আপডেট মে ১১, ২০১৯

ঢাকা মঙ্গলবার, ৮ জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৬ , গ্রীষ্মকাল, ১৫ রমযান, ১৪৪০

ভ্রমন ভারতের শৈল শহর দেরাদুন ও মোসুরী

ভারতের শৈল শহর দেরাদুন ও মোসুরী

নাসিম রুমি, ১১ মে ২০১৯, নিরাপদ নিউজ: ২,১০০ ফুট উচ্চতায় অবস্থিত দেরাদুন বর্তমানে উওরাখগেুর রাজধানী। গঙ্গা যমুনার মাঝে বিস্তত দুন। উপত্যকায় গনে উঠেছে দেরাদুন। লোকশ্রুতি এখানে বাস করতেন। শহর থেকে ১১ কিমি দূরে সহ¯্রধান। হাজার ধারায় জল গড়িয়ে পড়ছে চুনা পাথরের দেওয়ালে। তাই নাম। রয়েছে এর পাশেই নদী। সব মিলিয়ে মনোমুগ্ধকর নিসর্গ শোভার আয়োজ ১০ কিমি দূরে ছোট্র চিড়িয়াখানা – মালসি ডিয়ার পার্ক। এ ছাড়াও চলুন অরণ্য গবেষণা কেন্দ্রে। এজন্য আপনি অরন্য বিশারদ না। ৮ কিমি দূওে রবারস কেভ। ২০কিমি দূরে মনোরম প্রাকৃতিক পরিবেশের মাঝে পিকনিক স্পট লচ্ছিওয়ালা।

দেরাদুনের সুইট ফলসে লেখক

এবারে চলুন দেরাদুন থেকে ৩৪ কিমি দূরের পাহাড়ের রানী মুসৌরি। গাড়োয়ালের জনপ্রিয়তম শৈলশহর মুসৌরির উচ্চতা ২০০মিটার। দেরাদুর থেকে নিয়মিত বাস যাচ্ছে মুসৌরি। সময়। লাগে ঘন্টা দেড়েক। দেরাদুনের প্রধান বাসস্ট্যান্ড রয়েছে গান্ধী রোডে। দেরাদুন স্টেমনের পাশে মুসৌরিগামী বাসস্ট্যান্ড। মুসৌরিতে বেশিরভাগ হোটেলের অবস্থান লাইব্রেরি বাসস্ট্যান্ড পিকচার প্যালেস বাসস্ট্যান্ড অঞ্চলে এবং এই। দুই বাসস্ট্যান্ডের সংযোগকারী ম্যাল রোড়।

মোসুরীর ক্যাম্পল ফলস

এখানে থাকার সেরা ঠিকানা জিএমভিএন-এর হোটেল গাড়োয়াল টেরেস। ভাড়া ৩,০০০ থেকে ৩,৫০০টাকা অন্যান্য প্রইভেট হোটেলে ১০০০ থেকে ১,৮০০টাকার মধ্যে ভাল মানের দ্বিশয্যার ঘর মিলে যাবে। এখানের সমস্ত হোটেলই খাওয়ার ব্যবস্থ আছে। চেক আউটের সময় সকাল ১০টা। তবে হোটেল দালালদের খপ্পরে পড়েবেন না। এই শৈলশহরের প্রকৃতি অসাধারন সুন্দর। এখান থেকে দেখা যায় তুষার মৌলী হিমালয়ের হিমশৃঙ্গের সারি। ৪ কিমি দূরে রয়েছে। এবার চলুন মুসৌরি থেকে ২২ কিমি দূওে সমুদ্রপষ্ঠ থেকে ২,২৯০মিটার উচ্চতায় ধনৌলটি। প্রকৃতি তার সম্পদ অকৃপণভাবে ঢেলে সাজিয়েছে ধনৌলটিকে। সূর্যোদয় এবং সূর্যাস্তের সময় হিমালয়ের বরফাবৃত চুড়াগুলিতে রঙের।

পাঠকের মন্তব্য: (পাঠকের কোন মন্তব্যের জন্য কর্তৃপক্ষ কোন ক্রমে দায়ী নয়)