আপডেট ৪০ সেকেন্ড

ঢাকা রবিবার, ৮ আশ্বিন, ১৪২৫ , শরৎকাল, ১২ মুহাররম, ১৪৪০

নিসচা সংবাদ, লিড নিউজ নিসচার কেন্দ্রীয় কার্যকরী পরিষদের দিনব্যাপী প্রশিক্ষণ কর্মশালা

নিসচার কেন্দ্রীয় কার্যকরী পরিষদের দিনব্যাপী প্রশিক্ষণ কর্মশালা

এ কে এম ওবায়দুর রহমান, নিরাপদ নিউজ: নিরাপদ সড়ক চাই (নিসচা) কেন্দ্রীয় কার্যকরী পরিষদের (২০০৮-১৯) প্রশিক্ষণ কর্মশালা ও তৃতীয় মাসিক সভা শনিবার অনুষ্ঠিত হয়েছে। রাজধানীর কাকরাইলের একটি হোটেলে কর্মশালাটি সকাল ১০টায় শুরু হয়ে চলে বিকেল ৫টা পর্যন্ত। এতে কেন্দ্রীয় কার্যকরী পরিষদের সদস্যরা অংশগ্রহণ করেন। কর্মশালা শেষে কমিটির তৃতীয় মাসিক সভা অনুষ্ঠিত হয়।


জাতীয় সংগীত পরিবেশনের মধ্য দিয়ে প্রশিক্ষণ কর্মশালার সূচনা হয়। নিসচা চেয়ারম্যান চিত্রনায়ক ইলিয়াস কাঞ্চনের সভাপতিত্বে কর্মশালার শুরুতে সংগঠনের মহাসচিব সৈয়দ এহসানুল হক কামাল কেন্দ্রীয় কার্যকরী পরিষদের সদস্যদের নেতৃত্ব বিকাশের লক্ষ্যে একটি পাওয়ার পয়েন্ট উপস্থাপন করেন। পরে তিনি নিরাপদ সড়ক চাই- এর সাংগঠনিক কর্মকাণ্ড পরিচালনার বিষয়ে আরেকটি পাওয়ার পয়েন্ট উপস্থাপন করেন।

এরপর নিসচা চেয়ারম্যান চিত্রনায়ক ইলিয়াস কাঞ্চন সংগঠনের কার্যকরী পরিষদের নেতাদের উদ্দেশে বক্তব্য প্রদান করেন। তিনি বলেন, ইতিবাচক চিন্তার মাধ্যমে নিরাপদ সড়ক চাই’কে এগিয়ে নিতে হবে। এজন্য সংগঠনের প্রত্যেক নেতাকে হতে হবে সৃজনশীল। এমন কাজ করা যাবে না যাতে অন্যের ক্ষতি হয়। সড়ককে নিরাপদ করতে যানবাহনের চালক, মালিক, পথচারী, যাত্রী সবার মধ্যে সচেতনতা বাড়াতে হবে। এজন্য প্রয়োজনে নতুন নতুন আইডিয়া সৃষ্টি করতে হবে।

নিসচার সাংগঠনিক সম্পাদক এস এম আজাদ সাংগঠনিক প্রতিবেদন তুলে ধরেন। যেসব জেলা ও উপজেলায় নিসচার কমিটি এখনও গঠন হয়নি সেখানে কমিটি গঠনের প্রয়োজনীয় নির্দেশনা প্রদান করেন তিনি। এছাড়া কমিটি গঠনের বিষয়ে তিনি সার্বিক দিকনির্দেশনাও দেন।

কর্মশালার শেষ পর্যায়ে নিরাপদ সড়ক চাই- এর সাংগঠনিক কর্মকাণ্ডের উপর একটি পাওয়ার পয়েন্ট (প্রেজেন্টেশন অন নিসচা) তুলে ধরেন সংগঠনের আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক মিরাজুল মইন জয়। এতে তিনি নিসচার বিগত সময়ের নানা কর্মসূচি উপস্থাপন এবং সংগঠনের ভবিষ্যৎ পরিকল্পনা তুলে ধরেন।

সড়ক দুর্ঘটনায় হতাহতদের চিকিৎসায় বড় আকারের একটি জেনারেল হাসপাতাল স্থাপনে নিসচার পরিকল্পনা উঠে আসে এ প্রেজেন্টেশনে। এছাড়া সড়ক দুর্ঘটনায় ক্ষতিগ্রস্তদের চিকিৎসা, স্বাস্থ্য ও আইনগত সেবার পরিধি বৃদ্ধি, প্রতিটি জেলায় ড্রাইভিং মেকানিক্যাল প্রশিক্ষণ কেন্দ্র ও প্রশিক্ষণ ইন্সটিটিউট প্রতিষ্ঠার পরিকল্পনার কথা উঠে আসে। কর্মশালা শেষে কমিটির তৃতীয় মাসিক সভা অনুষ্ঠিত হয়।

প্রসঙ্গত, ১৯৯৩ সালের ২২ অক্টোবর মর্মান্তিক সড়ক দুর্ঘটনায় ইলিয়াস কাঞ্চনের স্ত্রী জাহানারা কাঞ্চনের মৃত্যু হয়। প্রিয়তমা স্ত্রীর মতো আর কারও যেন মৃত্যু না হয় সেজন্য সড়ক দুর্ঘটনা রোধে তিনি প্রতিষ্ঠা করেন নিরাপদ সড়ক চাই (নিসচা) নামের সংগঠন। সম্পূর্ণ স্বেচ্ছাসেবী, অরাজনৈতিক ও সামাজিক এ সংগঠনের দেশে ও বিদেশে বর্তমানে ১১০টির মতো শাখা কমিটি রয়েছে।

এছাড়া দীর্ঘ ২৪ বছর ধরে নিরাপদ সড়কের দাবিতে কাজ করার স্বীকৃতিস্বরুপ সরকার এ বছর ইলিয়াস কাঞ্চনকে একুশে পদকে ভুষিত করে।

পাঠকের মন্তব্য: (পাঠকের কোন মন্তব্যের জন্য কর্তৃপক্ষ কোন ক্রমে দায়ী নয়)