ব্রেকিং নিউজ
বাংলা

আপডেট জুন ৯, ২০১৯

ঢাকা বুধবার, ৩ শ্রাবণ, ১৪২৬ , বর্ষাকাল, ১৪ জিলক্বদ, ১৪৪০

বিনোদন ফলোআপ: বাবরের বাম পায়ের হাঁটুর নিচের অংশ কেটে ফেলা হয়েছে

ফলোআপ: বাবরের বাম পায়ের হাঁটুর নিচের অংশ কেটে ফেলা হয়েছে

নিরাপদ নিউজ:  দীর্ঘ সময় ধরে অসুস্থ ঢাকাই চলচ্চিত্রের জাঁদরেল খল অভিনেতা বাবর। অবশ্য অসুস্থতার অনেক আগেই থেকে ঢাকাই ছবিতে আর তাকে দেখা যাচ্ছে না। পরে নানারকম অসুস্থতা তাকে ঘিরে ধরলে পুরোপুরিই অভিনয় থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়েন। অবশ্য মাঝখানে প্রযোজক ও পরিচালক হিসেবেও আত্মপ্রকাশ করেছিলেন। অভিনয়ে যতটা সফল হয়েছিলেন প্রযোজনা কিংবা পরিচালনায় ব্যর্থতার ষোলকলা পূর্ণ করেন। ফলে চলচ্চিত্রে আর তার টিকে থাকা হলো না। অবশ্য বিষয়টা এমন নয়, অসুস্থতাও একটা কারণ। অতিমাত্রায় ডায়াবেটিসসহ নানা রোগে আক্রান্ত। এই কয় বছরে একাধিকবার তাকে হাসপাতালে ভর্তি হতে হয়েছিল। সর্বশেষ গত ৩০ এপ্রিল অসুস্থতা বেড়ে গেলে তাকে রাজধানীর গ্রীন রোডের কমফোর্ট হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। চিকিৎসা শেষে জানানো হয় গ্যাংরিনের অপারেশন করাতে হবে। এরপর ডাক্তারের পরামর্শে তার বাম পায়ের তিনটি আঙ্গুল ফেলে দেয়া হয়। কয়েকদিন হাসপাতালে থাকার পর বাবর বাসায় ফিরে যান। অবশ্য সে সময় বলেছিলেন হাসপাতালের খরচ তারপক্ষে বহন করা সম্ভব নয় বলে বাসায় ফিরে গেছেন। এদিকে গতকাল ৯জুন সকালে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন। তার সাথে যোগাযোগ করা হলে জানান, খুব খারাপ সময় যাচ্ছে আমার। আবারও হাসপাতালে ভর্তি হয়েছি। বাম পায়ে অপারেশন করে হাঁটুর নীচ পর্যন্ত কেটে ফেলার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন ডাক্তার। গতকাল রাত ৯টায় মিসেস বাবরের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান ‘এইমাত্র অপারেশন শেষ হয়েছে। ওর বাম পায়ের হাঁটুর একটু নিচ থেকে কেটে ফেলা হয়েছে। অপারেশন সফল হয়েছে। তবে পরে বিস্তারিত জানা যাবে। আমি ওর হয়ে সকলের কাছে দোয়া চাই। ওর জন্য এখন প্রচুর দোয়া দরকার।’
উল্লেখ্য বাবর বর্তমানে কমফোর্ট হাসপাতালের ৯০৩ নম্বর কেবিনে ভর্তি রয়েছেন। ডাক্তার খালেকুজ্জামান জিপুর তত্ত্বাবধানে এই অপারেশন হয়। আমজাদ হোসেনের ‘বাংলার মুখ’ চলচ্চিত্রে নায়ক হিসেবে বাবরের আগমন ঘটে। খলনায়ক হিসেবে যাত্রা শুরু হয় নায়করাজ রাজ্জাক প্রযোজিত ও জহিরুল হক পরিচালিত ‘রংবাজ’ চলচ্চিত্র দিয়ে। এরপর প্রায় তিন শতাধিক চলচ্চিত্রে অভিনয় করেছেন তিনি।

পাঠকের মন্তব্য: (পাঠকের কোন মন্তব্যের জন্য কর্তৃপক্ষ কোন ক্রমে দায়ী নয়)