ব্রেকিং নিউজ
বাংলা

আপডেট ৩ সেকেন্ড

ঢাকা মঙ্গলবার, ১১ই বৈশাখ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ , গ্রীষ্মকাল, ৯ই শাবান, ১৪৩৯ হিজরী

ক্রিকেট বসে থাকতে হয় গেইলকেও!

বসে থাকতে হয় গেইলকেও!

বসে থাকতে হয় গেইলকেও!

১৭ এপ্রিল, ২০১৭, নিরাপদনিউজ : টি-টোয়েন্টি ক্রিকেট মানেই ক্রিস গেইল। আর গেইল ক্রিজে থাকা মানেই ব্যাটে ঝড়। কিন্তু, টি-টোয়েন্টির ফেরীওয়ালা খ্যাত ওয়েস্ট ইন্ডিজের ড্যাশিং ওপেনার ক্রিস গেইলকেও এখন তার প্রিয় ফরমেটে বসে থাকতে হচ্ছে।

আইপিএলের গতবারের রানার্সআপ রয়েল চ্যালেঞ্জার্স বেঙ্গালুরু তাকে কখনো মাঠে নামাচ্ছে আবার কখনো সাইডবেঞ্চে বসিয়ে রাখছে।

তবে গেইলকে আরও সুযোগ দেয়া উচিত বলে মনে করেন ধারাভাষ্যকার রবি শাস্ত্রী। ভারতীয় সংবাদমাধ্যমে সাবেক এই ক্রিকেটার জানিয়েছেন, ক্যারিবীয়ান এই হার্ডহিটার যেমন ফর্মেই থাকুক না কেন, তাকে খেলার সুযোগ দেওয়া উচিৎ কোহলি-ডি ভিলিয়ার্সদের।

রবি শাস্ত্রী জানান, ‘দু’টো হোম ম্যাচের একটা দিবারাত্রির আর একটা রাতের ম্যাচ ছিল। আগের ম্যাচটায় দেখেছি বল ভালো ব্যাটে আসছে না। যা ক্রিস গেইলের কাছে মোটেই কাক্সিক্ষত জিনিস নয়। তার এমন পিচ দরকার যেখানে বাউন্সটা সমান থাকবে আর বল ভালো ব্যাটে আসবে। শুধু গেইল কেন, বেঙ্গালুরুর টপ-অর্ডারও সে রকমই পিচ পছন্দ করে। তবে একটা কথা বলতে চাই। পিচ যে রকমই হোক বা ওয়েস্ট ইন্ডিয়ান ওপেনার যে রকম ফর্মেই থাকুক না কেন, গেইলকে একাদশে আরও সুযোগ দেয়া উচিত।’

এবারের আইপিএলে জ¦লে উঠেনি গেইলের ব্যাট। পয়েন্ট তালিকায় এখন একেবারে তলানীতে তার দল। ফর্মহীনতা আর দল থেকে বাদ পড়ার কারণে প্রথম ব্যাটসম্যান হিসেবে টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটে ১০ হাজার রানের মাইলফলক ছোঁয়ার অপেক্ষাটা বাড়ছেই গেইলের।

আইপিএল শুরু করেছিলেন মাইলফলক থেকে ৬৩ রান দূরে থেকে। কিন্তু তিন ম্যাচে ব্যাট হাতে নামার সুযোগ পেয়েও এই অল্প ক’টা রান করতে পারেননি গেইল। মাইলফলক ছোঁয়া থেকে এখনও আরও ৩ রান দূরে।

বেঙ্গালুরু এখন পর্যন্ত খেলেছে ৫টি ম্যাচ, যেখানে চারটিতেই হেরেছে। আর ৫ ম্যাচের দুটিতেই বসে থাকতে হয় গেইলকে। সুযোগ পাওয়া তিন ম্যাচের প্রথমটিতে বর্তমান চ্যাম্পিয়ন হায়দ্রাবাদের বিপক্ষে করেছিলেন ২১ বলে দুটি চার আর তিনটি ছক্কায় ৩২ রান। পরের ম্যাচে সুযোগ পেয়ে দিল্লির বিপক্ষে ৮ বলে ৬ রান। আর নিজের তৃতীয় ম্যাচে মুম্বাই ইন্ডিয়ান্সের বিপক্ষে ২৭ বলে দুটি চার আর একটি ছক্কায় করেন ২২ রান।

পাঠকের মন্তব্য: (পাঠকের কোন মন্তব্যের জন্য কর্তৃপক্ষ কোন ক্রমে দায়ী নয়)