আপডেট ২ মিনিট ২ সেকেন্ড

ঢাকা শনিবার, ৯ ভাদ্র, ১৪২৬ , শরৎকাল, ২২ জিলহজ্জ, ১৪৪০

ফ্যাশন বলিরেখা, ব্রণ ও ডার্ক সার্কেল দূর করতে

বলিরেখা, ব্রণ ও ডার্ক সার্কেল দূর করতে

বলিরেখা, ব্রণ ও ডার্ক সার্কেল দূর করতে

বলিরেখা, ব্রণ ও ডার্ক সার্কেল দূর করতে

১৩ সেপ্টেম্বর ২০১৫, নিরাপদনিউজ : ভাবছেন অনেক দামি দামি পণ্য ব্যবহার করে তৈরি হবে এই ফেসমাস্ক? একদম নয়। বরং এমনই তিনটি সহজ উপাদান দিয়ে এই জাদুকরী ফেসপ্যাকটি তৈরি হবে যা আছে আপনার রান্নাঘরেই। রাসায়নিকযুক্ত দামি দামি ক্রিম বা ফেসওয়াশ ব্যবহার করলেই যে আপনি সুন্দর থাকবেন, এর কোনো গ্যারান্টি নেই।

বরং এসব উপাদান সাময়িকভাবে আপনাকে সুন্দর করে তুললেও পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া দেখায় অনেক বেশী। চিন্তার কিছু নেই, প্রকৃতিতেই লুকিয়ে আছে আমাদের সকল স্বাস্থ্য ও সৌন্দর্য সমস্যার সমাধান। আর প্রকৃতির সেই অফুরন্ত ভান্ডার থেকে দারুণ একটি কৌশল নিয়ে এলাম আজ আমরা।
সৌন্দর্য সেটাই, যা ত্বকের ভেতর থেকে প্রস্ফুটিত হয়। দামি ক্রিম, স্কিন ট্রিটমেন্ট বা ভারি মেকআপ ছাড়াই ধরে রাখতে চান বয়স? তা হলে এই ফিচারটি আপনার জন্যই। এই ফেসমাস্ক নিয়মিত ব্যবহারে কেবল আপনার ত্বকের বলিরেখাই দূর হবে না, কমবে ব্রণের সমস্যা, দূর হবে চোখের নিচের ডার্ক সার্কেল।

এছাড়াও যাদের ত্বক তৈলাক্ত, নিয়মিত ব্যবহারে ত্বকের তেলতেলে ভাবটাও একেবারেই দূরীভূত হবে। এছাড়াও উজ্জ্বল হবে আপনার ত্বকের রঙও। তা হলে আর দেরি কেন, চলুন শিখে নিই ফেসপ্যাকটি তৈরি ও ব্যবহার করার কৌশল।
যা যা লাগবে
১ চা চামচ হলুদ গুঁড়ো (প্যাকেটের গুঁড়ো ব্যবহার না করে ঘরে হলুদ শুকিয়ে গুঁড়ো তৈরি করে নিন)
১ চা চামচ টক দই (এক্ষেত্রেও ঘরে পাতা দই হলে ভালো)
১ চা চামচ খাঁটি মধু
প্রণালি ও ব্যবহারবিধি
-হলুদ গুঁড়ো ও টক দই ভালো করে মিশিয়ে নিন। মেশানো হয়ে গেলে মধু যোগ করুন।
-মিশ্রণটি মুখে ও গলায় সমানভাবে মেখে নিন। ২০ থেকে ৩০ মিনিট অপেক্ষা করুন।
-৩০ মিনিট পর উষ্ণ পানি দিয়ে মুখ ধুয়ে নিন।
-ভালো ফলাফল পেতে সপ্তাহে ৩ থেকে ৪ বার নিয়মিত ব্যবহার করুন।
-এই মাস্কটি কখনো আগে তৈরি করে রাখবেন না। যখন ব্যবহার করবেন, ঠিক তখনই তৈরি করুন।
হলুদে আছে স্বাস্থ্য ও ত্বকের সুরক্ষায় অসাধারণ সব গুণাবলী। এরantimicrobial, astringent, antioxidant, moisturizing I anti-aging গুণাবলী যখন মধু ও টক দইয়ের মতো অনন্য উপাদানের সাথে মিলে যায়, তখন তা আপনার ত্বকের জন্য দীর্ঘমেয়াদী ফলাফল প্রদান করে। বলিরেখা তো দূর হয়ই, সাথে আপনার ত্বকের অন্যান্য অনেক সমস্যা দূর হয়ে ত্বক হয়ে ওঠে স্বাস্থ্য উজ্জ্বল। একই সাথে ত্বকের দাগছোপ দূর হয়ে রঙটাও ফর্সা হয়ে ওঠে।

পাঠকের মন্তব্য: (পাঠকের কোন মন্তব্যের জন্য কর্তৃপক্ষ কোন ক্রমে দায়ী নয়)