ব্রেকিং নিউজ
বাংলা

আপডেট ৩ মিনিট ১০ সেকেন্ড

ঢাকা শুক্রবার, ৭ অগ্রহায়ণ, ১৪২৬ , হেমন্তকাল, ২৪ রবিউল-আউয়াল, ১৪৪১

নারী ও শিশু সংবাদ, রাজধানী সংবাদ ‘পড়াশোনা কইউরা আমি বড় পুলিশ অফিসার হইতে চাই, কিন্তু আমার বাবা-মায়ে গরিব’

‘পড়াশোনা কইউরা আমি বড় পুলিশ অফিসার হইতে চাই, কিন্তু আমার বাবা-মায়ে গরিব’

নিরাপদ নিউজ : কাল থেকে এক ছোট শিশুর ছবি ঘুরে বেড়াচ্ছে সোশ্যাল মিডিয়ায়। দেখা যাচ্ছে ফায়ার সার্ভিসের পানি সরবরাহের পাইপ ফুটো হয়ে পানি বেরোতে যাচ্ছে। সেখানে এক শিশু পলিথিন মুড়িয়ে চেপে ধরে আছে যাতে পানি বেরিয়ে বাইরে না যায়।

কাজটা খুব সামান্য কিন্তু এক অসহায় মুহূর্তে ছোট শিশুর এই সহায়তার মানসিকতা সোশ্যাল মিডিয়ায় বিস্ময় তৈরি করেছে।, যেখানে আত্মকেন্দ্রিক এই শহরে কেউ নিজের গায়ে সামান্য ক্ষতির দায় নিতে পারে না, সেখানে এই ছোট শিশুর সামান্য ডেডিকেশন অনেকগুলো প্রশ্ন তৈরি করে দিয়েছে। জানায় মানুষের জীবন বাঁচাতে এগিয়ে এসেছে। আজ যখন টিভিতে মানুষ মারা যাওয়ার খবর দেখে তখন দুঃখ পেয়েছে।

শিশুটির নাম নাঈম। থাকে কড়াইল বস্তিতে। আগুন লাগার সময় সেও অন্যান্যদের মতো কৌতুহলি হলে কামাল আতাতুর্ক এভিনিউয়ে আসে। যখন দেখে ফায়ার সার্ভিস কর্মীদের সহায়তা প্রয়োজন তখন সেও এগিয়ে যায়। পাইপ চেপে ধরা ছবিটি কখন তোলা হয়েছে সে নিজেও জানে না।

নাঈম বলে, আমি যখন আগুন লাগছে দেখলাম, তখন একাই চইলা আসছি। আমি ২০ মিনিটের মতো চেষ্টা করছি। পরে আমার বাপে আমারের নিয়া যায়। রাইতে আমার ছবি ইন্টারনেটে দ্যাখছে আমার বাড়িওয়ালা, সেই আমার বাবা-মায়রে দেখাইছে।

সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে নাঈম জানায় সে বড় হয়ে পুলিশ অফিসার হতে চায়। নাঈম বলে, আমি পড়ালেখা করতে চাই। অনেক পড়াশোনা কইউরা আমি বড় পুলিশ অফিসার হইতে চাই। কিন্তু আমার বাবা-মায়ে গরিব।

পাঠকের মন্তব্য: (পাঠকের কোন মন্তব্যের জন্য কর্তৃপক্ষ কোন ক্রমে দায়ী নয়)