ব্রেকিং নিউজ
বাংলা

আপডেট ৩ মিনিট ২ সেকেন্ড

ঢাকা সোমবার, ৭ শ্রাবণ, ১৪২৬ , বর্ষাকাল, ১৮ জিলক্বদ, ১৪৪০

বরিশাল বাউফলে একটি বিদ্যুতের খুটি সরাতে ধার্য্য করা হয়েছে ১ লাখ ৬৭ হাজার ৪শ’ ৮৯ টাকা..!

বাউফলে একটি বিদ্যুতের খুটি সরাতে ধার্য্য করা হয়েছে ১ লাখ ৬৭ হাজার ৪শ’ ৮৯ টাকা..!

কামরুল হাসান,নিরাপদ নিউজ:  পল্লী বিদ্যুতের একটি খুটি সরাতে আবেদনকারী কাছে ১ লাখ ৬৭ হাজার ৪শ’ ৮৯ টাকা ধার্য্য করা হয়েছে! ওই আবেদনকারীর নাম মোঃ তুহিন, বাবার নাম মোঃ ইদ্রিস গোলদার, বাউফলের নাজিরপুর ইউনিয়নের বড় ডালিমা গ্রামে তার বাড়ি। তুহিন অভিযোগ করেন, তার বাড়ি সামনে বাংলাবাজার টু বড় ডালিমা সড়কের দক্ষিন পাশে একটি জমিতে ১০ ফুট ভিতরে পল্লী বিদ্যুতের খুুটি স্থাপন করা হয়েছে। ওই জমিতে তিনি একটি মসজিদ ও মাদ্রাসা করবেন। এ কারণে খাম্বাটি ওই জায়গা থেকে সড়কের পাশে স্থানান্তর করতে চলতি বছর ৫ মার্চ পল্লী বিদ্যুতের বাউফল জোনাল অফিসে একটি আবেদ করেন এবং এক হাজার ৭শ’ ২৫ টাকা জমা দেন।

 

৬ মে পটুয়াখালী পল্লী বিদ্যুতের সহকারী জেনারেল ম্যানেজার (স.সেবা) স্বাক্ষরিত একটি পত্র তার কাছে পাঠানো হয়। (স্মারক নং পপবিস/৩০০.১৫/৪২০) ওই পত্রে তার কাছে খুটিটি স্থানান্তরের জন্য ১ লাখ ৪৩ হাজার ১শ’৫৩ টাকা, ভ্যাট ১৫ পার্সেন্ট ২১ হাজার ৪শ’ ৭৩ টাকা ও ট্যাক্স ২ পার্সেন্ট ২ হাজার ৮শ’৬৩ টাকাসহ মোট ১ লাখ ৬৭ হাজার ৪শ’ ৮৯ টাকা ধায্য করা হয়। ওই টাকা জমা দেয়ার জন্য তাকে বলা হয়েছে।

আবেদনকারী একটি খুটি স্থানান্তরের জন্য এত টাকার বিল দেখে হতভম্ব হয়ে যান। তিনি বলেন, যেখানে সরকার বিনা খরচে বিদ্যুৎ সংযোগ দিচ্ছেন, খুটি স্থাপন করছেন। সেখানে একটি খুটি স্থানান্তরের জন্য ১ লাখ ৬৭ হাজার ৪শ’ ৮৯ টাকা বিল করার কোন যৌক্তিকতা নেই।

এ ব্যাপারে পটুয়াখালী পল্লী বিদুতের জেনারেল ম্যানেজার মনোহর কুমার বিশ্বাস ঘটনাটি শুনে তিনিও বিস্মিত হয়ে বলেন, এত টাকা কেন ধরা হবে! আমি খোঁজ নিয়ে দেখব। ডিজাইন দেখব। এর সাথে অন্যান্য কোন বিষয় জড়িত আছে কিনা তাও দেখব।

পাঠকের মন্তব্য: (পাঠকের কোন মন্তব্যের জন্য কর্তৃপক্ষ কোন ক্রমে দায়ী নয়)