ব্রেকিং নিউজ
বাংলা

আপডেট জুলাই ১৮, ২০১৭

ঢাকা সোমবার, ৩০ আশ্বিন, ১৪২৬ , শরৎকাল, ১৪ সফর, ১৪৪১

লিড নিউজ, সড়ক সংবাদ ভোলা-লক্ষ্মীপুর নৌরুটে ফেরি বিকল হয়ে যানবাহনের দীর্ঘ লাইন

ভোলা-লক্ষ্মীপুর নৌরুটে ফেরি বিকল হয়ে যানবাহনের দীর্ঘ লাইন

ফেরি বিকল হয়ে পড়ায় উভয় পাড়ে দেড় কিলোমিটার যানজটের সৃষ্টি হয়েছে।

১৮ জুলাই ২০১৭, নিরাপদ নিউজ : ভোলা-লক্ষ্মীপুর নৌরুটে একটি ফেরি বিকল হয়ে পড়ায় উভয় পাড়ে দেড় কিলোমিটার যানজটের সৃষ্টি হয়েছে। ফলে পারাপারের অপেক্ষায় রয়েছে অন্তত দুই শতাধিক যানবাহন। ৮ দিনেও বিকল ফেরি কৃষাণি চালু না হওয়ায় দিন দিন এ জট বাড়ছে। এতে নির্ধারিত সময়ে পরিবহনগুলো পৌঁছাতে না পারায় ঘাটেই নষ্ট হচ্ছে ওই সব গাড়িতে থাকা কাঁচামাল। কবে নাগাদ ফেরি চলাচল শুরু হবে তা জানে না শ্রমিকরা।

জানা গেছে, ভোলার সঙ্গে দেশের দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের ২১ জেলার যোগাযোগের সহজ মাধ্যম ভোলা-লক্ষ্মীপুর নৌরুট। গুরুত্বপূর্ণ এ রুটে কনকচাঁপা, কুসুমকলি এবং কৃষাণি নামে তিনটি ফেরি চলাচল করে। কিন্তু ১০ জুলাই কৃষাণি নামের ফেরিটি যান্ত্রিক ত্রুটির কারণে বিকল হয়ে যায়। এতে তিনটির জায়গায় দুটি ফেরি চলাচল করায় উভয় পাড়ে গাড়ির দীর্ঘ লাইন সৃষ্টি হয়েছে। ঘাটে দিনের পর অপেক্ষা করতে হচ্ছে পারাপারের অপেক্ষায় থাকা পরিবহনগুলোকে।

শ্রমিকরা জানান, ভোলা-লক্ষ্মীপুর রুটে দুটি ফেরি দিয়ে জট কমানো সম্ভব হচ্ছে না। পারাপারের জন্য একেকটি ট্রাককে গড়ে ৭/১০ দিন পর্যন্ত অপেক্ষা করতে হচ্ছে। ঘাটে অপক্ষেমান ট্রাকগুলোতে কাঁচামালসহ বিভিন্ন পণ্য থাকায় তা পচন ধরতে শুরু করেছে। ফলে দুর্ভোগে পড়েছেন পরিবহন শ্রমিকরা।

ভোলার ইলিশা ফেরি ঘাটে দেখা গেছে, ভোলা-ইলিশা সড়কে কাঁচামাল, চাল, গরু, মহিষ, গ্যাস, কাঠসহ বিভিন্ন পণ্যবাহী ট্রাকের দীর্ঘ লাইন। সড়কের পাশেই অলস সময় পার করছেন চালক ও শ্রমিকরা। প্রচণ্ড গরমে পুড়ে নাকাল অবস্থা তাদের। একেকটি ট্রাক ঘণ্টার পর ঘণ্টা আর দিনের পর দিন ফেরির অপেক্ষায় রয়েছে। কিন্তু নির্ধারিত সময়ে কেউ পার হতে পারছে না। শুধু ফেরি বিকল নয়, জোয়ারের পানির স্রোতের কারণেও দিনে ১/২ ঘণ্টা ফেরি চলাচল বন্ধ রাখতে হচ্ছে। এতে যানবাহনের লাইন আরো দীর্ঘ হচ্ছে।

ফেরি ঘাটের টার্মিনাল এসিস্ট্যান্ট মো. হেলাল উদ্দিন বলেন, বর্তমানে ভোলা ইলিশা ফেরি ঘাটে ১৩০টি এবং লক্ষ্মীপুর মজু চৌধুরীররহাটে ১৮০ ট্রাকের দীর্ঘ লাইন রয়েছে। এ জট কমানোর চেষ্টা চলছে। বিকল ফেরিটি মেরামতে রয়েছে খুব শিগগিরই সেটি সচল হবে। তখন আর এ সমস্যা থাকবে না।

পাঠকের মন্তব্য: (পাঠকের কোন মন্তব্যের জন্য কর্তৃপক্ষ কোন ক্রমে দায়ী নয়)