্ট তথা শ্বেতাঙ্গ শ্রেষ্ঠত্ববাদী’ মসজিদে ঢুকে হামলা চালায় এবং মানুষ হত্যা করে তখন পশ্চিমা মিডিয়া লিখে ‘মাস শুটিং বা নির্বিচারে গুলি’। আর যখন একজন মুসলিম হামলা চালায় এবং মানুষ হত্যা করে তখন প্রতিবেদন করা হয় ‘টেররিজম বা সন্ত্রাসবাদ’। হে পশ্চিমা মিডিয়ার বন্ধুরা, কখন আমরা দুই ধরনের হামলাকেই ‘সন্ত্রাসী হামলা’ বলে আখ্যায়িত করব? তোমরা কি কখনো ভেবেছ যে, তোমাদের এ পক্ষপাতিত্ব বিশ্বব্যাপী (মুসলমানদের প্রতি) ঘৃণা বিস্তারে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করছে?”

বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির সাধারণ সম্পাদক জায়েদ খান নিজের ফেসবুকে লিখেছেন, ‘নিন্দা জানানোর ভাষা নেই। নিউ জিল্যান্ডের ক্রাইস্ট চার্চে আল নূর মসজিদসহ দুইটি মসজিদের হামলায় হতাহতের ঘটনায় শোক প্রকাশ করছি।’

অভিনেত্রী জ্যোতিকা জ্যোতি বলেন, ‘এ কেমন অমানবিকতা! কি ভয়ংকর ঠান্ডা মাথায় হত্যা। ভিডিও গেমকে হার মানায়! কি থেকে বাঁচল বাংলাদেশ ক্রিকেট টিম!’

বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত তারকা সাবেক মিস আয়ারল্যান্ড মাকসুদা আকতার প্রিয়তি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে লিখেন, ‘নিউ জিল্যান্ড-এর মতো শান্তিপূর্ণ একটি দেশের বুকে এই ভয়ংকর ঘটনা নতুন। ওরা কিছু বোঝার আগেই এই বীভৎস, দুর্বিষহ ঘটনা ঘটে গেল। আমার হৃদয় থেকে ভিকটিমদের পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানাচ্ছি । আসলে এই মর্মান্তিক ঘটনার সান্ত্বনা দেওয়ার কোনো ভাষা আমাদের কারওর কাছে নেই। আর নিন্দা কাকে জানাব? জঙ্গিরা কি আর নিন্দার কথা পরোয়া করে মানুষ হত্যা করে? তাও কোনো পবিত্র দিনে, পবিত্র স্থানে। গত বছর হয়েছিল আমেরিকার এক চার্চে , আজ মসজিদে, তারপরে হয়তো হবে কোনো এক মন্দিরে। জঙ্গিদের কাছে ধর্ম কি আর জাত কি আর বর্ণ কি? ওরা ব্রেইন ওয়াশড, মস্তিষ্ক বিকৃত প্রাণী। কিছুটা স্বস্তির বিষয় হলো বাংলাদেশ ক্রিকেট টিম নিরাপদে আছে , তা না হলে হয়তো বিশ্বে যুদ্ধ নেমে যেত। নিরাপদে দেশে টিম ফিরুক এই কামনা করছি।’

পাঠকের মন্তব্য: (পাঠকের কোন মন্তব্যের জন্য কর্তৃপক্ষ কোন ক্রমে দায়ী নয়)