ব্রেকিং নিউজ
বাংলা

আপডেট ডিসেম্বর ১, ২০১৪

ঢাকা মঙ্গলবার, ২ শ্রাবণ, ১৪২৬ , বর্ষাকাল, ১২ জিলক্বদ, ১৪৪০

জাতীয় বাংলাদেশ-ভারত সীমান্ত চুক্তিতে কংগ্রেসেরও তাগিদ

বাংলাদেশ-ভারত সীমান্ত চুক্তিতে কংগ্রেসেরও তাগিদ

বাংলাদেশ-ভারত সীমান্ত

বাংলাদেশ-ভারত সীমান্ত

০১ ডিসেম্বর, নিরাপদনিউজ : বাংলাদেশ-ভারত সীমান্ত চুক্তি আমলে নিলো ভারত সরকার। সোমবার ভারতের সংসদীয় কমিটির এক প্রতিবেদনের পর সরকারকে বাংলাদেশের সঙ্গে সীমান্ত চুক্তি আমলে নেয়ার আহ্বান জানায় দেশটির প্রধান বিরোধীদল কংগ্রেস।
কংগ্রেস নেতা সাবেক মন্ত্রী শশী থারুর জানান, সংসদের উভয় কক্ষেই ১১৯তম সংশোধনীতে সীমান্ত চুক্তির ব্যাপারটি সর্বসম্মতভাবে গৃহীত হয়।
তিনি বলেন, অত্যন্ত আনন্দের সঙ্গে জানাচ্ছি যে লোকসভায় বাংলাদেশের সঙ্গে সীমান্ত চুক্তি বিষয়ে সংবিধানের ১১৯তম সংশোধনীর প্রস্তাব গৃহীত হয়।
এখন শুধু নতুন সরকারের যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহণ প্রয়োজন বলেও জানান তিনি।
লোকসভায় কংগ্রেস, বিজেপি এবং টিএমসি সদস্যদের উপস্থিতিতে পাঁচটি মিটিং হয়। তারা সকলেই তাদের মতামত ব্যক্ত করেন।
স্বরাষ্ট্র ও পররাষ্ট্র সচিব ও পশ্চিমবঙ্গ সরকারের প্রতিনিধিরাও এ বিষয়ে এক প্রতিবেদন উপস্থাপন করেন বলে জানান শশী থারুর।
রোববার দেশটির প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি জানান, দীর্ঘমেয়াদী নিরাপত্তার স্বার্থে ভারত সরকার বাংলাদেশের সঙ্গে সীমান্ত চুক্তি করতে চায়।
শশী থারুর আরো জানান, বিজেপি বিরোধী দল থাকার সময় এই প্রস্তাবের বিরোধীতা করে। কিন্তু তারা এখন ক্ষমতায় গিয়ে এর স্বপক্ষে কথা বলছে।
গত ডিসেম্বরে সংসদে এ বিল উত্থাপন করা হয়। তৃণমূল কংগ্রেস এবং আসাম গণ পরিষদের সদস্যরা তখন পররাষ্ট্র মন্ত্রী সালমান খুরশীদের কাছ থেকে এ আইনের খসড়া কপিটি ছিনিয়ে নেয়ার চেষ্টা করেন।
পরে এটি স্থায়ী কমিটির কাছে স্থানান্তর করা হয়।
১৯৭৪ সালের ইন্দো-বাংলা চুক্তি কার্যকরেই প্রস্তাবটি সংবিধানের প্রথম তফসিলে সংশোধন করা হয়।
১৯৭৪ সালে ইন্দিরা-মুজিব এর করা ‘এলবিএ’ (ল্যান্ড বাউন্ডারি এগ্রিমেন্ট) চুক্তিটি পাকাপোক্ত করাই প্রস্তাবিত আইনটির মূল উদ্দেশ্য।
নতুন চুক্তিমতে ভারত বাংলাদেশকে ১১১টি ছিটমহল দেবে যার আয়তন প্রায় ১৭ হাজার ১৬০ একর। অপরদিকে ৫১টি ছিটমহল তাদের এলাকায় অন্তর্ভুক্ত করবে তারা। এসকল ছিটমহলে প্রায় ৫১ হাজার মানুষ বসবাস করে। ছিটমহলগুলো আসাম, পশ্চিমবঙ্গ, মেঘালয়া এবং ত্রিপুরায় অবস্থিত।-জিনিউজ
এনএন/সোমবার/জাতীয়/মিলটন

পাঠকের মন্তব্য: (পাঠকের কোন মন্তব্যের জন্য কর্তৃপক্ষ কোন ক্রমে দায়ী নয়)