আপডেট ২ মিনিট ৩২ সেকেন্ড

ঢাকা মঙ্গলবার, ২৫ অগ্রহায়ণ, ১৪২৬ , হেমন্তকাল, ১২ রবিউস-সানি, ১৪৪১

পরিবেশ, লিড নিউজ বন্যা দুর্গত জেলায় পানিতে ডুবে ও সাপের কামড়ে মৃত্যু আতঙ্ক!

বন্যা দুর্গত জেলায় পানিতে ডুবে ও সাপের কামড়ে মৃত্যু আতঙ্ক!

নিরাপদনিউজ: বন্যা দুর্গত দেশের ৯ জেলায় পানিতে ডুবে ও সাপের কামড়ে মৃত্যু আতঙ্ক বিরাজ করছে। গত এক সপ্তাহে (১০ থেকে ১৭ জুলাই) এসব জেলায় পানিতে ডুবে, সাপের কামড় ও বজ্রপাতে মোট ২৫ জনের মৃত্যু হয়েছে। তাদের মধ্যে সর্বোচ্চ ১৮ জনের মৃত্যু হয়েছে পানিতে ডুবে। এর মধ্যে শিশুর সংখ্যাই বেশি। এ ছাড়া বজ্রপাতে পাঁচ ও সাপের কামড়ে দুজন মারা গেছেন।

স্বাস্থ্য অধিদফতরের হেলথ ইমার্জেন্সি অপারেশন সেন্টার ও কন্ট্রোল রুম সূত্র এসব তথ্য জানিয়েছে।

স্বাস্থ্য অধিদফতরের সহকারী পরিচালক আয়েশা আক্তার জানান, বর্তমানে দেশের লালমনিরহাট, নেত্রকোনা, নীলফামারী, চট্টগ্রাম, সুনামগঞ্জ, কক্সবাজার, কুড়িগ্রাম,জামালপুর ও গাইবান্ধাসহ মোট ৯টি জেলাকে বন্যা দুর্গত হিসেবে ঘোষণা করা হয়েছে। বন্যার পানিতে বাড়ি-ঘর ডুবে যাওয়ায় বর্তমানে ওসব এলাকায় মানুষের মধ্যে পানিতে ডুবে ও সাপের কামড়ে হতাহত হওয়ার মহা আতঙ্ক তৈরি হয়েছে।

যে ১৮ জন পানিতে ডুবে মারা গেছে তারা হলো- লালমনিরহাটের মোহিত আলম (৭) ও সুজন (১৩), নেত্রকোনার সুইটি আক্তার (৬), রাফিয়া আক্তার (৬), আকলিমা (১৪), আরাফাত (৫), তামান্না(৭), নীলফামারীর মাহি (১ বছর ৬ মাস), চট্টগ্রামের ইমাম হোসেন (৮), কক্সবাজারের রিয়াজ উদ্দিন (১৯), কুড়িগ্রামের হাবিবুল্লাহ (৬), হাসানুল (৯ মাস), বিথী (১০), জামালপুরের সাইমন (৭), ইয়ামুল (২ বছর ৩ মাস), মমিন (৩) ও সাদিয়া ও গাইবান্ধায় আনারুল (৩২)।

সাপের কামড়ে লালমনিরহাটের হাফিজুল হক (১৫), ও নীলফামারী মোরশেদা (৩২) মারা যান। বজ্রপাতে নেত্রকোনার এনামুল (১৮), শান্ত মিয়া (৩৫), সুনামগঞ্জের তারা মিয়া (১২), মো. হরিদুল (৫০) এবং গাইবান্ধার সাইফুলের (৫৫) মৃত্যু হয়।

পাঠকের মন্তব্য: (পাঠকের কোন মন্তব্যের জন্য কর্তৃপক্ষ কোন ক্রমে দায়ী নয়)