আপডেট ৩৭ মিনিট ৩৪ সেকেন্ড

ঢাকা শনিবার, ৬ শ্রাবণ, ১৪২৫ , বর্ষাকাল, ৭ জিলক্বদ, ১৪৩৯

রাজশাহী, সড়ক সংবাদ ব্রিজ সংস্কার কাজের সুবিধার্থে ঢাকা-রংপুর মহাসড়কে ১৫ ঘণ্টা যান চলাচল বন্ধ থাকবে

ব্রিজ সংস্কার কাজের সুবিধার্থে ঢাকা-রংপুর মহাসড়কে ১৫ ঘণ্টা যান চলাচল বন্ধ থাকবে

মহাস্থানের ব্রিজ সংস্কার কাজের সুবিধার্থে ঢাকা-রংপুর মহাসড়কে ১৫ ঘণ্টা যান চলাচল বন্ধ

নিরাপদ নিউজ : বগুড়ার ঐতিহাসিক মহাস্থানগড়ের শিবগঞ্জ উপজেলার ঢাকা-রংপুর মহাসড়কের করতোয়া নদীর উপর ৬০ বছর পূর্বে নির্মিত ব্রিজ সদ্য ফাটল সংস্কারের জোর প্রস্ততি চলছে। এতে সব ধরনের যানবাহন চলাচল বন্ধের সিদ্ধান্ত নিয়েছে বগুড়া সড়ক ও জনপদ (সওজ) বিভাগ।

সংস্কারের কাজের সুবিধার্থে অাজ শনিবার (১২ আগস্ট) রাত ৮ টা থেকে পরদিন রোববার (১৩ আগস্ট) সকাল ১০ টা পর্যন্ত প্রায় ১৫ ঘণ্টা সেতুটির উপর দিয়ে সব ধরনের যান চলাচল বন্ধ থাকবে বলে জানালেন কর্তৃপক্ষ। মহাসড়কের মহাস্থান সেতুতে ফাটলে বিঘ্নিত ৯ জেলার যোগাযোগ শনিবার (১২ আগস্ট) বিকেলে বগুড়া সড়ক ও জনপথ (সওজ) বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী আশরাফুজ্জামন মহাস্থান প্রতিনিধি সাংবাদিক গোলাম রব্বানী শিপনকে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। তিনি জানান, সেতুর চারটি পাটাতনের মধ্যে মাঝেরটি দেবে যাওয়ায় সেতুটিতে ফাটল দেখা দিয়েছে। এতে মহা ঝুঁকিতে রয়েছে ব্রিজটি। ব্রিজটির কমপক্ষে ৪০ ফুট অংশ ভয়াবহ ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। এ কারণে সেতুর ক্ষতিগ্রস্তসহ ৬০ ফুট অংশে বেইলি ব্রিজ নির্মাণের উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। ইতোমধ্যেই সেই কাজ চলছে। কিন্তু সীমিত পরিসরে যানবাহন চলাচলের কারণে সংস্কার কাজে বিঘ্নত হচ্ছে। তাই দ্রুত সংস্কার কাজ সম্পূর্ণ করতে ব্রিজের উপর দিয়ে সব ধরনের যানবাহন চলাচল বন্ধের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে বলেও জানান নির্বাহী প্রকৌশলী আশরাফুজ্জামন।

উল্লেখ্য, বুধবার (৯ আগস্ট) সন্ধ্যার দিকে ঢাকা-রংপুর মহাসড়কের মহাস্থানের হাতিবান্ধা নামক স্থানে অবস্থিত উক্ত ব্রিজের অাকস্বিক ফাটল দেখা দেয়। এরপর থেকে সারাদেশের সঙ্গে উত্তরাঞ্চলের ৯ জেলার যোগাযোগ ব্যবস্থা হুমকির মুখে পড়ে। এতে বাস ও হালকা যানবাহন ধীরগতিতে সেতু পার হলেও ভারী যান চলাচল বন্ধ হয়ে যায়।  ফলে মহাস্থান-শিবগঞ্জ সড়ক হয়ে প্রায় ১০ কিলোমিটারের মতো পথ ঘুরে এসব যানবাহনকে যাতায়াত করতে হয়। এতে উত্তরাঞ্চলের রংপুর, দিনাজপুর, নীলফামারী, পঞ্চগড়, ঠাকুরগাঁও, লালমনিরহাট, গাইবান্ধা, জয়পুরহাট ও কুড়িগ্রাম জেলায় যাতায়াতকারী যানগুলোকে বাড়তি সময় ব্যয় করতে হচ্ছে। এদিকে ১৯৫৮ সালে করতোয়া নদীর উপর ব্রিজটি নির্মাণ করা হয়। উত্তরাঞ্চলের জেলাগুলো থেকে গড়ে প্রতিদিন ১২ হাজারের মতো বিভিন্ন ধরনের যানবাহন পারাপার করতো এ ব্রিজের উপর দিয়ে। ফলে প্রায় ৬০ বছরের পুরনো এ ব্রিজের মাঝের গার্ডারে ফাটল দেখা দিয়েছে। পরিস্থিতি মোকাবিলায় বাস ও হালকা গাড়িগুলো একটা একটা করে পার করে দেওয়া হচ্ছে। ভারী যান ও মালবাহী ট্রাক বিকল্প পথ হিসেবে মহাস্থান-শিবগঞ্জ সড়কটি ব্যবহার করছিল। শিবগঞ্জ অাঞ্চলিক এরাস্তায় ভারি যান চলাচলের কারনে রাস্তার কার্পেটিং উঠে চলাচলের অযোগ্য হলে অাজ দুপুরে কর্তৃপক্ষ ওই রাস্তা দিয়েও সকল ভারি যান চালাচল বন্ধ করে দেয়। এতে বিপাকে পড়ে দূরপাল্লার যানবাহন। এদিকে ইতিমধ্যে ঢাকা থেকে ব্রিজ ডিজাইন ইউনিটের দু’জন বিশেষজ্ঞ সেতুটি পরিদর্শন করেছেন।

পাঠকের মন্তব্য: (পাঠকের কোন মন্তব্যের জন্য কর্তৃপক্ষ কোন ক্রমে দায়ী নয়)