ব্রেকিং নিউজ
বাংলা

আপডেট ৪৪ সেকেন্ড

ঢাকা বুধবার, ১৩ আষাঢ়, ১৪২৬ , বর্ষাকাল, ২৩ শাওয়াল, ১৪৪০

সংগঠন সংবাদ বাজেট ততটা দারিদ্র্যবান্ধব হয়নি: এস এম আজাদ হোসেন

বাজেট ততটা দারিদ্র্যবান্ধব হয়নি: এস এম আজাদ হোসেন

নিরাপদনিউজ:  গতকাল শনিবার  প্রত্যাশা ২০২১ ফোরাম আনুষ্ঠানিকভাবে ২০১৮-২০১৯ সালের বাজেটের ওপর প্রতিক্রিয়া জানিয়েছে। বিকেলে সংগঠনের কার্যালয় লালমাটিয়ায়।প্রত্যাশা ২০২১ ফোরাম এর চেয়ারম্যান এস এম আজাদ হোসেন এতে সভাপতিত্ব করেন।বাজেট ততটা দারিদ্র্যবান্ধব হয়নি বলে মনে করে সংগঠনটি।

সদস্য সচিব রুহী দাস এর সঞ্চালনায় বাজেট প্রতিক্রিয়ায় অন্যান্যের মধ্যে অংশ গ্রহন করেন প্রতিষ্ঠাতা সদস্য সচিব ও নির্বাহী সদস্য আতাউর রহমান মিটন, সহ-সাধারণ সম্পাদক আসমা আক্তার, নির্বাহী সদস্য মোস্তারী বেগম প্রমুখ।

এরপর সরাসরি ফেসবুক লাইভে চেয়ারম্যান এস এম আজাদ হোসেন দেশবাসীর সামনে ২০১৮-২০১৯ সালের প্রস্তাবিত বাজেটের ওপর প্রত্যাশা ২০২১ ফোরাম এর প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করেন।তিনি বলেন, বাজেট ততটা দারিদ্র্যবান্ধব হয়নি। তিনি বলেন প্রত্যাশা ২০২১ ফোরাম এর মূল লক্ষ্য হলো ‘২০২১ সালে স্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তী উদযাপিত হোক দারিদ্র্যমুক্ত বাংলাদেশে’ এ লক্ষ্যে ২০০৫ সাল থেকে ফোরাম সরকারের সংশ্লিষ্ট দপ্তর সমূহে দারিদ্র্যমুক্তির কার্যকরি উদ্যোগ নিতে অনুঘটকের কাজ করে যাচ্ছে। দারিদ্র্য বিমোচনে ‘ইউনিয়ন ভিত্তিক পরিকল্পনা’র কথা ফোরাম প্রথম থেকেই বলে আসছে। তিনি বলেন মাননীয় অর্থমন্ত্রীকে ধন্যবাদ তিনি সর্বাধিক বাজেট পেশ করেছেন।তিনি বলেন দেশে বিনিয়োগ বেড়েছে,মাথাপিছু আয় বেড়েছে,আমদানী-রফতানী বেড়েছে,প্রবাসী আয় বেড়েছে, বৈদেশিক মুদ্রার রিজার্ভ বেড়েছে।

তিনি বলেন, বাজেটে সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারিদের আবাসন ঋণ সুবিধা বৃদ্ধি,সামাজিক নিরাপত্তার আওতা বৃদ্ধি, ব্যাংকিং খাতে কর্পোরেট কর কমানো হয়েছে।অর্থমন্ত্রীর ভাষ্যমতে দেশে দারিদ্রতা ৩৬ শতাংশ থেকে কমে ২৪ শতাংশে এসেছে। ফোরাম চেয়ারম্যান আশংকা প্রকাশ করে বলেন পরবর্তী ৩ বছরে দেশ দারিদ্র্যমুক্ত হবে কী করে?

তিনি বলেন, বাজেটে কর্মসংস্থানের বিষয়ে বাজেটে কোন দিকনির্দেশনা নেই,ফলে তরুন সমাজের মাঝে ক্ষোভ ও হতাশা বাড়বে।মধ্যবিত্তের ওপর চাপ বাড়বে বলেও তিনি মন্তব্য করেন।তিনি বলেন, বাড়ি ভাড়া বাড়বে,পরিবহণ খরচ বাড়বে,পোশাক ক্রয়ে খরচ বাড়বে, ফ্ল্যাট কিনতেও খরচ বাড়বে।

তিনি বলেন, প্রত্যাশা ২০২১ ফোরামের মূল লক্ষ্য ২০২১ সালের মধ্যে দেশ দারিদ্র্যমুক্ত হোক।এ ব্যাপারে আমরা সরকারের সুনির্দিষ্ট পরিকল্পনার কথা জানতে চাই। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী বলেছেন,জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকী উদযাপিত হবে দারিদ্র্যমুক্ত বংলাদেশে’ আমরা গভীর আগ্রহ নিয়ে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর এ ঘোষণার বাস্তবায়নের দিকে তাকিয়ে আছি।

লাইভে সদস্য সচিব রুহী দাস,প্রতিষ্ঠাতা সদস্য সচিব ও নির্বাহী সদস্য আতাউর রহমান মিটন, সহ-সাধারণ সম্পাদক আসমা আক্তার, নির্বাহী সদস্য মোস্তারী বেগম প্রমুখ অংশ নেন। এছাড়া আরো উপস্থিত ছিলেন আঞ্জুমান আরা, সোহেল রানা, বদিউজ্জামান তোতা,কোহিনুর রীতা,মোঃ সাহেদুর রহমান, এ কে এম পলাশ জয়, রাশেদুল ইসলাম রাশেদ,আনিকা আসলাম প্রমুখ।

পাঠকের মন্তব্য: (পাঠকের কোন মন্তব্যের জন্য কর্তৃপক্ষ কোন ক্রমে দায়ী নয়)