আপডেট ১ মিনিট ৭ সেকেন্ড

ঢাকা শনিবার, ১০ চৈত্র, ১৪২৫ , বসন্তকাল, ১৬ রজব, ১৪৪০

লাইফস্টাইল পুরুষের স্তন নিয়ে প্রয়োজনীয় তথ্য

পুরুষের স্তন নিয়ে প্রয়োজনীয় তথ্য

নিরাপদ নিউজ: হাস্যকর নয় বরং পুরুষের স্তন বড় হয়ে যাওয়া একটা সমস্যা। চিকিৎসা-বিজ্ঞানের ভাষায় বলা হয় ‘গাইনেকোমাস্টিয়া’। যার এই সমস্যা নেই তার কাছে বিষয়টা হাস্যকর মনে হলেও যার সমস্যাটি আছে তার জন্য এটি বিব্রতকর।

যুক্তরাষ্ট্রের ‘ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অফ হেলথ’য়ের তথ্য মতে, পুরুষের স্তন বৃদ্ধি পাওয়ার কারণটা সাধারণত ‘ইস্ট্রোজেন’ হরমোনের মাত্রা বেড়ে যাওয়া কিংবা ‘টেস্টোস্টেরন’ হরমোনের মাত্রা কমে যাওয়া। যেকোনো বয়সেই এই সমস্যা হতে পারে।

এই সমস্যার আরেক ধরনের নাম ‘সুডো-গাইনেকোমাস্টিয়া’, যেটার কারণ শরীরে চর্বি জমে যাওয়ার মাত্রা বেড়ে যাওয়া। অতিরিক্ত ওজনধারী পুরুষদের মাঝে এই সমস্যা দেখা যায়।

বিষয়টি নিয়ে গুরুতর দুশ্চিন্তার কারণ নেই। তবে শরীরে হরমোনের ভারসাম্যহীনতা কিংবা অতিরিক্ত ওজন মোটেও সুখকর নয়। তাই চিকিৎসকের পরামর্শ নেওয়াই বুদ্ধিমানের কাজ হবে।

আর বর্ধিত স্তনের বাহ্যিক বিব্রতকর দৃশ্য ঢাকতে বুকে পেশির পরিমাণ বাড়ানো কার্যকর হতে পারে। স্বাস্থ্যবিষয়ক একটি ওয়েবসাইটে প্রকাশিত প্রতিবেদন অবলম্বনে এই সমস্যা মোকাবিলা করার কয়েকটি পন্থা এখানে দেওয়া হল।

হরমোন পরীক্ষা: এই সমস্যা সমাধানের জন্য যেকোনো পদক্ষেপ নেওয়ার আগে চিকিৎসকের পরামর্শ নেওয়া অত্যন্ত জরুরি। আলোচনা করতে হবে সমস্যাগুলো এবং নিরাপদ সমাধানগুলো সম্পর্কে। হরমোনের মাত্রা পরীক্ষা করানো এর মধ্যে গুরুত্বপূর্ণ।

খাদ্যাভ্যাস: স্বাস্থ্যকর খাদ্যাভ্যাস শরীরের ওজন কমাতে কতটা জরুরি তা বলার অপেক্ষা রাখে না। আর এই কাজে প্রথম পদক্ষেপ হবে লক্ষ্যস্থির করা এবং প্রতিদিন সেই লক্ষ্য অর্জনের জন্য কাজ করে যাওয়া। অনেকেই বেহিসেবি খাওয়াদাওয়া করেন, তাই খাদ্যাভ্যাস নিয়ন্ত্রণে আনা এ ক্ষেত্রে গরুত্বপূর্ণ।

ব্যায়াম: ভারোত্তলন প্রশিক্ষণ হতে পারে এ ক্ষেত্রে কার্যকর ব্যায়াম। কারণ এই পদ্ধতিতে অনেকগুলো মাংসেপেশি একসঙ্গে প্রভাবিত হয়। এমন ব্যায়ামের একটি উৎকৃষ্ট উদাহরণ হলো বুকডন দেওয়া। বুকডন দেওয়ার সময় হাত, পিঠ, ঘাড় এবং মূল শরীরের উপর চাপ পড়ে। এই ব্যায়ামের সময় হাত যত ছড়ানো থাকবে, বুকের পেশির উপর ততই চাপ পড়বে।

ভারোত্তলনের সঙ্গে শক্তি বাড়ানোর ব্যায়াম: পেশি গড়তে চাইতে ভারোত্তলন ব্যায়ামের চাইতে ভালো উপায় নেই বললেই চলে। পেশি হচ্ছে শক্তি খরচের কোষ। তাই যত বেশি পেশি ক্যালরি খরচও তত বেশি। ‘চেস্ট প্রেস’ এবং দড়ি লাফানো হল এ ক্ষেত্রে আদর্শ।

আরও কিছু বিষয়

শুধু বুকের পেশির ওপর মনোযোগ দিলেই চলবে না, পেশি গড়তে হবে পুরো শরীরেই। এতে ‘টেস্টোস্টেরন’ হরমোনের মাত্রা বাড়বে। আর এই হরমোনের কমতিই অনেকসময় পুরুষের স্তন বৃদ্ধি পাওয়া জন্য দায়।

পুরুষের স্তন ফুলে যাওয়া, ব্যথা হওয়া, সংবেদনশীলতা, তরল বের হওয়া, বৃন্তের গড়নের পরিবর্তন আসা, শরীরের লোম কমে যাওয়া, অ-কোষে গোটা দেখা দেওয়া ইত্যাদি উপসর্গগুলোর উপর সতর্ক নজর রাখতে রাখতে হবে।

কারণ এই উপসর্গগুলো দেখা দিলেই পুরুষের স্তন বৃদ্ধি পাওয়ার বিষয়টি গুরুতর সমস্যার দিকে মোড় নিতে শুরু করে।

পাঠকের মন্তব্য: (পাঠকের কোন মন্তব্যের জন্য কর্তৃপক্ষ কোন ক্রমে দায়ী নয়)