ব্রেকিং নিউজ
বাংলা

আপডেট অক্টোবর ২১, ২০১৯

ঢাকা সোমবার, ৩ অগ্রহায়ণ, ১৪২৬ , হেমন্তকাল, ১৯ রবিউল-আউয়াল, ১৪৪১

রংপুর, সড়ক সংবাদ ফুলবাড়ী’র গ্রামীণ রাস্তার বেহাল দশা, ভোগান্তি চরমে

ফুলবাড়ী’র গ্রামীণ রাস্তার বেহাল দশা, ভোগান্তি চরমে

ফুলবাড়ী (দিনাজপুর) , নিরাপদনিউজ : দিনাজপুরের ফুলবাড়ীতে দির্ঘদিনধরে গ্রামীণ রাস্তাগুলো বেহাল অবস্থায় পড়ে থাকলেও সংস্কারের কোনো উদ্যোগ নেয়া হয়নি। ফলে চলতি বর্ষায় রাস্তার ইট উঠে গিয়ে চলাচলের অনুপযোগী হয়ে পড়েছে। এতে করে চরম ভোগান্তির শিকার হচ্ছে স্কুলগামী শিক্ষার্থীসহ এসব এলাকা দিয়ে চলাচলরত সাধারণ মানুষ।

সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, উপজেলা শহর থেকে বেতদিঘী ইউনিয়নের মাদিলাহাট বাজার চিন্তামন হয়ে আটপুকুর,পুকুরীহাট ও খয়েরবাড়ী ইউনিয়নের খয়েরবাড়ী বাজার যাওয়ার রাস্তাগুলো বেশীরভাগ জায়গায় গর্ত তৈরী হবার কারণে স্কুল-কলেজগামী শিক্ষার্থীসহ প্রতিদিন উপজেলা শহরের যাতায়াত করা হাজারও মানুষ ঝুকি নিয়েই চলাচল করছে ।

এমন চিত্র শুধু যে গ্রামীণ রাস্তায় তা নয় উপজেলা সদরের প্রায় রাস্তায় একই চিত্র দেখা গেছে। উপজেলার খয়েরবাড়ী ইউনিয়নের কৃষ্ণপুর-খয়েরবাড়ী রাস্তাটি দীর্ঘদিন ধরে কোন সংস্কার না করায় রাস্তার দু’পাশ ভেঙ্গে রাস্তা সংকীর্ণ হয়ে গেছে,বর্ষার কারণে রাস্তার মাঝখান গুলোতে তৈরী হয়েছে বড়বড় গর্ত। গর্তের কারণে ছোট-ছোট অটোবাইক,টেম্পুতে করে চলাচলরত শিক্ষার্থীসহ সাধারণ মানুষ প্রায়ই দূর্ঘটনার শিকার হচ্ছে। একই চিত্র উপজেলা শহর থেকে চিন্তামন হয়ে মাদিলাহাট বাজার,বঙ্গবন্ধু কলেজ হয়ে আটপুকুর,পুকুরীহাট যাওয়ার বেশীরভাগ রাস্তার।

অথচ ফুলবাড়ী উপজেলার বেশীরভাগ প্রতিষ্ঠান এসব এলাকায় গড়ে উঠলেও চলাচলের অনুপোযোগী এসব রাস্তা সংস্কারের কোন উদ্দ্যেগ এখন পর্যন্তু দেখা যায়নি। এসব এলাকায় চলাচলরত মানুষের দাবী দীর্ঘদিন এভাবে পড়ে থাকলেও সংস্কারের উদ্যোগ তো দুরের কথা খোঁজও নেয়নি উপজেলা এলজিইডি কর্তৃপক্ষ।

তবে এলাকার চেয়ারম্যানসহ স্থানীয় রাজনৈতিক নেতাদের কাছে ধরণা দিয়েও কোন কাজ না হওয়ায় চলাচলের অযোগ্য কৃষ্ণপুর থেকে খয়েরবাড়ী বাজারে যাওয়ার রাস্তাটিতে মাটি দিয়ে স্বেচ্ছাশ্রমের মাধ্যমে গর্ত পূরণের কাজ করেছেন খয়েরবাড়ী বাজার বয়েজ ক্লাবের কিছু স্বেচ্ছাসেবী যুবক। কিন্তু অতিরিক্ত বৃষ্টিপাতের কারণে সে মাটিও ধুয়ে গেছে,ফলে ভোগান্তির শেষ হচ্ছেনা গ্রামীণ রাস্তায় চলাচলরত মানুষগুলোর।

খয়েরবাড়ী ইউপি চেয়ারম্যান আবু-তাহের এর সাথে কথা বললে তিনি বলেন,শিউলি ট্রেডাস নামে এক ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান ২বছর আগে টেন্ডারের মাধ্যমে লালপুর এবং খয়েরবাড়ী বাজারের সড়কের কাজ পেলেও ব্যাক্তীগত সমস্যার কারনে সড়কের কাজ সম্পন্ন না করে চলে যান। সে কারনেই এলাকার মানুষের চরম দুভোর্গ পোহাতে হচ্ছে। তবে উপজেলা প্রকৌশলী শহিদুজ্জামানের সাথে কথা হয়েছে,তিনি খুব শিঘ্রই ব্যাবস্থা নেবেন।

স্থানীয়রা জানান, রাস্তাগুলো অনেকদিন ধরে এমন বেহাল দশায় পড়ে থাকলেও স্থানীয় জনপ্রতিনিধি বা উপজেলার কোনো কর্মকর্তা খোঁজ নেয়নি। বারবার মৌখিক ও লিখিত আবেদন করলেও কোনো কাজ হয়নি।

আমরা শুনেছি ৪০ দিনের কর্মসূচি কাজে রাস্তায় মাটি ফেলা হয়। কর্মসূচির প্রকল্পেও যদি এই রাস্তাগুলোতে মাটি ফেলা হত তাহলে মানুষের ভোগান্তি কম হত। এসব রাস্তায় এখন যানবাহন তো দুরের কথা মানুষই হাটতে পারে না। খয়েরবাড়ী ইউপির মুক্তার পুর গ্রামের আজাহার আলী বলেন,,ট্রলি চলাচলের কারনেই রাস্তাগুলো বেহালদশা হয়েছে।

এ বিষয়ে উপজেলা প্রকৌশলী (এলজিইডি) শাহিদুজ্জামান জানান, আমবাড়ী হয়ে আটপুকুর, চিন্তামন, মাদিলাহাট পর্যন্ত এবং ফুলবাড়ী থেকে খয়েরবাড়ী বাজার পর্যন্ত রাস্তা সংস্কারের প্রস্তাবনা অনেক আগেই মন্ত্রণালয়ে পাঠানো হয়েছে খুব শীঘ্রই এই রাস্তাগুলোর সংস্কারের কাজ শুরু হবে।

পাঠকের মন্তব্য: (পাঠকের কোন মন্তব্যের জন্য কর্তৃপক্ষ কোন ক্রমে দায়ী নয়)