আপডেট ৪১ মিনিট ১৭ সেকেন্ড

ঢাকা শুক্রবার, ৫ শ্রাবণ, ১৪২৬ , বর্ষাকাল, ১৫ জিলক্বদ, ১৪৪০

কৃষি, বরিশাল ফণীর প্রভাবে পানিতে ভাসছে কৃষকের স্বপ্ন

ফণীর প্রভাবে পানিতে ভাসছে কৃষকের স্বপ্ন

রহিম রেজা,  নিরাপদ নিউজ: সারা বছর ধরে কৃষকরা স্বপ্ন দেখেন বৈশাখ মাসে কর্ষ্টাজিত ফসল গোলায় তোলবে। আর সেই ফসল বিক্রি করে সার বছর বছরের খরচের অর্থ যোগাবেন। কিন্তু ঘূর্নিঝড় ফণীর প্রভাবে ঝালকাঠির রাজাপুর ও কাঁঠালিয়া উপজেলায় বিষখালী নদী তীরের চারশ ফুট বেড়িবাঁধ ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। এর ফলে সুগন্ধা ও বিষখালী নদীর পানি ঢুকে পড়ায় পাঁচশ হেক্টর জমির ফসলের ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে। ঝালকাঠি জেলার ত্রাণ ও পুনর্বাসন বিভাগ জানায়, বেড়িবাঁধ ভেঙে গেছে ও ফসলের ক্ষতি হয়েছে। তবে এখন পর্যন্ত ক্ষয়ক্ষতির সম্পূর্ণ তথ্য পাওয়া যায়নি। ক্ষতিগ্রস্ত বেড়িবাঁধ সংস্কারের দাবি জানিয়েছেন নদী তীরের বাসিন্দারা। কাঁঠালিয়ার শৌলজালিয়া গ্রামের কৃষক রমজান আলী বলেন, বিষখালী নদী তীরের বাঁধ ভেঙে পানি ঢুকে আমাদের বোরো ধানের ফসল তলিয়ে গেছে। পানি নামছে না, এতে ধান নষ্ট হয়ে যাচ্ছে। রাজাপুরের বড়াইয়া গ্রামের কৃষক মজিবুর রহমান বলেন, ধানের জমি পানিতে ডুবে আছে। এই বছর ৫০ হাজার টাকার ফসলের ক্ষতি হতে পারে। পানির মধ্য থেকে অপরিপক্ক ধান কাটাও যাচ্ছে না। ঝালকাঠির ভারপ্রাপ্ত জেলা প্রশাসক মো. দেলোয়ার হোসেন মাতুব্বর বলেন, ঘূর্ণিঝড় ফণীর প্রভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে বেড়িবাঁধ ও বোরো ফসলের। আমরা ক্ষয়ক্ষতির তালিকা প্রস্তুত করছি। জেলা প্রশাসন জানায়, ঘুর্ণিঝর ফণির প্রভাবে বোরোসহ ৪’শ হেক্টর জমির ফসল, ২৪টি কাচা ঘরবাড়ি এবং ৪০০ ফুট বেরিবাধ ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে। এছাড়া বিভিন্ন স্থানে বেশকিছু ঘের ও পুকুরের মাছ ভেসে গেছে। ঝড়ে গাছ পরে রাজাপুরের গোপালপুরে এছাহাকিয়া হোসানিয়া আলিম মাদ্রাসার একটি টিনসের্ড ঘর বিধ্বস্ত ও পালট গ্রামের জেলে রুস্তুমের বসঘর ক্ষতিগ্রস্তসহ গাছপালার ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে। জেলার বিভিন্ন স্থানে এখনও বিদ্যুৎ সরবরাহ স্বাভাবিক হয়নি। এদিকে ঘূর্নিঝড় ফনি প্রভার কমে হ্রাস পাওয়ায় জীবনযাত্রা ক্রমস স্বাভাবিক হতে শুরু করেছে। ক্ষতিগ্রস্ত বেড়িবাঁধ সংস্কারের দাবি জানিয়েছেন নদী তীরের বাসিন্দারা। ঝালকাঠির ভারপ্রাপ্ত জেলা প্রশাসক দেলোয়ার হোসেন মাতুব্বর জানান, বোরোসহ ৪’শ হেক্টর জমির ফসল, ২৪টি কাচা ঘরবাড়ি ও ৪০০ ফুট বেড়িবাধ ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে, ক্ষতিগ্রস্থদের তালিকা করে সর্বাত্মক সহযোগীতার দেয়া হয়ে বলে জানান তিনি।

পাঠকের মন্তব্য: (পাঠকের কোন মন্তব্যের জন্য কর্তৃপক্ষ কোন ক্রমে দায়ী নয়)