ব্রেকিং নিউজ
বাংলা

আপডেট ৪৫ মিনিট ৪৫ সেকেন্ড

ঢাকা বৃহস্পতিবার, ৮ ভাদ্র, ১৪২৬ , শরৎকাল, ২১ জিলহজ্জ, ১৪৪০

বহির্বিশ্ব, লিড নিউজ ভারতের দাবি: ‘টুইটারে কাশ্মীর নিয়ে গুজব ছড়াচ্ছে পাকিস্তান’

ভারতের দাবি: ‘টুইটারে কাশ্মীর নিয়ে গুজব ছড়াচ্ছে পাকিস্তান’

নিরাপদনিউজ: পাকিস্তান থেকে পরিচালিত আটটি টুইটার অ্যাকাউন্ট জম্মু-কাশ্মীর ইস্যুতে গুজব ছড়িয়ে অশান্তি সৃষ্টি করছে বলে দাবি ভারতের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের। এরই মধ্যে টুইটার অ্যাকাউন্টগুলো সরানোর জন্য উঠেপড়ে লেগেছে ভারতের নরেন্দ্র মোদি সরকার। অ্যাকাউন্টগুলো সরানোর জন্য মাইক্রোব্লগিং সাইট টুইটারকে চিঠিও দিয়েছে ভারত।

ভারতের স্বরাষ্ট্র সচিব রাজীব গৌবা টুইটারকে এক চিঠিতে জানিয়েছেন, নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক মন্ত্রণালয়ের এক প্রবীণ কর্মকর্তার মতে, ওই আটটি অ্যাকাউন্ট কাশ্মীরে অশান্তির চেষ্টা করছে। এ ছাড়া ওই অ্যাকাউন্টগুলো থেকে গুজব ও ভুল তথ্য ছড়ানো হচ্ছে।

কাশ্মীরের ইন্সপেক্টর জেনারেল স্বয়ম প্রকাশ পানি বলেন, ‘টুইটার অ্যাকাউন্টগুলো ভুয়া সংবাদ প্রচার করছিল। তারা নিজেদের টুইটে যে ভাষা ব্যবহার করছে, তা স্পষ্ট ইঙ্গিত দেয় যে, তারা হয় আইএসআই (পাকিস্তানের গোয়েন্দা সংস্থা), নয়তো পাকিস্তান সেনাবাহিনী দ্বারা পরিচালিত।’

স্বয়ম প্রকাশ আরো বলেন, ‘ওই টুইটার অ্যাকাউন্টগুলো কাশ্মীর উপত্যকার নয়। তাদের সঙ্গে যেকোনো ধরনের তথ্য আদান-প্রদান করা অনুচিত হবে। আমরা টুইটার কর্তৃপক্ষকে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়ার অনুরোধ জানিয়েছি এবং নাগরিকদেরও এ ধরনের অ্যাকাউন্ট থেকে ছড়ানো গুজবে বিশ্বাস না করার জন্য অনুরোধ করছি।’

জম্মু-কাশ্মীর পুলিশ জানিয়েছে, টুইটার কর্তৃপক্ষের কাছে ওই টুইটার অ্যাকাউন্টগুলোর ব্যবহারকারীদের বিবরণ চেয়েছে তারা। ওই টুইটার অ্যাকাউন্টগুলো থেকে করা টুইটগুলো বিভিন্ন সম্প্রদায়ের মধ্যে সংঘর্ষ তৈরির ব্যাপারেও মদদ দিতে পারে বলে অভিযোগ করেছে রাজ্য পুলিশ।

কেন্দ্রীয় সরকার বলছে, কাশ্মীর উপত্যকায় গুলি চালানো হয়েছে—এমন গুজব মানুষ বিশ্বাস করেনি।

এদিকে ভারতের কেন্দ্রীয় রিজার্ভ পুলিশ ফোর্স (সিআরপিএফ), জম্মু ও কাশ্মীরের পুলিশ এবং অন্যান্য সুরক্ষা সংস্থা সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ব্যবহারকারীদের গুজবে কান না দেওয়ার ব্যাপারে উপত্যকাবাসীকে সতর্ক করছে।

টুইটারের এক মুখপাত্র বার্তা সংস্থা পিটিআইকে বলেন, ‘আমরা গোপনীয়তা ও সুরক্ষার কারণে এ ধরনের অ্যাকাউন্ট সম্পর্কে কোনো মন্তব্য করি না। টুইটারে করা আইনি অনুরোধগুলো আমাদের টুইটার ট্রান্সপারেন্সি রিপোর্টে বছরে দুবার প্রকাশিত হয়।’

এদিকে ঈদের মধ্যেও কড়া নিরাপত্তার মধ্য দিয়ে ঘিরে রাখা হয়েছে জম্মু-কাশ্মীরকে। থমথমে পরিস্থিতি তৈরি হয়েছে অঞ্চলজুড়ে। তবে পুলিশ জানিয়েছে, বিক্ষিপ্ত অশান্তি ছাড়া জম্মু-কাশ্মীরে শান্তিতেই ঈদ উদযাপিত হচ্ছে।

এদিকে জম্মু-কাশ্মীরের বিশেষ মর্যাদা প্রত্যাহারের জন্য কেন্দ্রীয় সরকারের সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে সুপ্রিম কোর্টে আবেদন করেছে রাজ্যের সাবেক মুখ্যমন্ত্রী ওমর আবদুল্লাহর রাজনৈতিক দল ন্যাশনাল কনফারেন্স। দলটির দুই সাংসদ আকবর লোন ও হাসনাইন মাসুদির করা ওই আবেদনে কেন্দ্রের পদক্ষেপকে ‘বেআইনি’ বলে দাবি করা হয়েছে।

পাঠকের মন্তব্য: (পাঠকের কোন মন্তব্যের জন্য কর্তৃপক্ষ কোন ক্রমে দায়ী নয়)