ব্রেকিং নিউজ
বাংলা

আপডেট জুন ১৯, ২০১৯

ঢাকা মঙ্গলবার, ৪ অগ্রহায়ণ, ১৪২৬ , হেমন্তকাল, ২১ রবিউল-আউয়াল, ১৪৪১

রাজশাহী, সড়ক সংবাদ মহাস্থানে মাজার রাস্তায় একটি প্রশস্ত মোড় না থাকায় হাজারো দূর্ভোগ

মহাস্থানে মাজার রাস্তায় একটি প্রশস্ত মোড় না থাকায় হাজারো দূর্ভোগ

১৯জুন, গোলাম রব্বানী শিপন,নিরাপদ নিউজ: বগুড়ার মহাস্থানে হাইস্কুল মার্কেট সংলগ্ন এলাকায় শিবগঞ্জ উপজেলার ঐতিহাসিক মহাস্থানগড়ে প্রবেশের প্রধান সড়কে একটি প্রশস্ত মোড় না থাকায় পথচারী ও যানবাহন চালকদের হাজারো দূর্ভোগ সৃষ্টি হয়েছে। এই ব্যাকে গাড়ি ঘুরাতে প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি হয়ে দীর্ঘ জ্যামে পরিনত হয়। সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, বগুড়ার ঐতিহাসিক হযরত শাহ সুলতান মাহমুদ বলখী (রহ:) এর মাজার মসজিদে প্রতিদিন দেশের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে মাজার জিয়ারত করতে ছুটে আসে ধর্মপ্রাণ মুসাল্লীগণ। তারা শুধু জিয়ারত বা মানত করতেই নয় মাজার ও মসজিদ উন্নয়ন প্রকল্পে লক্ষ লক্ষ টাকা দান করে থাকেন। সড়কে এ সংকট সৃষ্টির কারণে মহাস্থানগড়ে ভ্রমণে আসা পর্যটক, মাজার জিয়ারতকারী সহ যানবাহন চালকদের চরম দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে। এ কারণে রাস্তার দু’পাশে শতশত ব্যবসায়ীরাও ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে। একে তো রাস্তায় গাড়ি ঘুরাতে নানা সমস্যায় জর্জরিত। তার ভিতর আবার বৈদ্যতিক খুটি রাস্তার মাঝ পথে বেশি ক্ষতি করছে। বেশ কয়েক বার এই বৈদ্যতিক খুটি সরানোর জন্য পত্রপত্রিকায় সংবাদ প্রকাশ করলেও কর্তৃপক্ষের নজরে আসেনি। শুধু তাই নয়, মহাস্থান সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, উচ্চ বিদ্যালয়, আলিম মাদ্রাসা, মাহীসওয়ার ডিগ্রি কলেজ, দি মর্নিং সান কেজি স্কুল, ইকরা মডেল কেজি স্কুল ও মোকবুল হোসেন আদর্শ কেজি স্কুল- উল্লেখ্য ৭টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ছাত্রছাত্রীদের অনিরাপদ এই রাস্তাটির কারণে সঠিকভাবে তারা চলালচ করতে পারছে না। কখনো কখনো ছাত্রছাত্রী এবং সাধারণ পথচারী ও চালকদের জ্যামে আটকা পরে ক্ষতিসাধিত হতে হচ্ছে। অনেক সময় যাত্রাপথে আটকে পড়ে বিকল্প পথে গন্তব্যে ফিরতে দেখা যায়। এতে স্বাভাবিক কাজকর্মে অনেকের বেঘাত ঘটছে। স্থানীয় এলাকাবাসী ও ব্যবসায়ী মহল জানায়, শিবগঞ্জ-মহাস্থানগড়ে প্রবেশের এটি প্রধান সড়ক। ঐতিহাসিক মহাস্থানগড়কে ঘিরে এখানে গড়ে উঠেছে প্রসিদ্ধ বাজার। ঐতিহাসিক প্রত্নতাত্ত্বিক এলাকায় এধরনের জনদূর্ভোগ খ্যাত রাস্তা মহাস্থানগড়ের জন্য বেমানান। অনেক সময় পুলিশ ও ট্রাফিক পুলিশদের এখানে গাড়ি সিরিয়াল করতে হিমশিম খেতে হয়। তড়িৎ সরু এ রাস্তাটি প্রসারণ করে দর্শনার্থীদের নির্বিঘ্নে চলাচল করতে কর্তৃপক্ষের দৃষ্টি আকর্ষণ করেছেন মহাস্থানগড় এলাকাবাসী।

পাঠকের মন্তব্য: (পাঠকের কোন মন্তব্যের জন্য কর্তৃপক্ষ কোন ক্রমে দায়ী নয়)