ব্রেকিং নিউজ
বাংলা

আপডেট ৯ মিনিট ১৯ সেকেন্ড

ঢাকা সোমবার, ৩ আষাঢ়, ১৪২৬ , বর্ষাকাল, ১৩ শাওয়াল, ১৪৪০

বরিশাল বাউফলে চলার পথ বন্ধ করে দেয়ায় নয়টি পরিবার গৃহবন্ধী

বাউফলে চলার পথ বন্ধ করে দেয়ায় নয়টি পরিবার গৃহবন্ধী

কামরুল হাসান,নিরাপদনিউজ: জমি সংক্রান্ত বিরোধের জেরে প্রতিবেশীদের ঘর থেকে বের হওয়ার একমাত্র রাস্তাটি আটকে দেয়ার জন্য ওই রাস্তার মধ্যেই খোড়া হয়েছে বিশালাকৃতির একটি গর্ত, এরপর গর্ত ঘেষেই তোলা হয়েছে একটি টিনের ঘর। এখানেই শেষ নয় এরপর দেয়া হয়েছে বাঁশ আর কাটাতাঁরের বেড়া।

পটুয়াখালীর বাউফলের নওমালা ইউনিয়নের পূর্ব নওমালা গ্রামের আব্বাস হাওলাদার বাড়ির ৯টি পরিবারের সদস্যদের বাড়ি থেকে বের হওয়ার একমাত্র রাস্তাটি বন্ধ করে দিতে এভাবেই একের পর এক প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি করে রেখেছেন প্রতিবেশী মো. ইউসুফ হাওলাদার নামে এক ব্যক্তি।

তরিকুল ইসলাম হাওলাদার নামে ওই বাড়ির এক সদস্য অভিযোগ করেন, আমাদের পাঁচ অংশীদারের জমির উপর দিয়ে প্রায় শত বছরের পুরনো ওই রাস্তাটি দিয়ে আমরা চলাচল করতাম। কিন্তু সম্পূর্ন গায়ের জোরে ওই পথটি বন্ধ করে দিয়েছে ইউসুফ হাওলাদার। মেইন রাস্তায় ওঠার এই পথটি এভাবে বন্ধ করে দেয়ায় ছেলে মেয়েদের স্কুলে যেতে কষ্ট হচ্ছে। ঘরের মেয়ে ছেলেরা পুকুরে যেতে পারছেনা।

সব মিলিয়ে আমরা ৯টি পরিবারের প্রায় শতাধিক সদস্য মানবেতর জীবন যাপন করছি। এ বিষয়ে জানতে চাইলে ইউসুফ হাওলাদার বলেন, ওই জমি আমার। ওই জমি নিয়ে দীর্ঘদিন ধরে দুইটি মামলা চলার পর আমি দুই মামলাতেই আদালতের রায় পেয়েছি। রায় পাওয়ার পর আমি আমার জায়গার দখল বুঝে নিয়েছি। আর তাছাড়া বাড়িতে আসা যাওয়ার জন্য আরো আরো বিকল্প পথ রয়েছে।

নওমালা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান শাহজাদা হাওলাদার ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, বিষয়টি মিমাংসা করার জন্য অমি একাধিকবার চেষ্টা করেছি কিন্তু ইউসুফ হাওলাদারের একঘেয়ামী মনোভাবের কারনে এর সুরাহা করতে পারি নাই।

এবিষয়ে বাউফল উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা পিজুস চন্দ্র দের দৃষ্টি আকর্ষন করা হলে তিনি বলেন, এ বিষয়ে অভিযোগ পেলে বিষয়টির আইনগত ভাবে নিস্পত্তির করার চেষ্টা করবো।

পাঠকের মন্তব্য: (পাঠকের কোন মন্তব্যের জন্য কর্তৃপক্ষ কোন ক্রমে দায়ী নয়)