ব্রেকিং নিউজ
বাংলা

আপডেট ২১ মিনিট ৫৩ সেকেন্ড

ঢাকা মঙ্গলবার, ৪ অগ্রহায়ণ, ১৪২৬ , হেমন্তকাল, ২১ রবিউল-আউয়াল, ১৪৪১

অনুসন্ধানী প্রতিবেদন, লিড নিউজ পিন্টুর চিকিৎসায় কোনো অবহেলা খুঁজে পায়নি তদন্ত কমিটি

পিন্টুর চিকিৎসায় কোনো অবহেলা খুঁজে পায়নি তদন্ত কমিটি

pintu

পিন্টুর চিকিৎসায় কোনো অবহেলা খুঁজে পায়নি তদন্ত কমিটি

ঢাকা, ২০ মে ২০১৫, নিরাপদ নিউজ : বিএনপির সাবেক এমপি নাসির উদ্দীন পিন্টুর চিকিৎসায় কোনো গাফেলতি বা অবহেলা খুঁজে পায়নি তদন্ত কমিটি।

বুধবার এক প্রতিবেদনে এ তথ্য দেয় তদন্ত কমিটি।

রিপোর্টে বলা হয়, চিকিৎসা কর্তৃপক্ষ বা রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল (রামেক) কর্তৃপক্ষেরও কোনো ত্রুটি ছিলো না। সব ধরনের নিয়ম সঠিকভাবে মেনেই পিন্টুর চিকিৎসা প্রদান করা হয়েছে।

কারাগার ও রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের চিকিৎসা সংক্রান্ত নির্ধারিত ডাক্তারসহ সংশ্লিষ্ট সবার সঙ্গে সাক্ষাৎ, লিখিত বক্তব্য গ্রহণ এবং সার্বিক পরিস্থিতি পর্যালোচনা শেষে গঠিত তদন্ত কমিটি এ রিপোর্ট প্রদান করে।

কারাসূত্র জানায়, নাসির উদ্দীন পিন্টু মৃত্যুর দিন সুস্থ ছিলেন। সকালে তিনি স্বাভাবিক খাবার গ্রহণ করেন ও সবার সঙ্গে স্বাভাবিকভাবেই কথা বলেন। বেলা সাড়ে ১১টার দিকে তিনি তার চুলে কলপ লাগাচ্ছিলেন। এমন সময় হঠাৎ করে তার বুকে ব্যাথা অনুভূত হয়।

কর্তৃপক্ষ সাথে সাথেই রাজশাহী কেন্দ্রীয় কারা হাসপাতালে বন্দির চিকিৎসায় নিয়োজিত কার্ডিওলজি বিশেষজ্ঞ ডাক্তার, যিনি একইসঙ্গে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চাকুরিরত তার কাছে নিয়ে যান।

কারা কর্তৃপক্ষ উক্ত ডাক্তারের পরামর্শক্রমে তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য সঙ্গে সঙ্গেই রামেক হাসপাতালে পাঠায়। এরপর রামেক হাসপাতালের চিকিৎসকরা তাকে বেলা ১২ টা ১২ মিনিটে মৃত ঘোষণা করেন।

পিন্টুর মৃত্যুর পর কারাভ্যন্তরের মৃত্যুর পর পরিবার ও বিএনপির পক্ষ থেকে অভিযোগ তোলা হয়, পিন্টুকে চিকিৎসা করতে দেয়া হয়নি।

এমন অভিযোগের ভিত্তিতে ঢাকা বিভাগের ডিআইজি প্রিজন্স গোলাম হায়দারের নেতৃত্বে কাশিমপুর হাই সিকিউরিটি প্রিজন্সের সিনিয়র জেল সুপার মিজানুর রহমান ও ময়মনসিংহ কেন্দ্রীয় কারাগারের সিনিয়র জেল সুপার আনোয়ারুল কবির চৌধুরির সমন্বয়ে বিশেষ তদন্ত কমিটি গঠিত হয়।

চিকিৎসক রইচ উদ্দীন ৩ মে পিন্টুর মৃত্যুর পর বিভিন্ন টিভি ও প্রিন্ট মিডিয়ার কাছে বলেছেন, কারা কর্তৃপক্ষ তাকে পিন্টুর চিকিৎসা করার জন্য কারাগারে গেলেও প্রবেশ করতে দেননি। তাকে চা খাইয়ে বিদায় করে দেয়া হয়েছে।

আবার তদন্ত কমিটির জিজ্ঞাসাবাদে ডা. রইছ ওসব কথা তিনি মিডিয়াকে বলেননি বলেও জানিয়েছেন। তদন্ত কমিটিও রইছ উদ্দিনের এসব অভিযোগ মিথ্যা বলে রিপোর্টে উল্লেখ করেছে।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে কারা মহাপরিদর্শক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল সৈয়দ ইফতেখার উদ্দীন বলেন, নাসির উদ্দীন পিন্টুর চিকিৎসায় কোনো প্রকার অবহেলা হয়েছে কি না তা বের করতে ঢাকা বিভাগের ডিআইজি প্রিজন্সকে প্রধান করে করা ৩ সদস্যের তদন্ত কমিটি রিপোর্ট প্রদান করেছে।

পাঠকের মন্তব্য: (পাঠকের কোন মন্তব্যের জন্য কর্তৃপক্ষ কোন ক্রমে দায়ী নয়)